হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
২১ জানুয়ারী ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গাইবান্ধায় নদী ভাঙ্গন রোধে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ নির্মাণ

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ৯ এপ্রিল ॥ ‘ব্রহ্মপুত্র নদ হামার ঘরবাড়ি, জমি জিরাত সব কাড়ি নিয়া হামাক ফকির বানে ফেলাচে। মোর শেষ সম্বল যে ভিটাখান সেখান আর মুই হারাবার চাম না। সে জন্য না খায়া না দায়া বিনা পয়সায় মাটি কাটিয়া নদীর বান্দ দিবার নাগচোম। সরকারের কাছে হামার দাবি নদীর ভাঙন থাকি হামাক বাঁচাও’। নদী ভাঙন রোধে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ নির্মাণের কাজ করতে এসে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এ কথাগুলো বলছিলেন, অব্যাহত নদী ভাঙনে বিপন্ন গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের ষাটোর্ধ বয়সের আবদার হোসেন।

জানা গেছে, ব্রহ্মপুত্র নদের অব্যাহত ভাঙনে বিপন্ন ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়ার চরাঞ্চলের ভাদারপাড়া গ্রামের নদীভাঙন কবলিত এলাকার সর্বস্তরের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্থানীয় প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাঁশ, চাটাই, বালির বস্তা দিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মাণ করছে ৯শ’ মিটার একটি বাঁধ। ৯শ’ মিটার দৈর্ঘ্য ও ২০ মিটার প্রস্থের এ বাঁধটি সফলভাবে নির্মিত হলে ’৭১-এর বধ্যভূমি, গণকবর, ফুলছড়ি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, ফুলছড়ি সিনিয়র আলিম মাদ্রসা, দু’টি মন্দিরসহ শহীদ মিনার, সাবেক উপজেলা পরিষদ ভবন এবং নামাপাড়া, কামারপাড়া, সাঘাটার বরমতাইড় গ্রামের শত শত একর আবাদি জমি ও বসতবাড়ি নদীভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পাবে।

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫

১০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: