আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‍বিশিষ্ট রন্ধনশিল্পী ও জনপ্রিয় উপস্থাপক শারমিন লাকী

প্রকাশিত : ১৪ এপ্রিল ২০১৫
  • কুলফি

যা লাগবে

দুধ ২ লিটার, চিনি ৩০০ গ্রাম, এলাচ ৭/৮ টি, দারুচিনি ৪/৫টি, তেজপাতা ২টি, মাওয়া ২০০ গ্রাম এবং পছন্দ অনুযায়ী ফল।

যেভাবে করবেন

প্রথমে হাল্কা আঁচে দুধ, এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা দুধের মধ্যে দিয়ে জ্বাল দিতে হবে। যখন দেখবেন দুধের পরিমাণ অর্ধেক হয়ে গেছে, তখন চিনি ও মাওয়া গ্রেট করে মিশিয়ে দিতে হবে আস্তে আস্তে অল্প আঁচে ভালমতো দুধ জ্বাল দিতে হবে। দুধ যখন ঘন হয়ে যাবে তখন তা ছেঁকে নিতে হবে। এর পর দুধ কুলফি গ্লাসে ঢালতে হবে। দুধ ঠা-া হলে ডিপফ্রিজে রাখতে হবে কুলফি জমানোর জন্য। কুলফি জমানোর জন্য অবশ্যই ১২ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখতে হবে। তারপর পছন্দমতো ফল কেটে সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন

আমে পিয়ালী মাছের চচ্চড়ি

যা লাগবে

ছোট মাছ (পিয়ালী) আড়াই শ’ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, কাঁচা আম কুচি একটা আমের, ধনেপাতা কুঁচি তিনটা গাছ, কাঁচা মরিচ ফালি ছয়টা, হলুদ গুঁড়া দেড় চা চামচ, মরিচ গুঁড়া এক চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তেল হাফ কাপের কম।

যেভাবে করবেন

মাছ ভালভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে। তারপর ধনে পাতা, কাঁচা মরিচ, তেল বাদে সব উপকরণ এক সঙ্গে মেখে গরম তেলে ছেড়ে রান্না করতে হবে। রান্না হয়ে গেলে ধনে পাতা, কাঁচা মরিচ দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

কাচকি-মলায় কাঁচা আম সর্ষে

যা লাগবে

কাচকি মাছ ও মলা মাছ ২০০ গ্রাম করে,কাচা আম কুচি ১/২ কাপ,সর্ষে বাতা ২ টেবিল চামচ,কাচা মরিচ,গুরা মরিচ,হলুদ,ভাজা জিরা গুরা,তেল,লবণ পরিমানমত।

যেভাবে করবেন

মাছ পরিস্কার করে সঙ্গে বাকি সব উপকরণ মিশিয়ে নিন। এবার হাতে সামান্য পরিমাণ পানি ছিটিয়ে মৃদু আঁচে ঢেকে ১০ মিনিট রান্না করুন।পানি শুকিয়ে এলে উপরে ভাজা জিরাগুরা ছিটিয়ে নামিয়ে নিন।

ইলিশ লাউ শাকের পাতুরি

যা লাগবে

ইলিশ মাছ একটি, লবণ, লাউ শাক, সরিষা বাটা, মরিচ গুড়া, ধনিয়া গুড়া ও পেঁয়াজ কুচি।

যেভাবে করবেন

প্রথমে মাছ হলুদ ও লবণ মেখে রেখে দিন। লাউ শাক ধুয়ে রেখে দিন। মাছ যে কয় টুকরা সেই কয়টা শাক নিবেন। সঙ্গে সুতা লাগবে। পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, সরিষাবাটা দিয়ে একসঙ্গে বেটে নিন। মাছ পেঁয়াজ কুচি, হলুদ, লবণ, সরিষাবাটা দিয়ে মাছগুলো তেল দিয়ে মেখে নিন। একটা করে মাছ ও একটু মসলা দিয়ে লাউ পাতায় জড়িয়ে সুতা দিয়ে বেঁধে রেখে দিন। চুলায় তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে একটু করে মরিচ গুঁড়া, ধনিয়া গুঁড়া, সরিষাবাটা দিয়ে কষিয়ে নিয়ে সামান্য পানি দিয়ে শাকে জড়ানো মাছগুলো দিয়ে ঢাকনা দিয়ে মৃদু আঁচে কিছুক্ষণ রেখে দিন। শাক সিদ্ধ হলে তেলে উঠে এলে নামিয়ে নিন। হয়ে যাবে ইলিশ লাউ শাকের পাতুরি।

চিতল মাছের কালিয়া

যা লাগবে

চিতল মাছ, তেল, লবণ, আদা, জিরা, রসুন ও টক দই।

যেভাবে করবেন

মাছ, হলুদ, লবণ ও সামান্য তেল দিয়ে মেখে হাল্কা করে ভেজে তুলে রাখতে হবে। ভাজা তেলের ভিতর জিরা ও তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে তারপর ১ টে. চামচ পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন থেতো করা কয়েক টুকরা টক দই ফেটানা দিয়ে কষিয়ে গ্রেবি তৈরি করতে হবে। ঘি, চিনি, গরম মসলা গুঁড়া দিয়ে পরিমাণ পানি দিয়ে তার ভিতর ভাজা মাছগুলো দিয়ে দিন। কিছুক্ষণ মৃদু আঁচে রেখে নামিয়ে নিন, হয়ে যাবে মজাদার ফলি মাছের কালিয়া।

প্রকাশিত : ১৪ এপ্রিল ২০১৫

১৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: