মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

হাসপাতালে রোগীর মাকে চিকিৎসকের থাপ্পড়

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরে হাসপাতালে ভর্তি শিশুকন্যা সোনিয়া খাতুনের (৫) চিকিৎসার বিষয়ে অভিযোগ করায় মা রাবেয়া খাতুনকে মারধর করেছেন ডাঃ গোলাম সরোয়ার। সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার নাক, কান, গলা ওয়ার্ডের ৩৪ নম্বর বেডের পাশে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার বিষয়টি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ সাহাকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন নির্যাতিত নারী রাবেয়া খাতুন। তিনি (রাবেয়া) যশোর সদর উপজেলার সাতমাইল গ্রামের সুমন হোসেনের স্ত্রী। এ দম্পতির মেয়ে সোনিয়া খাতুন টনসিলে প্রদাহজনিত রোগে আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগী রাবেয়া খাতুন জানান, ১২ এপ্রিল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের পরামর্শে মেয়ে সোনিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরদিন সোমবার সারাদিন কোন ডাক্তার আসেননি। রাত ১০টার পরে ডাক্তার গোলাম সরোয়ার পাশে রোগী দেখতে আসেন। এ সময় রাবেয়া তাঁর মেয়েকে সারাদিনে কোন ডাক্তার দেখেননি বলার সঙ্গে সঙ্গেই গালে থাপ্পড় বসিয়ে দেন চিকিৎসক গোলাম সরোয়ার। এ দৃশ্য দেখে পাশের বেডের রোগী ও স্বজনরা হতভম্ভ হয়ে পড়েন। পরে রাবেয়া মুঠোফোনে ঘটনাটি স্বামী সুমনকে জানান। কিন্তু রাত হওয়ায় তিনি এ বিষয়ে কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি।

ঘটনার পরদিন মঙ্গলবার সুমন হাসপাতালে এসে মৌখিক অভিযোগ দিতে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ সাহার কক্ষে যান। কিন্তু নববর্ষের ছুটি থাকায় তত্ত্বাবধায়ককে পাননি। বুধবার লিখিতভাবে তত্ত্বাবধায়ককে জানিয়েছেন। তবে অভিযুক্ত চিকিৎসক গোলাম সরোয়ার দাবি করেছেন, ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। ঘটনাটি মীমাংসা হয়ে গেছে। অপরদিকে, ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে বুধবার সকালে রোগীর বেডের কাছে যান ডাঃ গোলাম সরোয়ারসহ আরও কয়েকজন চিকিৎসক। এ সময় তাঁদের ম্যানেজ করারও চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ সাহা বলেন, ভুক্তভোগী রাবেয়া খাতুন এ বিষয়ে তাঁকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। ঘটনার প্রমাণ পেলে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

১৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: