মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ই-ব্যাংকিং ও ই-কমার্স বিবরণী মাসিকভিত্তিতে দাখিলের নির্দেশ

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এখন থেকে ব্যাংকগুলোকে ই-ব্যাংকিং ও ই-কমার্স বিবরণী মাসিকভিত্তিতে বাংলাদেশ ব্যাংকে দাখিল করতে হবে। আগে ব্যাংকগুলোকে প্রতি তিন মাস অন্তর এই বিবরণী দাখিল করতে হতো। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতি মাসে প্রকাশিত ‘মান্থলি ইকোনমিক ট্রেন্ডস : শীর্ষক পুস্তিকায় আপডেটেট তথ্য সংযোজনের প্রয়োজনে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। চলতি মাস থেকেই বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে এই বিবরণী দাখিলের কথা বলা হয়েছে। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করে সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, বর্তমানে ই-ব্যাংকিং এবং ই-কমার্স বিবরণী আরআইটির মাধ্যমে প্রতি ত্রৈমাসিকের পরবর্তী ১৫ তারিখের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে পরিসংখ্যান বিভাগে প্রেরণ করা হচ্ছে। বিবরণীর এসব তথ্য দিয়ে মান্থলি ইকোনমিক ট্রেন্ডস পুস্তিকাটি নিয়মিতভাবে প্রকাশিত হচ্ছে। এসব তথ্য উপাত্ত নতুন ও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় অর্থনৈতিক সূচকসমূহের গতিধারা পর্যালোচনার জন্য তা এর ব্যবহারকারী ও গবেষকদের কাছে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এজন্য এখন থেকে ই-ব্যাংকিং ও ই-কমার্স বিবরণী ত্রৈমাসিকের পরিবর্তে মাসিকভিত্তিতে ১০ তারিখের মধ্যে দাখিল করতে আপনাদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এই আরআইটি বিবরণী বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড অথবা পরিসংখ্যান বিভাগের এসএসপি উপবিভাগ থেকে সরাসরি সংগ্রহ করা যাবে বলেও সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে। এর আগে গত বছরের ১৫ মে ই-ব্যাংকিং ও ই-কমার্সের বিবরণী ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে দাখিলের নির্দেশনা দিয়ে সার্কুলার জারি করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক।

দাতাদের কারিগরি সহায়তা তথ্য সংগ্রহের মান বাড়াচ্ছে ॥ কানিজ ফাতেমা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দাতাদের কারিগরি সহায়তা প্রদান এবং সেই সঙ্গে জ্ঞান বিনিময় তথ্য সংগ্রহের মান বাড়াচ্ছে। ফলে সঠিক পরিসংখ্যানপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব কানিজ ফাতেমা এসব কথা বলেছেন। সোমবার বিকেলে বিবিএস, ইউএনএফপিএ এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে ডাটাবেজ ক্রিয়েশন এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অব ওয়েব বেসড এ্যাপ্লিকেশন ফর সেনসাচ ডাটা ডিসিমিনেশন শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা করেন।

রাজধানীর আগারগাঁও এ পরিসংখ্যান ভবনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত দশ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শফিকুল ইসলাম, এম এ মান্নান হাওলাদার, যুগ্ম সচিব ড. কাজী মোস্তফা সারোয়ার এবং ইউএনডিপির ডেপুটি কান্ট্রি ডাইরেক্টর ইয়োরী কাটো। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক (চলতি দায়িত্ব) বাইতুল আমীন ভূইয়া। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পপুলেশন এ্যান্ড হাউজিং সেনসাচ-২০১১ এর প্রকল্প পরিচালক মাসুদ আলম।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

১৬/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: