মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইব্রাহিমোভিচের হ্যাটট্রিকে ফাইনালে পিএসজি

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫
  • ফরাসী ক্লাবটির হয়ে ১ গোলের মাইলফলক সুইডিশ তারকার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সুইডিশ সুপারস্টার জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচের দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে ফ্রেঞ্চ কাপের (কাপ ডি ফ্রান্স) ফাইনালে উঠেছে প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইন (পিএসজি)। বুধবার রাতে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পিএসজি ৪-১ গোলে হারায় সেইন্ট-এটিয়েনকে। বিজয়ী দলের হয়ে অপর গোলটি করেন আর্জেন্টাইন ফুটবলার ইজিকুয়েল লাভেজ্জি। আগামী ৩০ মে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল ম্যাচে পিএসজির প্রতিপক্ষ দ্বিতীয় সারির দল অক্সেরে। প্রথম সেমিতে জয় পায় তারা। নিজেদের মাঠ পার্ক ডেস প্রিন্সেসে ডেভিড লুইজ, থিয়াগো মোট্টা ও এডিসন কাভানিকে ছাড়াই খেলতে নামে পিএসজি। তবে জয় পেতে কোন সমস্যাই হয়নি লরেন্ট ব্লাঙ্কের দলের। ম্যাচের ২১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন ইব্রাহিমোভিচ। পিএসজির হয়ে এটি সুইডিশ তারকার ১০০ নম্বর গোল। পরে আরও দুই গোল করে ফরাসী ক্লাবটির হয়ে ইব্রার গোলসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০২। বর্তমানে পিএসজির ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা সাবেক বার্সিলোনা তারকা। ১০৯ গোল করে সবার উপরে আছেন পাউলেটা। পিছিয়ে পড়ার পর সমতা ফেরাতে খুব বেশি সময় নেয়নি এটিয়েন। চার মিনিট পরই ম্যাচে ফেরে তারা। অতিথিদের হয়ে গোলটি করেন রোমানিয়া হামুমা। ১-১ গোলের সমতা নিয়ে বিরতিতে যায় দু’দল। বিরতির পর শুরু থেকেই এটিয়েনের দুর্গে হানা দিতে থাকে পিএসজি। ম্যাচের ৬০ মিনিটে জ্যাভিয়ের পাস্টেরোর পাস থেকে লাভেজ্জি দারুণ গোল করলে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পিএসজি। এরপর পুরো ম্যাচ ইব্রাময় হয়ে থাকে। ম্যাচের ৮১ মিনিটে ব্লাইসি মাটুইডির সহযোগিতায় নিজের দুই নম্বর ও দলের হয়ে তৃতীয় গোল করেন সুইডেন অধিনায়ক। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে (৯২ মিনিট) হ্যাটট্রিক তুলে নেন ইব্রা। শেষ পর্যন্ত বড় জয় নিয়েই ফাইনালে নোঙর ফেলায় পিএসজি।

ম্যাচ শেষে ইব্রাহিমোভিচের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন এটিয়েন কোচ ক্রিস্টোফে গালটিয়ের। তিনি বলেন, এককথায় বলতে হবে, ইব্রা অসাধারণ ফুটবলার। সে এখন ম্যাচজয়ী তারকা। যে কোন মুহূর্তে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে সে। নিজের দলের পারফর্মেন্সে হতাশা জানিয়ে তিনি বলেন, আমি হতাশ আমার ছেলেদের পারফর্মেন্সে। তবে একজনই ম্যাচের গতিপ্রকৃতি পাল্টে দিয়েছে। পিএসজি কোচ লরেন্ট ব্লাঙ্ক বলেন, আমি আমার দল নিয়ে গর্বিত। ছেলেরা নিজেকে উজাড় করে দেয়। এই দলের কোচ হতে পেরে আমি গর্বিত। ইব্রার প্রশংসা করে তিনি বলেন, সে অসাধারণ ফুটবলার। দলের জন্য সব সময় সেরাটা দিতে কার্পণ্য করে না। ডিফেন্ডার ডেভিড লুইজ, মিডফিল্ডার থিয়াগো মোট্টা এবং ফরোয়ার্ড এডিনসন কাভানি ও লুকাস ইনজুরির জন্য ম্যাচটি খেলতে পারেননি। এ নিয়ে অবশ্য বেশ চিন্তিত পিএসজি কোচ।

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫

১০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: