আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সিটি নির্বাচনে দল সমর্থিত প্রার্থীকে জয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করুন

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫, ০১:০৩ এ. এম.
  • সংসদীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

সংসদ রিপোর্টার ॥ বিএনপি-জামায়াত জোটের সন্ত্রাস-নাশকতা ও ধ্বংসাত্মক কর্মকা-ের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে জনমত সৃষ্টির জন্য দলীয় সংসদ সদস্যদের নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। একইসঙ্গে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সবাইকে জনমত সৃষ্টি করে তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দল সমর্থিত মেয়র ও কাউন্সিলরকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করারও নির্দেশ দেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাতে জাতীয় সংসদ ভবনের নবম তলায় সরকারী দলের সভাকক্ষে আওয়ামী লীগ সংসদীয় দলের জরুরী বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এমন নির্দেশ দিয়েছেন বলে বৈঠকসূত্রে জানা গেছে। সংসদ সদস্যদের নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে সংগঠনকে শক্তিশালী এবং জনসম্পৃক্ততা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, মানুষের আস্থা অর্জনে এলাকার জনগণের পাশে থাকতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সিনিয়র সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ড. আবদুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব) ফারুক খান, হুইপ আতিউর রহমান আতিক, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বক্তব্য রাখেন। নেতাদের পুরো বক্তব্যেই ছিল আসন্ন তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে।

সূত্র জানায়, বৈঠকে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট যে আন্দোলনের নামে সহিংসতা-নাশকতা-মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করছে, এসব বিষয় নির্বাচনী প্রচারে জনগণের সামনে তুলে ধরতে হবে; যাতে ভোটাররা সচেতন হয়ে সন্ত্রাসী-নাশকতাকারী ও খুনীদের ‘না’ বলে আমাদের পক্ষে অর্থাৎ শান্তি ও গণতন্ত্রের পক্ষে ভোট দেয়।

ঢাকা উত্তরে ফারুক খান এবং দক্ষিণে ড. আবদুর রাজ্জাক নির্বাচন পরিচালনায় সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবেন। আর ঢাকা মহানগরীর ১৫টি নির্বাচনী এলাকায় ভোটকেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন করা হবে। সংসদ সদস্যরা এসব টিমে বিভক্ত হয়ে প্রচার চালাবেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকে তোফায়েল আহমেদ বলেন, তিন সিটি কর্পোরেশন এলাকায় যে যে জেলার আঞ্চলিক জনসংখ্যা বেশি, ওই এলাকার সংসদ সদস্যদের সেখানে কাজ করতে হবে। নিজের এলাকার লোকদের সংগঠিত করে দলের প্রার্থীর পক্ষে ভোট আনতে হবে।

সৈয়দ আশরাফ বলেন, এটা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শান্তির পক্ষে আমাদের ভোটযুদ্ধ। তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিতে হবে। তাই এমপি-নেতাদের ঘরে বসে থাকলে চলবে না।

একাধিক প্রার্থিতা প্রসঙ্গে শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, একেকটি ওয়ার্ডে ৮/১০ জন করে আমাদের দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী। সেক্ষেত্রে একক প্রার্থী চূড়ান্ত করা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত একক প্রার্থী নিশ্চিত করা সম্ভব হতে পারে।

ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস বলেন, ঢাকা উত্তরের চাইতে দক্ষিণে দলের মেয়র প্রার্থীকে বিজয়ী করতে বেশি পরিশ্রম করতে হবে।

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫, ০১:০৩ এ. এম.

০৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: