আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্যাংকগুলোকে এসএমই বান্ধব হওয়ার আহ্বান গবর্নরের

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অর্থায়ন নিশ্চিত করতে সর্বাধিক নীতি সহায়তা দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক নীতি সহায়তার মাধ্যমে এসএমই খাতে উন্নয়নে ভূমিকা পালন করছে। এ জন্য মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধানে বাংলাদেশ ব্যাংক এসএমই খাতে অর্থায়ন নিশ্চিত করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিকভাবে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পেরেছে। আমাদের এ সাফল্যের অভিজ্ঞতা নেয়ার জন্য প্রতিদিন বিশ্বের অনেক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিনিধিরা আসছেন। শনিবার রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) সভাকক্ষে ‘বাংলাদেশে এসএমই খাতে অর্থায়ন প্রসারে নীতি-নির্ধারক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি দেশে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (এসএমই) প্রসার এবং এই খাতে অর্থায়ন বাড়াতে ব্যাংকারদের আরও ক্ষুদ্র ও নারী উদ্যোক্তাবান্ধব হওয়ার জন্য আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ ব্যাংক ট্রেনিং একাডেমি (বিবিটিএ), বিআইবিএম এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থায়নপুষ্ট শিল্প মন্ত্রণালয়ের ‘বাংলাদেশ ইন্সপায়ারড’ প্রকল্প যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে। বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ ফরহাদ উদ্দিন, বিবিটিএ ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক মোঃ গোলাম মোস্তফা ও বাংলাদেশ ইন্সপায়ারড প্রকল্পের টিম লিডার আলী সাবেত বক্তব্য রাখেন। গবর্নর বলেন, আমরা বড় বড় উদ্যোক্তাদের জন্য অনেক কিছু করে থাকি। আসুন এখন ছোটদের জন্য কিছু করি। দেশে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণকারীরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তায় উন্নীত হচ্ছে। এসব উদ্যোক্তাদের ঋণ দেয়ার পাশাপাশি তারা যেন ঋণের টাকা প্রকৃত অর্থে কাজে লাগাতে পারে এজন্য পরামর্শ দিতে হবে। তিনি বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ অর্থায়ন থেকে সরে এসে উৎপাদনভিত্তিক অর্থায়নে জোর দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রকৃত এবং বঞ্চিত উদ্যোক্তাদের ঋণ সহায়তা প্রদানের চেষ্টা করছি।

গবর্নর আরও বলেন, ব্যাংকের প্রত্যেক শাখা থেকে বছরে অন্তত তিনজন নারী উদ্যোক্তা বাছাই এবং অন্তত একজন নারী উদ্যোক্তাকে ঋণ প্রদান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এর মাধ্যমে দেশে প্রতিবছর হাজার হাজার নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টি হবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে ব্যাংকের অপরিসীম ভূমিকার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে গবর্নর বলেন, ব্যাংকসমূহ উদ্যোক্তাদের জন্য নিয়মিত নতুন নতুন সেবা নিয়ে আসছে। অথচ ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা এসব সেবা সম্পর্কে তেমন কিছু জানে না। এসব সেবা সম্পর্কে তাদের বিস্তারিত তথ্য জানাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করার পরামর্শ দেন তিনি। তিনি জানান, বাংলাদেশ ব্যাংক দ্রুতই ফেসবুক পেজ খুলতে যাচ্ছে। এতে ব্যাংকের নতুন প্রোডাক্টসহ উদ্যোক্তাদের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে। গবর্নর বলেন, নতুন ভ্যাট আইনে উদ্যোক্তাদের টার্ন-ওভার করমুক্ত আয়সীমা বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। নতুন এই আইন পাস হলে উদ্যোক্তাদের আর করের ভারে জর্জরিত হতে হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি দেশে এসএমই শিল্প প্রসারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ অন্যান্য নীতি-নির্ধারকদের সমন্বিত কৌশলগত কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের তাগিদ দেন।

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অর্থ বাণিজ্য



ব্রেকিং নিউজ: