মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আজ পূর্বাঞ্চল-উত্তরাঞ্চল ফাইনাল

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫
  • বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথমবারের মতো ওয়ানডে ফরমেটে আয়োজিত হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগ। লীগের ফাইনাল আজ। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল ও বিসিবি উত্তরাঞ্চল। দুপুর দেড়টায় মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে দিবারাত্রির এ ম্যাচটি শুরু হবে।

ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল শনিবার। কিন্তু বিশ্বকাপ খেলে দেশে ফেরা ক্রিকেটারদের সংবর্ধনা থাকায় ম্যাচটি আজ হবে। যেখানে লীগের দুই সেরা দলই অংশ নেবে। লীগে পয়েন্ট তালিকাতে এ দুটি দলই সবার ওপরে থাকায় ফাইনাল খেলছে। লীগ খেলেছে চারটি দল। পূর্বাঞ্চল, উত্তরাঞ্চল, প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল ও ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল। এ চার দলের মধ্যে মধ্যাঞ্চলকে তো খুঁজেই পাওয়া যায়নি। ফ্রাঞ্চাইজি এ লীগে এবার মধ্যাঞ্চল যেন খেলতেই নামেনি। কোন দলের কাছেই পাত্তা পায়নি। তাই তো মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দলটি একটি ম্যাচেও জিততে পারেনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে সিরিজ শুরু হবে। এ জন্য এ লীগ আয়োজন করা হয়। সিঙ্গেল লীগ পদ্ধতির এ লীগে মধ্যাঞ্চল যাচ্ছেতাই নৈপুণ্যই দেখিয়েছে। মধ্যাঞ্চলের চেয়ে একটু ভাল নৈপুণ্য দেখিয়েছে দক্ষিণাঞ্চল। মাশরাফি বিন মর্তুজার দলটি একটি ম্যাচ জিততে পেরেছে। এক ম্যাচ জিতে কী আর ফাইনালে খেলা যায়। তাই ভরাডুবি হওয়া মধ্যাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চল বিদায় নিয়েছে। ফাইনালে খেলছে সেরা দুই দলই। পূর্বাঞ্চল অবশ্য দুটি ম্যাচ খেলা শেষ হতেই ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে নিয়েছিল। ম্যাচ জয়, পয়েন্ট, মুখোমুখি অবস্থান, রানরেটÑ সব হিসেবেই প্রথম ম্যাচে দক্ষিণাঞ্চলকে ৬ উইকেটে হারানোর পর উত্তরাঞ্চলের বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়ে যেতেই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলা নিশ্চিত করে নেয়। ৩ পয়েন্টেই কাজ হয়ে যায় পূর্বাঞ্চলের। এর পরও শেষ ম্যাচে মধ্যাঞ্চলকে ৯৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েই ৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থেকেই ফাইনালে খেলছে পূর্বাঞ্চল। উত্তরাঞ্চলের অবস্থাও একই রকম। ৫ পয়েন্ট নিয়ে দলটি পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থেকে ফাইনালে খেলছে। তবে প্রথম ম্যাচে মধ্যাঞ্চলকে ২ উইকেটে হারানোর পর পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ার পরই উত্তরাঞ্চলের ফাইনালে খেলা নিশ্চিত হয়নি। এ জন্য লীগ পর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণাঞ্চলের বিপক্ষে জিততেই হতো উত্তরাঞ্চলকে। জয় পেয়েই ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে নেয় উত্তরাঞ্চল। তাও আবার জয়টি আসে বড়। ৮৮ রানের জয় পায় উত্তরাঞ্চল। ফাইনাল ম্যাচের আগেই পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডের জন্য দল ঘোষণা করে দেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তাই ফাইনাল ম্যাচ নিয়ে খুব আকর্ষণ থাকছে না। এর পরও প্রথমবার আয়োজিত ওয়ানডে ফরমেটের এ টুর্নামেন্টে শিরোপা কে জিতবে, সেই দিকে মনোযোগ ঠিকই থাকছে। যদি এ লীগ পাকিস্তানের বিপক্ষে দল গঠনে সহায়ক হতো, তাহলে চরম হতাশই হতে হতো নির্বাচকদের। বিশ্বকাপ খেলে আসা জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা যে আলোড়ন জাগাতে পারেননি। বিশেষ করে ব্যাটসম্যানরা। নাসির হোসেন শুধু ব্যাট (৩ ম্যাচে ৪৫.০০ গড়ে ১৩৫ রান) ও বল হাতে (৩ ম্যাচে ৪ উইকেট) নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবার উপরেও রয়েছে নাসিরের অবস্থান। এ ছাড়া আর কেউই তেমন আলোচনা জাগানোর মতো কিছুই করে দেখাতে পারেননি। উল্টো মাশরাফি বিন মর্তুজা যেন বোলিংয়ের (৩ ম্যাচে ৪ উইকেট) চেয়ে ব্যাটিং (৩ ম্যাচে ১১৯.০০ গড়ে ১১৯ রান) ঝলকই দেখিয়ে দিয়েছেন! আর কারোরই নেই বিশেষ কোন নৈপুণ্য। ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান রুম্মন (৩ ম্যাচে ১০২ রান), মুশফিকুর রহীম (৩ ম্যাচে ৯৮ রান), মাহমুদুল্লাহ (৩ ম্যাচে ৪৬ রান), ইমরুল কায়েস (৩ ম্যাচে ২৪ রান), মুমিনুল হক (২ ম্যাচে ১৪), তামিম ইকবাল (১ ম্যাচে ১০) রান করেন। আর বোলারদের মধ্যে জ্বলেই ছিলেন স্পিনার আরাফাত সানি। ৩ ম্যাচে সর্বোচ্চ ১১ উইকেট নিয়েছেন। রুবেল হোসেনও ৩ ম্যাচে ৯ উইকেট নিয়েছেন। বাকিদের মধ্যে তাইজুল ইসলাম ৩ ম্যাচে ৫ উইকেট, তাসকিন আহমেদ ২ ম্যাচে ৫ উইকেট, মাহমুদুল্লাহ ৩ ম্যাচে ১ উইকেট নিয়েছেন। কসঙ্গে মাঠে নেমে পড়বে।

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: