কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সেঞ্চুরি-আলো দেখালেন সাব্বির রহমান

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫
সেঞ্চুরি-আলো দেখালেন সাব্বির রহমান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নাসির হোসেনের পরিবর্তে খেললেন ওপেনার তামিম ইকবাল। কিছুই করতে পারলেন না। খেললেন জাতীয় দলে প্রথমবারের মতো সুযোগ পাওয়া রনি তালুকদারও। প্রাপ্তি শূন্য। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের হয়ে খেললেন জাতীয় দলের মুমিনুল হক, আবুল হাসান রাজু। রাজু ব্যাটিং করার সুযোগই পেলেন না। বাকিরা ব্যর্থ হলেন। এর মধ্যে শুধু একজনই প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়ে থাকলেন। তিনি সাব্বির রহমান রুম্মন। এই দাঁড়িয়ে থাকার মর্মও পেলেন। একাই করলেন ৯৯ বলে ৭ চার ও ৮ ছক্কায় ১২৩ রান। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে নামার আগে সুবাতাস ছড়িয়ে দিলেন সাব্বির। সাব্বিরের অসাধারণ নৈপুণ্যে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও ১ উইকেটে জিতল বিসিবি বেশি রানও হলো না। যে রান বিসিবি একাদশ অতিক্রমই করতে পারবে না। পাকিস্তানকে অল্পতে বেঁধে দেয়ার পরও বিসিবি একাদশ যে বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়ে গেল, তাতে খানিকটা শঙ্কা তৈরি হয়েই থাকল। কিন্তু যাদের ব্যাট হাতে কিছু করে দেখানোর কথা, তারাই নীরব ভূমিকা পালন করলেন। নাসিরের পরিবর্তে তামিমকে খেলানো হয়। যেন রান করে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে পারেন। কিন্তু মাত্র ৯ রান করলেন। ব্যর্থ হলেন। দলকেও বিপাকে ফেললেন। তামিম-রনি তালুকদার পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে ব্যাটিং শুরু করবেন। এর ওয়ার্মআপ দেখা হলো। তাতে কোন ফলই মিলল না। দলীয় ৯ রানে রনি তালুকদার আউট হতেই তামিমও আউট হয়ে গেলেন। দল বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়ে গেল। যেখানে এ রান অতিক্রম করতে গিয়ে ভাল একটা শুরু দরকার ছিল, সেখানে আবারও ওপেনিং নিয়ে বিপাকই তৈরি হলো। নাসির হোসেন না থাকায় মুমিনুল হক দলের নেতৃত্ব দিলেন। মুমিনুল হকও (১২) কিছুই করতে পারলেন না। করলেন কে? সাব্বির। একমাত্র সাব্বির। তার শতকটি না হলে বিসিবি একাদশ হেরেই যেত। লিটন কুমার ২২, ইমরুল কায়েস ৩৬, সোহাগ গাজী ৩৬ রান করলেন। বাকিরা কিছুই করে দেখাতে পারলেন না। সাব্বির একাই দলকে ভরসা দিলেন। ২১৩ রানে যখন সাব্বির আউট হলেন, এরপর অবশ্য হারের শঙ্কাই তৈরি হয়ে যায়। শেষপর্যন্ত তা থেকে বাঁচা যায়। সাব্বিরই যে বড় একটি ইনিংস খেলে দিয়ে গেলেন। অবশেষে বিসিবি একাদশ কষ্ট করে হলেও ৪৮.৫ ওভারে ৯ উইকেটে ২৭০ রান করে জিতল স্বাগতিক দল।

এ ম্যাচে অনেক বিষয়ই ধরা দিল। বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজে যে বাংলাদেশই ফেবারিট তা ধরা পড়ল। শুরুতেই পাকিস্তানকে পেছনে ফেলল। হাফিজ ব্যাট হাতে দুর্দান্ত করলেও, সাঈদ আজমল বল হাতে কিছুই করতে পারলেন না। এর বাইরে বাংলাদেশ বোলাররা ভাল করলেও ব্যাটসম্যানরা আহামরি কিছু করতে পারলেন না। তবে সাব্বির যে শতক করলেন, একাই ম্যাচ জেতালেন; তাতে জাতীয় দলের ব্যাটসম্যানরা ঠিকই আত্মবিশ্বাস পেয়ে গেলেন। এখন এ আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠেও তা কাজে লাগাতে পারলেই হয়।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

১৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: