কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যশোরে আওয়ামী ও কৃষক লীগের দুই নেতা কর্মীকে নির্যাতন

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরে কৃষক লীগের এক নেতা এবং এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে গুরুতর আহত অবস্থায় বুধবার রাতে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দু’জনেরই হাঁটুতে ক্ষত, ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে।

আহতদের দাবি, আটক করার পর পুলিশ তাদের ব্যাপক নির্যাতনের পর হাঁটুতে রড জাতীয় কিছু ঢুকিয়ে দিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছে। তবে পুলিশ বলছে, গণধোলাইয়ে আহত ওই দু’জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত দু’জন হলেন শহরতলীর হামিদপুর এলাকার আসাদুজ্জামানের ছেলে আফরুজ্জামান আফরু (৪০) ও দায়তলার ওলিয়ার রহমানের ছেলে হাসান (৩৮)। আসাদুজ্জামান যশোর জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের আহ্বায়ক বলে নিজের পরিচয় দেন। হাসান আওয়ামী লীগ কর্মী এবং ব্যবসায়ী। আহত হাসান বলেন, ‘বুধবার সকাল ছয়টার দিকে কোতোয়ালি থানার এসআই জামাল উদ্দিন আমাকে বাড়ি থেকে ডেকে থানায় আনেন। পরে আমাকে ডিবির হেফাজতে দেয়া হয়। ডিবি অফিসে আমাকে ইলেকট্রিক শক দেয়া হয়। আর জানতে চাওয়া হয়, মঙ্গলবার গুলিতে নিহত কেন্দ্রীয় বাস্তুহারা লীগের সহ-সভাপতি মঞ্জুর রশিদের খুনী কারা? আমি কোন স্বীকারোক্তি না দেয়ায় রাতে চোখ বেঁধে আমার বা পায়ের হাঁটুতে রড জাতীয় ধারালো কিছু ঢুকিয়ে দিয়ে পা ভেঙ্গে দেয়া হয়। রক্তক্ষরণ শুরু হলে পুলিশ প্রহরায় আমাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

আফরুজ্জামান আফরুও পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনের একই বর্ণনা দেন। তিনি জানান, চাঁদপাড়া ফাঁড়ির পুলিশ কনস্টেবল বখতিয়ার বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে তাকে আটক করে ডিবি হেফাজতে দেয়। সেখানে ব্যাপক নির্যাতনের একপর্যায়ে তার পায়ের বাম হাঁটুতে রড জাতীয় কিছু একটা ঢুকিয়ে পা ভেঙ্গে দেয়া হয়। তবে হাসপাতালে অবস্থানরত কোতোয়ালী থানার এসআই তৌহিদুল ইসলাম আহত দু’জনের দাবি অস্বীকার করেন। তিনি বলেছেন, ‘ওই দুই ব্যক্তি এলাকাবাসীর মারপিটে গুরুতর আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।’

প্রকাশিত : ১০ এপ্রিল ২০১৫

১০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: