মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিল্পকলায় দশ দিনের গান মেলা শুরু বৃহস্পতিবার

প্রকাশিত : ৭ এপ্রিল ২০১৫
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পাইরেসির আগ্রাসনসহ প্রযুক্তিগত নানা জটিলতায় মৃতপ্রায় দেশের অডিও মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি। আর এই বিপন্ন সঙ্গীতশিল্পকে পুনরুজ্জীবনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শিল্পকলা একাডেমির উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে শুরু হচ্ছে এমআইবি গানমেলা। ওই দিন বিকেল ৪টায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু দশ দিনব্যাপী মেলার উদ্বোধন করবেন। ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত চলমান মেলায় প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে ৬টা পর্যন্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। অডিও শিল্পকে বাঁচাতে ভবিষ্যত প্রযুক্তির ব্যবহার ও সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়গুলো উঠে আসবে আলোচনায়। সেই সঙ্গে আলোচিত হবে স্বাধীনতা সংগ্রামে বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে গানের ভূমিকা, এ দেশের গানের গৌরবোজ্জ্বল চার দশক, অনলাইন গানের বাজারে ভবিষ্যত এবং লোকসঙ্গীত, আধুনিক গান, সিনেমার ও ব্যান্ডসঙ্গীতের উৎপত্তি, বিবর্তন ও ভবিষ্যৎসহ নানা বিষয়। আলোচনা হবে পাইরেসির ধরন ও প্রতিরোধের আইন নিয়ে। আলোচনা শেষে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে ৭টা পর্যন্ত দেশের সকল প্রান্তের শিল্পীদের নতুন এ্যালবামের মোড়ক করা হবে। আর গানমেলার বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে প্রতি সন্ধ্যা সাতটার পর অনুষ্ঠিত হবে জনপ্রিয় শিল্পীদের সঙ্গীত পরিবেশনা। সঙ্গীত নিয়ে বৃহৎ পরিসরের এ মেলার আয়োজন করছে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিজ অনার্স এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (এমআইবি)।

সোমবার এমআইবি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গান মেলার বিস্তারিত কর্মসূচী তুলে ধরা হয়। রাজধানীর একটি রেস্তরাঁয় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনটি শিল্পী, সুরকার, গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালক ও প্রযোজকদের উপস্থিতিতে সঙ্গীত ভুবনের মিলনমেলায় পরিণত হয়। মেলার কর্মসূচী সংক্রান্ত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সভাপতি হাসান মহিউর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এমআইবির মহাসচিব সাঈদ আলম পাপ্পু। সংগঠনের সভাপতি এ কে এম আরিফুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন সুরকার শেখ সাদী খান, মেলার সমন্বয়ক সাজেদ ফাতেমী, খ্যাতিমান নজরুল সঙ্গীতশিল্পী ফাতেমা-তুজ-জোহরা, সঙ্গীত পরিচালক ইবরার টিপু যন্ত্রসঙ্গীতশিল্পী দেবব্রত চৌধুরী, কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর, বিপ্লব, পুতুল, মুহিন প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদ ও জানে আলম।

সঙ্গীতশিল্পের চলমান সঙ্কট উত্তরণে গানমেলার তাৎপর্য উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, এ মেলার মাধ্যমে পুনরুজ্জীবিত হবে অডিও ইন্ডাস্ট্রি। মৃতপ্রায় শিল্পটি আবার ঘুরে দাঁড়াবে। পাইরেসি ঠেকাতে নেয়া হবে কার্যকর পদক্ষেপ। সব মিলিয়ে সারা দেশের শিল্পী ও কলাকুশলীদের অংশগ্রহণে সঙ্গীতে নতুন দিগন্তের সূচনা করবে এই মেলা। এ আয়োজনের মাধ্যমে প্রযোজক, প্রকাশক, শিল্পী-কলাকুশলীসহ সংশ্লিষ্ট সবার সম্মিলিত উদ্যোগে দেশের সঙ্গীতাঙ্গনের হারানো সোনালি দিন ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে। এক্ষেত্রে কার্যক্রম পদক্ষেপ গ্রহণে সকলের সঙ্গে পরামর্শ, মতবিনিময় ও সিরিজ আলোচনা চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর এমআইবি।

বৈশাখ উদ্যাপনে সেলিব্রেটি দম্পতি আলোচনা ॥ পহেলা বৈশাখ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত ১০ দিনের অনুষ্ঠানমালা অংশ হিসেবে সোমবার ধানম-ির রাপা প্লাজায় জয়িতার নিজস্ব ফ্লোরে আয়োজন করা হয় ভিন্নধর্মী আলোচনা অনুষ্ঠান ‘আমার পরিবার, আমার ফুলবাগান।’ এতে অংশ নেন বেশ কয়েকজন সেলিব্রেটি দম্পতি। তাদের অংশগ্রহণে উš§ুক্ত আলোচনায় উঠে আসে নিজ পরিবারের সফলতা-ব্যর্থতা, আনন্দ-বেদনা ও সুখ-দুঃখের গল্প। ব্যতিক্রমী এই আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। জয়িতা ফাউন্ডেশন মহিলা ও স্বর্ণÑকিশোরী ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন সৈয়দ আনোয়ার হোসেন-মিসেস আনোয়ার হোসেন (অধ্যাপক দম্পতি), কিরণ চন্দ্র রায় ও চন্দনা মজুমদার (সঙ্গীতশিল্পী দম্পতি) এবং ফয়েজুর রহমান চৌধুরী-নাসিমা বেগম (সচিব দম্পতি)। সংসার জীবন থেকে শুরু কর্মময় জীবনের অজানা কথাগুলো তুলে ধরেন মজার মজার হাস্যরসের মধ্য দিয়ে। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন স্বর্ণ-কিশোরী ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন ফারজানা ব্রাউনিয়া।

মঞ্চস্থ মহাবিদ্রোহ ও সম্রাট বাহাদুর শাহ ॥ মুঘল রাজত্বের শেষ সম্রাট বাহাদুর শাহ্ জাফর। বিদ্রোহের কারণে ইংরেজরা তাঁকে বন্দী করে নিয়ে যায় রেঙ্গুনে (বর্তমান মিয়ানমার)। নির্বাসিত জীবন মৃত্যুর পর সেখানেই তাঁকে সমাহিত করা হয়। আর তাঁর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে পতন হয় মুঘল শাসনের। এই ঐতিহাসিক ঘটনাকে উপজীব্য করে নাট্যদল নান্দনিক মঞ্চে এনেছে নতুন নাটক মহাবিদ্রোহ ও সম্রাট বাহাদুর শাহ। রহমান চৌধুরীর রচনা থেকে নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন গোলাম সারোয়ার ও আ. মা. ম. হাসানুজ্জামান। সোমবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে প্রযোজনাটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়।

প্রকাশিত : ৭ এপ্রিল ২০১৫

০৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: