মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ঢাকাকে প্রজন্মের শহর করতে চান মাহী

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীকে প্রজন্মের শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চান উত্তরের মেয়র প্রার্থী মাহী বদরুদ্দোজা চৌধুরী। শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এ অঙ্গীকার করেন।

২০ দলীয় জোটে না থাকলেও আব্দুল আউয়াল মিন্টুর মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার পর বিএনপি থেকে সমর্থন চেয়েছিলেন বিকল্পধারার যুগ্ম-মহাসচিব মাহী। এজন্য আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনও করেছিলন। জাতীয়তাবাদীর ঐক্যের প্রতীকও সাজতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বিধি বাম। বিএনপির পক্ষ থেকে তাকে সমর্থন জানানো হয়নি। শেষ পর্যন্ত উত্তরে ২০ দলের সমর্থন পেলেন মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল। এক সময়ে বিকল্পধারার প্রতিষ্ঠাতা বি চৌধুরী বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ছিলেন। তিনি আবার বিএনপির প্রতিষ্ঠাতাদেরও অন্যতম। তাই ২০০১ সালে জামায়াত-বিএনপি জোট ক্ষমতায় আসার পর বি চৌধুরীকে রাষ্ট্রপতি করা হয়েছিল। এক পর্যায়ে এ পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি। তাকে কি- বি চৌধুরীর বিএনপি প্রীতি কমেনি। বিকল্পধারা হল বিএনপির অন্যতম রাজনৈতিক মিত্র। মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের নিরপেক্ষ থাকার অনুরোধ জানিয়ে মাহী বলেন, আপনাদের প্রতি নিরপেক্ষতার অনুরোধ করব। আপনারা পক্ষপাতিত্ব না করে দায়িত্ব পালন করবেন। এবারের নির্বাচন একটি সুযোগ। দেশকে গড়ার সুযোগ, সুন্দর করার সুযোগ।

প্রতিদ্বন্দ্বীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আনিস ভাই ও তাবিথ আমার শত্রু নয়, তাদের নিয়ে কাজ করতে চাই। আনিস আমার বড় ভাই, তাবিথ আমার বন্ধু ও ছোট ভাই। হতাশার কথা না বলে দেশ গড়ার কাজ করতে চাই। তিনি বলেন, বিকল্পধারার আনুষ্ঠানিক সমর্থন এখনো পাইনি। আশা করি, পাবো। তারা জানতেন না যে, আমি নির্বাচন করব। ঢাকার প্রার্থীদের বেশিরভাগই মধ্যবিত্ত ও স্বাবলম্বী। তারা সচেতন, ভয় দেখিয়ে ভোট নষ্ট করা যাবে না। মাহী বলেন, অনেকে জানতে চেয়েছেন আমি নির্বাচন থেকে সরে আসব কি-না, আমি সরব না। প্রজন্মের শহর গড়ব, প্রজন্মের বিজয় আসবে। ঢাকা উত্তরে ৩৬টি ওয়ার্ড, এগুলোতে দায়িত্ব পালনে সবাইকে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান তিনি। নির্বাচনে ১২ হাজার পোলিং এজেন্ট প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন মাহী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিকল্পধারার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হাফিজুর রহমান জান্টু।

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: