আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নাছির ও মনজুরের পক্ষে নগরজুড়ে চলছে জনসংযোগ

প্রকাশিত : ১৪ এপ্রিল ২০১৫
  • চসিক নির্বাচন

মোয়াজ্জেমুল হক, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণায় ততই সরব রূপ নিচ্ছে। ইতোমধ্যে মেয়র ও কাউন্সিলর মাইকিং, পোস্টারিং, লিফলেট বিলির পাশাপাশি প্রার্থীদের সঙ্গে নিয়ে এলাকায় এলাকায় গণসংযোগ তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে প্রধান দুই প্রার্থী আওয়ামী লীগ সমর্থিত আ জ ম নাছির উদ্দিন এবং বিএনপি সমর্থিত এম মনজুর আলমের প্রচারণায় উভয় দলের নেতারা নগরবাসীর প্রতি নানা আশ্বাস দিচ্ছেন, দেখাচ্ছেন নতুন স্বপ্ন। পাশাপাশি উভয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্ব-স্ব দল ও সমর্থকদের পক্ষে বিষোদগারও করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে গণসংযোগকালে বিএনপি নেতা সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের পক্ষ থেকে মনজুর আলমের জন্য প্রতিষ্ঠিত নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় বিএনপির পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন ডেকে এর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়েছে এবং দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে। এ অবস্থায় রিটার্নিং অফিসারের দফতর থেকে গত শনিবার তিনদিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ প্রশাসনের কাছে পত্রও দেয়া হয়েছে।

এদিকে, মনজুর আলমের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে বলা হচ্ছে, তিনি একজন পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি, তাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে। পক্ষান্তরে আ জ ম নাছির উদ্দিনের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে বলা হচ্ছে, দেশব্যাপী সহিংসতা ও পেট্রোলবোমায় ২০ দলের যে নেতিবাচক কার্যক্রম তা ভোটারদের বুঝিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে। উল্লেখ্য, হাতি প্রতীক নিয়ে আ জ ম নাছির উদ্দিন এবার মেয়র পদে লড়াইয়ে নেমেছেন। হাতি প্রতীকের প্রতি উদ্দেশ করে আ জ ম নাছির বিরোধীরা প্রচার চালাচ্ছেন হাতি প্রতীকের প্রার্থী জয়ী হলে তা-ব চালাবে। হাতি বনে সুন্দর এ হাতি বন ছেড়ে লোকালয়ে আসলে প্রাণহানির ঘটনা ঘটে ও জনপদ তছনছ করে দেয়। পক্ষান্তরে আ জ ম নাছিরের সমর্থনে প্রচারে বলা হচ্ছে কমলালেবু প্রতীক নিয়ে মনজুর আলম পুনরায় নির্বাচিত হলে নগরবাসীকে বর্ষা মৌসুমে গলা পানিতে থাকতে হবে। এছাড়া মনজুর আলম বিগত এক টার্ম যে মেয়র পদে ছিলেন তখনকার ব্যর্থতার বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে আগামী নির্বাচনে আ জ ম নাছির উদ্দিনকে জয়ী করার জন্য নগরবাসীকে আহ্বান জানানো হচ্ছে।

অপরদিকে, এ দুই প্রার্থীর পক্ষে এলাকায় এলাকায় সমর্থকরা বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে প্রচারপত্র ও লিফলেট বিতরণে ব্যস্ত সময় পার করছে। মাইকিংও চলছে প্রার্থীদের পক্ষে।

এ অবস্থায় ওয়ার্ড কাউন্সিলররাও বসে নেই তারাও তাদের নির্দিষ্ট এলাকায় মাইকিং করে ভোট ভিক্ষা করে চলেছেন। উল্লেখ্য, কাউন্সিলর পদে বিএনপি-জামায়াতের চেয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের আধিক্য রয়েছে। হাতে গোনা কয়েকটি ওয়ার্ড ছাড়া অধিকাংশ ওয়ার্ডে ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিতরাই একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে মাঠে নেমেছেন। এ নিয়ে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা টানা কয়েকদিন প্রচেষ্টা চালিয়ে সফলতা আনতে পারেন নি। তিনটি ওয়ার্ডে মহানগর আওয়ামী লীগ তাদের সমর্থিত তিনজন প্রার্থীকে সমর্থন দানের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দিয়েছে। একটিতে একক প্রার্থী হতে পেরেছেন। এ সবের পাশাপাশি প্রধান দুই দলে মেয়র প্রার্থী নিয়ে কোন বিভেদ নেই বলে আনুষ্ঠানিক প্রচার চললেই ভিতরে ভিতরে যে মনোমালিন্য রয়েছে তা অস্বীকার করার কোন জো নেই।

প্রকাশিত : ১৪ এপ্রিল ২০১৫

১৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: