হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কার্যক্রম ৪ মে পর্যন্ত মুলতবি ॥ পুরনো মামলায় আদালতে হাজিরা দিলেন নাছির

প্রকাশিত : ৭ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ ছাত্রলীগের এক নেতাকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ সংক্রান্ত ২২ বছর আগের মামলায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিনসহ ৭ জন আদালতে হাজিরা দিয়েছেন। চট্টগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ মোঃ নুরুল হুদার আদালতে সোমবার তারা উপস্থিত হন। এ সময় তাদের জেরা করেন বাদী পক্ষের কৌঁসুলিরা। বিচারক আসামিদের জামিন বহাল রেখে আগামী ৪ মে পর্যন্ত এই মামলার কার্যক্রম মূলতবি ঘোষণা করেন।

চট্টগ্রাম জেলা পিপি এডভোকেট আবুল হাশেম সাংবাদিকদের জানান, সোমবার বিচারিক আদালতে উপস্থিত হন সরকার দলীয় সংসদ সদস্য নিজাম হাজারি, আওয়ামী লীগ নেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন ও সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মাহমুদ হাসনীসহ ৭ জন। আদালতের পূর্ব ঘোষিত নির্দেশনা অনুযায়ী বাদী পক্ষের কৌঁসুলিরা আসামিদের জেরাও করেন। এরপর বিচারক মামলাটির কার্যক্রম আগামী ৪ মে পর্যন্ত মূলতবি করেন। তবে তিনি আসামিদের জামিনও বহাল রাখেন। উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামের লালদীঘি মাঠে শেখ হাসিনার জনসভায় আক্রান্ত হন তৎকালীন ছাত্রলীগ নেতা আবু সুফিয়ান। ছাত্রলীগেরই একটি অংশের কর্মীরা তার ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে ছাত্রলীগ নেতা আবু সুফিয়ান সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আ জ ম নাছিরসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় মোট ১২ সাক্ষীর মধ্যে ৮ জনের সাক্ষ্যও গৃহীত হয়। এরপর আ জ ম নাছির উদ্দিন ১৯৯৪ সালে উচ্চ আদালতে রিভিশন মামলা দায়ের করেন। এ প্রেক্ষিতে মামলাটির বিচার কাজ স্থগিত ঘোষিত হয়। ২০১৪ সালের ৯ মার্চ বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকীর সমন্বয়ে গড়া বেঞ্চ এক আদেশে মামলার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে মামলাটি নিষ্পত্তির আদেশ দেন। ফলে এর বিচার কাজ পরিচালনায় বাধা অপসারিত হয়। চট্টগ্রাম আদালতে এই আদেশ আসে গত ৩ মার্চ। ফলে বিচার কাজ পুনরায় শুরু হয়। আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন গত ১ এপ্রিল আদালতে উপস্থিত হয়ে ২২ বছর আগের এই মামলায় জামিন নেন।

প্রকাশিত : ৭ এপ্রিল ২০১৫

০৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: