মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতিই মূল লক্ষ্য

প্রকাশিত : ৫ এপ্রিল ২০১৫
পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতিই মূল লক্ষ্য
  • বিসিএল শুরু আজ
  • মধ্যাঞ্চলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ
  • উত্তরাঞ্চলের নাসির হোসেন
  • দক্ষিণাঞ্চলের মাশরাফি
  • পূর্বাঞ্চলের মুমিনুল হক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগ (বিসিএল) ওয়ানডে ভার্সন শুরু হচ্ছে আজ। এ টুর্নামেন্টে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অবশ্য লক্ষ্য একটাই, পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতি নেয়া। সেই প্রস্তুতি নেয়ার মিশন আজই শুরু করে দিচ্ছে মাশরাফিরা।

সিঙ্গেল লীগ পদ্ধতিতে হবে টুর্নামেন্ট। চার দলের টুর্নামেন্ট। খেলবে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল, প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল, ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল ও বিসিবি উত্তরাঞ্চল। প্রতিটি দল পরস্পরের বিপক্ষে একটি করে ম্যাচ খেলবে। লীগ পর্বের লড়াই শেষে যে দুটি দল পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকবে, তারাই ১১ এপ্রিল ফাইনালে মুখোমুখি হবে। প্রতিটি ম্যাচ শুরু হবে দুপুর দেড়টায়। দিবারাত্রির ম্যাচ হবে। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম ও ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে হবে খেলাগুলো। আজ চারটি দলই খেলতে নামছে। মিরপুরে দক্ষিণাঞ্চল-পূর্বাঞ্চল ও ফতুল্লায় উত্তরাঞ্চল-মধ্যাঞ্চল মুখোমুখি হবে। এর মধ্য দিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে নামার আগে প্রস্তুতি পর্বও শুরু হয়ে যাচ্ছে। মধ্যাঞ্চলের নেতৃত্বে থাকছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। উত্তরাঞ্চলের অধিনায়ক এর আগে মুশফিকুর রহীম থাকলেও এবার নাসির হোসেন নেতৃত্ব দেবেন। মুশফিক শুধু একজন ক্রিকেটার হিসেবেই খেলতে চান। সঙ্গে নেতৃত্ব থেকে একটু বিশ্রামও চান। তাই নাসিরকে অধিনায়ক করা হয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলের নেতৃত্বে থাকছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। আর পূর্বাঞ্চলের অধিনায়ক হচ্ছেন মুমিনুল হক।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজকে সামনে রেখেই মূলত এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করে টুর্নামেন্ট কমিটি। টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান আগেই বলেছিলেন, ‘পাকিস্তান আসছে। এর আগে একটি ওয়ানডে টুর্নামেন্ট করতে চাই। যেন ক্রিকেটাররা ম্যাচের মধ্যে থেকেই সিরিজ খেলতে নামতে পারে।’ পাকিস্তানের বিপক্ষে আবার ওয়ানডে দিয়েই সিরিজ শুরু হবে। এর আগে বিসিএল ওয়ানডে টুর্নামেন্টটি ভালই কাজে দেবে।

শনিবার এ টুর্নামেন্ট নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনেরও আয়োজন করা হয়। বিসিএলের লোগো উন্মোচন করা হয়। চার দলের চার অধিনায়ক টুর্নামেন্ট নিয়ে নিজের পরিকল্পনার কথা জানান। তবে সবার পরিকল্পনাতেই আসে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রস্তুতি ভালভাবে সেরে নেয়া। দক্ষিণাঞ্চলের অধিনায়ক মাশরাফিই বললেন, ‘আমার মনে হয় এটা ভাল হয়েছে। সবাই দুই মাস বাইরে থেকে এসেছে। সবাই পরিবারের সঙ্গে থেকেছে। বিশ্রাম শেষ করে আমার মনে হয় এখন মাঠে ফেরার সময় ক্রিকেটারদের। আমরা দুই মাস ওখানে (অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে) ভিন্ন কন্ডিশনে খেলেছি। এর আগে তিন-চার মাস ওই কন্ডিশনের কথা চিন্তা করে অনুশীলন করেছি। মানসিক চিন্তা ছিল যে ওই উইকেটে কিভাবে বোলিং ও ব্যাটিং করতে হবে। এখন আবার হোম সিরিজে যাচ্ছি। আমার মনে হয় এর আগে এই ধরনের টুর্নামেন্ট কাজে লাগবে। বিশ্রাম সবাই প্রায় দশ দিন নিয়েছে। হয়ত আরেকটু নিলে ভাল হতো। কিন্তু পাকিস্তান সিরিজ তো সামনে চলে এসেছে। সবাইকে এমনিতেও চলে আসতে হত। আমাদের পাকিস্তান সিরিজে প্রস্তুতি নেয়ার জন্য হলেও মাঠে ফিরতে হতো। আমি সেই জায়গা থেকে বলেছি যে উদ্যোগটা খুবই ভাল। দুই মাস ক্রিকেটাররা অনেক পরিশ্রম করেছে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে ভ্রমণ করেছে। সেই জায়গা থেকে বলব, পাকিস্তান সিরিজ তো আগে থেকেই ঠিক করা। আমাদের এখন এ্যাডজাস্ট করতে হবে। আমি নিজে শেষ তিন-চারদিন অনুশীলন করেছি। সবাই এসেছে। সবাই ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন শুরু করেছে। বিশ্রাম থেকে মাঠে সরাসরি আসা খুব কঠিন। সবাই তিন-চার দিন আগের থেকে প্রস্তুতি নেয়া শুরু করেছে যেন আবার ম্যাচের জন্য নিজেদের ঠিক করা যায়।’

মধ্যাঞ্চলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ বলেছেন, ‘এটা আমার সবার জন্য ভাল একটা সুযোগ। প্রস্তুতিমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক টুর্নামেন্ট হবে একটি। খুব ভাল একটা টুর্নামেন্ট এবং পাকিস্তান সিরিজের আগে ভাল একটা টুর্নামেন্ট হবে। এ রকম ক্রিকেটার অনেকেই আছে যারা গত কয়েক বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করছে। আগেই যেটা বললাম, এটা সবার জন্য ভাল একটা সুযোগ। সিলেকশনের বিষয়টা ম্যানেজমেন্ট ভাল বলতে পারবে। আর সবার জন্য শুভ কামনা।’ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পাকিস্তান সিরিজের প্রস্তুতি টুর্নামেন্ট বলার সঙ্গে অন্য ক্রিকেটারদের ভাল খেলে জাতীয় দলে জায়গা করে নেয়ার সম্ভাবনার কথাও বললেন মাহমুদুল্লাহ। পূর্বাঞ্চলের অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেছেন, ‘বিশ্বকাপে সুবিধা করতে না পারলেও এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ সৃষ্টি হবে।’ উত্তরাঞ্চলের অধিনায়ক নাসির হোসেন মনে করেন, ‘আমাদের দলটা ভাল। মুশফিক ভাইয়ের মতো সিনিয়র ক্রিকেটার আছে। মাঠে আমার প্রয়োজন হলে অবশ্যই আমি মুশফিক ভাইয়ের সাহায্য নেব। এ টুর্নামেন্ট সামনের সিরিজের জন্য ভালই কাজে দেবে।’

প্রকাশিত : ৫ এপ্রিল ২০১৫

০৫/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: