মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা ॥ ইট বেঁধে ডোবায় নিক্ষেপ

প্রকাশিত : ৪ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ ফকিরহাটের পিলজঙ্গ ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা গ্রাম থেকে শুক্রবার বিকেলে রোকসনা পারভিন (২৮) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্বামীর বাড়ির পার্শ্বে একটি ডোবা থেকে উদ্ধারকৃত লাশটি ইট বেঁধে ডুবিয়ে রাখা হয়েছিল। যৌতুক না পেয়ে স্বামী-শাশুড়ী-দেবর যোগসাজশে গত বুধবার পিটিয়ে হত্যার পর লাশটি ওই ডোবায় ফেলে ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এ অভিযোগে পুলিশ নিহত গৃহবধূর শাশুড়ীকে আটক করেছে। তবে তার স্বামী ও দেবর পালিয়ে গেছে। নিহত রোকসানার শুভা (৮) ও ইভা (৩) নামের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের আত্মীয়স্বজনরা জানান, উপজেলার নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নের কামটা গ্রামের আব্দুল জব্বার শেখের মেয়ে রোকসানা পারভিনের প্রায় ১৩ বছর আগে বালিয়াডাঙ্গা এলাকার মল্লিক মুজিবুর রহমানের ছেলে আরিফ মল্লিকের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে উভয় পরিবারের মধ্যে যৌতুকসহ পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে কয়েকদফা শালিশ বৈঠক করেও বিষয়টি মীমাংসা করা সম্ভব হয়নি। তবে গত মাসে যৌতুক হিসেবে আরিফকে নগদ ২০ হাজার টাকা দেয় রোকসানার দরিদ্র পরিবার। এদিকে প্রত্যাশিত টাকা না পাওয়ায় রোকসানার স্বামীর বাড়ির লোকজন তাঁর ওপর আরও ক্ষিপ্ত হয়। ঘটনার দিন সন্ধ্যা হতে রোকসানাকে খোঁজ করে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর বড় ভাই মিজানুর রহমান বৃহস্পতিবার সকালে রোকসানার স্বামীসহ ৩/৪ জনের নাম উল্লেখ করে মডেল থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেন। এদিকে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে শুক্রবার স্থানীয় লোকজন রোকসানার লাশ স্বামীর বাড়ির পার্শ্বে একটি ডোবা হতে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে মডেল থানার অফিসার ইনচাজ মোঃ আসিসুর রহমান লাশটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেন।

প্রকাশিত : ৪ এপ্রিল ২০১৫

০৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: