আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিসিবি-সাহারা চুক্তি বাতিল

প্রকাশিত : ৫ এপ্রিল ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চার বছরের চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে এখনও ১৫ মাস বাকি। অথচ এর আগেই বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর সাহারার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের জার্সিতে আর ‘সাহারা’ লেখা থাকছে না। ভারতীয় পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান সাহারা গ্রুপের সঙ্গে এর আগে ভারতের ক্রিকেট বোর্ডও চুক্তি বাতিল করেছিল। এবার করল বিসিবিও। ২০১২ সালের জুনে ১ কোটি ৪০ লাখ ডলারের বিনিময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সঙ্গে চার বছরের জন্য যুক্ত হয় সাহারা। চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে ১৫ মাস বাকি ছিল। এর আগেই সাহারাকে বিদায় করে দিয়েছে বিসিবি। আসন্ন বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজে জাতীয় দলের পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের জন্য গত ৩০ মার্চ জাতীয় একটি ইংরেজী দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপনও দেয় বিসিবি। সাহারার সঙ্গে চুক্তি শেষের বিষয়টি তখনই প্রকাশ্যে আসে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নিজামউদ্দিন চৌধুরী সাহারাকে ‘না’ বলে দেয়ার বিষয়ে বিস্তারিত কিছু না জানালেও ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে বলেন, ‘সাহারার সঙ্গে চুক্তি না চালিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। এ কারণে আমরা পাকিস্তান সিরিজের জন্য নতুন স্পন্সর চেয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছি।’ ভারতে গত বছর থেকেই আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত আছে সাহারা গ্রুপ। সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে গ্রুপের কর্ণধার সুব্রত রায়কে কারাগারেও যেতে হয়েছে। দুর্নীতির কারণে এমনিতেই ভারতে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে সাহারা ইন্ডিয়া পরিবার। দুর্নীতিগ্রস্ত কোম্পানিটিকে খোদ ভারতই বিদায় করে দিয়েছে কিছুদিন আগে। এরপর থেকেই আলোচনা-সমালোচনা চলতে থাকে। বিসিবিও কী সাহারার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করবে? সেই প্রশ্নও ওঠে। অবশেষে সাহারাকে বিদায়ই করে দিল বিসিবি। সাহারার সঙ্গে চুক্তি বাতিলের কথা স্বীকার করলেও তবে আর্থিক বিষয়ে কোন পর্যায়ে সমাধান হয়েছে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এরই মধ্যে নতুন টিম স্পন্সরও খোঁজা শুরু করে দিয়েছে বিসিবি। নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনই যেমন বলেন, ‘পাকিস্তান সিরিজ থেকেই নতুন স্পন্সর পেতে চাই আমরা।’ সাহারা পরিবারকে সরিয়ে এবার দেশীয় কোম্পানির দিকেই দৃষ্টি দিচ্ছে বিসিবি। আপাতত ‘সিরিজ বাই সিরিজ’ স্পন্সরের কথাই ভাবছে। দেশীয় যে কয়েকটি কোম্পানির সঙ্গে এরই মধ্যে কথা হচ্ছে বিসিবির এর মধ্যে ওয়ালটন নাকি দৌড়ে এগিয়েই রয়েছে। তবে সব আলোচনাই চলছে মৌখিক। ওয়ালটনের এক শীর্ষ কর্মকর্তাই যেমন বিষয়টি জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘চূড়ান্ত কিছুই নয়। প্রস্তাবটি মৌখিক পর্যায়েই রয়েছে। নিজেদের উর্ধতন পর্যায়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনাও হয়নি। আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পেলে ওয়ালটনও বিষয়টি ভেবে দেখতে পারে।’

প্রকাশিত : ৫ এপ্রিল ২০১৫

০৫/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: