কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সিটি নির্বাচনে বাধা এলে প্রতিহত করা হবে ॥ এমাজউদ্দীন

প্রকাশিত : ৪ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সরকারী দলের পক্ষ থেকে কোন প্রকার বাধা এলে কিংবা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হলে তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিহত করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও বিএনপিপন্থী শত নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর এমাজউদ্দীন আহমেদ। শুক্রবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে জিয়া কল্যাণ পরিষদ আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এখনও সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরি হয়নি অভিযোগ করে তিনি বলেন, তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে গুলশান কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এখনও তালা ঝুলছে।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে অপর এক অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন দলের নেতাকর্মীকে উদ্দেশ করে বলেছেন, পুলিশের ভয়ে মাঠে নামতে না পারলে পদত্যাগ করুন।

বিএনপি জোটের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ করে এমাজউদ্দীন বলেন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সরকারবিরোধী আন্দোলনের অংশ হিসেবেই দেখতে হবে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে তিন সিটি কর্পোরেশনকে নিজের দখলে আনতে হবে। বিজয় নিশ্চিত করতে না পারলে সামনে আরও ভুগতে হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যাতে কোন এলাকায় কোন প্রার্থীকে বাধা না দেয় সেদিকে সবাইকে খেয়াল রাখতে হবে। তবে গণতন্ত্রের পক্ষের প্রার্থীদের পক্ষে শত নাগরিক কমিটির লোকেরা ঢাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে যাবে। শুধু শত নাগরিক কমিটির মধ্যে সীমাবদ্ধ না থেকে সমাজের গণতন্ত্রকামী সব পক্ষকে এর সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে হবে। চট্টগ্রামে ৫০১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি হয়েছে, ঢাকায় প্রয়োজনে এক হাজার এক সদস্যবিশিষ্ট কমিটি করতে হবে।

এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেন, এক চরম দুঃসময়েও খালেদা জিয়া সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশ নেয়ার পক্ষে সায় দিয়েছেন। এ নির্বাচনে বিজয় ছিনিয়ে এনে আন্দোলন জোরদার করতে হবে। আর এ নির্বাচনে কোথাও কোন অন্যায় হলে তা সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে। তরুণদের এক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সংসদে দেয়া বক্তব্যে বলেছেন, সমতল বিষয়টি বুঝতে পারছেন না। তার বক্তব্যের উত্তরে বলব, একজন ভোটার যখন নিজের ইচ্ছামতো নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন, একজন প্রার্থী যখন নির্বিঘেœ ভোটারদের কাছে যেতে পারবেন, সভা-সমাবেশ করতে পারবেন সেটাই হবে নির্বাচনের সমতল মাঠ।

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক রাহিজা খানম ঝুনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন এ্যাডভোকেট আবেদ রাজা, আয়োজক সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম বাবু।

পুলিশের ভয়ে মাঠে নামতে না পারলে পদত্যাগ করুন- মাহবুব হোসেন ॥ বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ করে দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন Ñসরকার ও পুলিশের ভয়ে মাঠে নামতে না পারলে পদত্যাগ করুন । মাঠে নামতে না পারলে দল ছাড়ুন। দেশের মহাসঙ্কটকালে আপনারা ঘুমিয়ে থাকবেন, আরাম করবেন অথচ পদ রাখবেন এটা হবে না। শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট এ্যাসোসিয়েশন্স(এমট্যাব) আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মতো সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রহসন হলে ঢাকাবাসী ও পেশাজীবী পরিষদকে সঙ্গে নিয়ে কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে। আর এর পরিণাম হবে ভয়াবহ । তিনি বলেন, যখন বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের আন্দোলন তুঙ্গে তখন এ সরকার জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি ভিন্ন দিকে নিতে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন দিয়ে শেষ খেলাটি খেলছে। দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব ছেড়ে সরকারকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখার জন্য সব রকম প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের গণমাধ্যমগুলো সরকারের নিয়ন্ত্রিত অভিযোগ করে তিনি বলেন, সরকার গণতন্ত্রের লেবাস পরে বিরোধী দলের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে। তা যদি গণমাধ্যমগুলো সঠিকভাবে তুলে ধরতে পারত, তাহলে এ সরকারের নির্যাতন সম্পর্কে বিশ্ববাসী জানত।

আয়োজক সংগঠনের মহাসচিব বিপ্লবউজ্জামানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ডাঃ এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট সানাউল্লহা মিয়া, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, ড্যাবের যুগ্ম মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ।

প্রকাশিত : ৪ এপ্রিল ২০১৫

০৪/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: