মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কুড়িগ্রামে বৈশাখী কেনাকাটা জমে উঠেছে

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার,কুড়িগ্রাম ॥ পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে কুড়িগ্রাম জেলার বিভিন্ন মার্কেট এবং বিপণিবিতানে প্রচুর কেনাকাটা চলছে। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে কেনাবেচা। বাজারগুলোতে লক্ষ্য করা যাচ্ছে উপচেপড়া ভিড়। দীর্ঘদিন অবরোধ-হরতালের পর এই বেচাকেনায় খুশি দোকানিরা। শহরের এন আর প্লাজা, কে আই সুপার মার্কেট, হক সুপার মার্কেট, সাগর সুপার মার্কেট, নছর উদ্দিন মার্কেট এবং কলেজ মোড়স্থ ফুটপাথের কাপড়ের দোকানগুলোতে মানুষের ঢল নেমেছে। দোকানে দোকানে একতারা, দোতরা,তবলার ছাপ সংবলিত পাঞ্জাবি, ফতুয়া,সাদা লালপাঁড় তাঁতের শাড়ি, সালোয়ার কামিজ,থ্রীপিছসহ বিভিন্ন পোশাক বিক্রি হচ্ছে। এসব পোশাকের দাম ৫শ’ থেকে তিন-চার হাজার টাকা। তবুও মানুষ কিনছে। শুধু কাপড়ের দোকান নয় কসমেটিকস দোকান গুলোতেও উপচেপড়া ভিড়। রেশমী চুড়ি,ফিতাসহ বিভিন্ন জিনিস কিনছে। চারুলতা ফ্যাশনের কর্ণধার জানান, বৈশাখের কারণে প্রচুর শাড়ি কালেকশন করে ছিলাম। কিন্তু ক্রেতা একদম কম। মানুষের হাতে টাকা নেই। গত বছরের তুলনায় এখনও একভাগ বিক্রি করতে পরিনি। তবে শেষ দুদিনে বিক্রি হতে পারে আশা করছি। এন আর প্লাজার আমিন কালেকশনের মালিক রুহুল আমিন জানান বেচাকেনা হচ্ছে মোটামুটি। বিভিন্ন দোকান এবং শপিংমলে কিছুটা ভিড় কম থাকলেও ফুটপাথের দোকানগুলোর চিত্র একদম ভিন্ন। এখানে শিশুদের পাঞ্জাবি ১শ’ থেকে ২শ’ এবং শাড়ি তিন থেকে পাঁচ শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গ্রাম অঞ্চল থেকে স্বল্প আয়ের মানুষ এসে কেনাকাটা করছে।

শুধু বাজার এবং শপিংমলে নয় মাছের বাজারও বেশ চাঙ্গা। ইলিশ মাছ এক থেকে দেড় হাজার টাকায় প্রতিকেজি বেচাকেনা হচ্ছে। অনেকে দাম বাড়ার আশায় আগাম কিনে রাখছে। মাছ ব্যবসায়ী অতুল জানান, বৈশাখ উপলক্ষে ইলিশের চাহিদা ব্যাপক। আমরাও চড়া দামে আড়ত থেকে মাছ কিনছি এবং চড়া দামে বিক্রি করছি।

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: