কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চৈত্রশেষের বাতাস দিল ডাক বাজাও, বৈশাখী আনন্দ ঢাকা

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫
  • নুরুন্নাহারশিরীন

এক একটা বছর ফুরায় যখন, তখন চৈত্রশেষের ধুলোয় ওড়ানো মন ক্যামন করা বাতাস বহে ধুলোধূসর জানালায়। হঠাৎ অকাল আকাশফাটা কালবৈশাখী ঝড়ও আসে। শিলাবৃষ্টিও আমের কুঁঁড়িদের শাখায় ঝাঁকিয়ে-ঝরিয়ে দেয় সদ্য নতুন আমের সবুজ কুঁঁড়ি। মাঠের ফসলেরও অনেক ক্ষতি হয়ে যায়। তবুও বাতাসে ভাসে নববর্ষ। আগমনী গানে জানান দেয়, ‘এসো হে বৈশাখ এসো, এসো।’

এমন ডাক শুনে কি বাঙালী ঘরে থাকতে পারে?

লাল-সাদায় সেজে, কালোচুলের বিনুনিতে, খোঁপায় গুঁজে যূথিকা-বেলি ফুলের মালা অথবা গাঁদাÑ কিশোরী, তরুণী, বাঙালী রমণীরা কপালে লাল টিপের জাদুতে, চোখের কালো কাজলে দারুণ বিদ্যুত মেখে নতুন বর্ষবরণ করতে বেরোয়। বাঙালী পুরুষরাও পিছপা হয় না নববর্ষ বরণে। বাঙালী পুরুষরাও বৈশাখীর সাজে সাজে। দারুণ সাদা-ঘিয়ে-ছেয়ে-লাল বাহারি পাঞ্জাবি ও শাল কি উত্তরীয় জড়িয়ে বাঙালী তরুণ, ছেলে-বুড়ো সবাই বেশ নজরকাড়া, মনোহারী বেশেই বৈশাখকে বরণ করে। পহেলা বৈশাখের সে বড় হৃদয়হরণ দৃশ্য।

শিশুকাল থেকেই এ দেশে বাঙালী এইভাবে নতুন বছর বরণ করা দেখেই হৃদয়ে বাঙালী সত্তা লালন-ধারণ করতে শেখে। এ দেশে বাঙালীয়ানা বহু কালের জাতিসত্তার ধারক-বাহক। আমাদের অহঙ্কার আমরা বাঙালী। আমাদের বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্ন পূরণকারী নেতা বাঙালী। তিনি হাজার সেরা বাঙালী। আমরা এ দেশের বাঙালী তাই বাঙালী নেতার কারণে গর্বিত এমন দিনে। কেননা আজ বাংলাদেশজুড়ে অনেক বাঙালী-বিদ্বেষজাত পদচারণায় বাতাসে ঝরছে অনেক বেদনার দহন। তার মাঝে আসন্ন চৈত্র সংক্রান্তি ও বৈশাখের সেই সে চির নতুন আবাহনী।

আমরা ছেলেবেলা থেকেই দেখেছি, মায়ের ফরমাসে বাবার চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে বাজার করা। সজিনা, শাক, কুমড়ো, আলু, পটোল, লাউ, বেগুন আর মসুর, মুগ, মাষকলাই, ছোলা ও অড়হড়ের ডাল। সেদিন মাছ-গোশ না, কেবল নিরামিষ খাওয়া। পরদিন আবার উল্টো। নতুন বছর মানেই বড় মাছের মুড়িঘণ্ট, কালিয়া, কোরমা, ইলিশের বাহারি পদ। আজও এ দেশে আমরা পহেলা বৈশাখে এসব আয়োজনে কমতি দেখি না। শুধু কতক নষ্টচক্রের বিভাজনের বিদ্বেষ বিষ ছড়ানো ছাড়া। এ দেশে আজও বাঙালী জাতিসত্তা আগের মতো সেরকমই আছে বলেই নববর্ষ আয়োজনের কোন কমতি নেই কোথাও আমাদের।

তাই তো আজ আমার প্রার্থনাÑ আমরা যেন আবার আমাদের হৃদয়জাগানি বাঙালী জাতিসত্তা জাগিয়ে দিয়ে সকল জরা সকল অবাঞ্ছিত অন্যায় দহন হটিয়ে বিশ্বসেরা বাংলাদেশের বাঙালী রূপে আমাদেরই ঐতিহ্যগত উত্তরাধিকার সন্তানের হৃদয়ে চারিয়ে দেবার কাজে সফল হই। আজি এ চৈত্রদিনে নতুন আসন্ন বৈশাখ-বরণে আমার এইটুকু চাওয়া লিখে দিলাম বিশ্ববিধাতার জগত খাতার পাতায়।

লেখক : প্রাবন্ধিক

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫

১৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: