কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ডিএসইর ওয়েবসাইটের নতুন সংস্করণ চালু

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫
  • শুরুতেই দুর্ভোগ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজার সংক্রান্ত নানা কর্পোরেট তথ্য সেবা দিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটের নতুন সংস্করণ চালু করা হয়েছে। চালু করা ওয়েবসাইটে আধুনিক লেখচিত্রের (গ্রাফ) উপরে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেনে ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. স্বপন কুমার বালা। তিনি বলেন, পুরনো ওয়েবসাইটের চেয়ে নতুন সাইট অনেক বেশি তথ্যবহুল। এতে বিনিয়োগকারীরা উপকৃত হবেন।

এদিকে ওয়েবসাইটের নতুন সংস্করণ চালুর দিনেই ডিএসইর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। অসম্ভব ধীর গতির কারণে সকাল সোয়া দশটার পর থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দুর্ভোগে পড়তে হয় বিনিয়োগকারীদের। অনেকে সাইটে ঢুকতেই পারেননি। আবার অনেকে ঢুকতে পারলেও তার জন্য সময় লেগেছে কয়েক মিনিট। কাক্সিক্ষত পেজে ঢুকতে আবার কয়েক মিনিট অপেক্ষা করতে হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক বিনিয়োগকারী জানিয়েছেন, নতুন ওয়েবসাইট বা সফটওয়্যার চালুর দিনে সমস্যা নতুন কিছু নয়। এই কারণে বিনিয়োগকারীদের ভোগান্তিরও শেষ নেই।

রবিবার মতিঝিলে ডিএসইর প্রধান কার্যালয়ে নতুন ওয়েবসাইট উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে নতুন ওয়েবসাইট উদ্বোধন করেন ডিএসইর চেয়ারম্যান বিচারপতি সিদ্দিকুর রহমান মিয়া। এ সময় ডিএসইর পরিচালক খাজা গোলাম রসূল ও শরিফ আনোয়ার হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। স্বপন কুমার বালা বলেন, বিনিয়োগকারী লেখচিত্রের সহায়তা নিয়ে সহজেই কোন কোম্পানির শেয়ারের বর্তমান মূল্য, আগের বিভিন্ন সময়ের মূল্য জানতে পারবেন। এই ধরনের তথ্য আগে পেতে বিনিয়োগকারীদের কষ্ট হতো, এখন তা সহজেই হবে। তিনি বলেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের কর্মকা কাগজপত্রবিহীন (পেপার লেস) করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আশা করছি কিছু দিনের মধ্যে এটা করা সম্ভব হবে। তারপর আমরা আর কাগজের সহায়তায় কাজ করব না। এ জন্য একটি সফটওয়্যার কিনতে হবে। ওই সফটওয়্যারের মাধ্যমে সকল কাজ বন্টন করা হবে। যদিও এ কাজ জটিল তারপরেও আমরা তা বাস্তবায়ন করব।

তিনি আরও বলেন, আগামী জুলাই মাসে ডিএসইর ওয়েবসাইটের পূর্ণাঙ্গ সংস্কার সম্পন্ন হবে। তখন সাইটটি আরও তথ্যবহুল হবে। একই সঙ্গে বিনিয়োগকারীরা মোবাইলের মাধ্যমে সহজেই ডিএসইর ওয়েবসাইট দেখতে পারেন সে জন্য নতুন মোবাইল এ্যাপস চালু করা হবে। যা সরকারের উদ্যোগে চালু করা হবে। এ জন্য সরকারীভাবে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে মনোনয়ন করা হয়েছে। এছাড়া সত্বরই অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস চালু করা হবে। এ জন্য একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে ডিএসইর চেয়ারম্যান বলেন, গত বছরের ১১ ডিসেম্বর দেশের প্রধান ও প্রাচীনতম পুঁজিবাজার ডিএসইতে বিশ্বের সর্বাধুনিক ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম চালু করা হয়েছে। বিশেষ করে ওয়েবসাইটের গ্রাফ আগে থেকে অনেকবেশি ডায়নামিক হয়েছে। এখান থেকে একজন বিনিয়োগকারী গ্রাফের যে কোন একটি বিন্দুর সঠিক ভ্যালু এবং সময় জানতে পারবে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১৯৯৯ সালের অক্টোবর মাসে ডিএসইতে প্রথম ওয়েবসাইট চালু করা হয়। ২০০০ সাল থেকে ৩০ মিনিট অন্তর তথ্য হালনাগাদ শুরু হয়। ২০০৩ সালের ডিসেম্বরে হালনাগাদের সময় কমে হয় ১৫ মিনিট,। ২০০৫ সালের ২০ আগস্ট থেকে ৩ মিনিট হয়। ২০১৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায় তথ্য দেয়া শুরু হয়।

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫

১৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: