আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অনিয়ম আর ফাঁকিবাজিতে দক্ষ বীমা খাত

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫
  • আইডিআরএ’র কার্যালয় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের বীমাখাত অনিয়ম আর ফাঁকিবাজিতে খুবই দক্ষ বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। আইডিআরএ’র কার্যালয় উদ্বোধন উপলক্ষে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি দুর্নীতিবাজ না বলে বলব ফাঁকিবাজি। বীমাখাত অনিয়ম আর ফাঁকিবাজিতে খুবই দক্ষ। এটাকে উল্টাভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। এই ফাঁকিবাজি যাতে না হয়, সেজন্যই আইডিআরএ’র জন্ম হয়েছে।

মুহিত বলেন, আইডিআরএ বেশ ভাল কাজ করেছে। ইতোমধ্যে তারা ১৩টি প্রবিধান পাস করেছে। আইডিআরএ এখন ভাল অবস্থানে আছে। তবে এর জনবলের কিছুটা সমস্যা রয়েছে। শিগগির এ সমস্যার সমাধান হবে। এটিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব বীমা কোম্পানিগুলোর। বীমাখাতে দক্ষ জনবলের অভাব রয়েছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন আমাদের দু’টি কাজ করা জরুরী। একটি হচ্ছে দক্ষ জনবল সৃষ্টি করা। আরেকটি হলো, এ দক্ষ জনবল সৃষ্টি করতে ইন্স্যুরেন্স একাডেমিকে শক্তিশালী করা।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব এম আসলাম আলম বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার দিক থেকে বীমাখাত এখনও অনেক পিছিয়ে আছে। বীমাখাতকে এগিয়ে নেয়ার জন্য বেশকিছু নীতিমালা করা হচ্ছে। কিন্তু বিভিন্নভাবে তা আটকে যাচ্ছে।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের নাম পরিবর্তন করে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ করারও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে বিষয়টা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে অর্থমন্ত্রীকে জানানো হয়নি বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের নাম পরিবর্তন করে ‘আর্থিক প্রতিষ্ঠান’ বিভাগ করার উদ্যোগ নিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

সচিব বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের নাম পরিবর্তনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। তবে এর সঙ্গে বিমার নাম যুক্ত করা হচ্ছে না। আগের নাম থেকে ব্যাংক বাদ দিয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে কাজ চলছে। তবে নাম পরিবর্তনের বিষয়টি এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে অর্থমন্ত্রীকে জানানো হয়নি। মন্ত্রিপরিষদ সভায় উপস্থাপনের আগে মন্ত্রীকে সার্বিক বিষয় জানানো হবে। সচিব আরও বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার দিক থেকে বীমা খাত এখনো অনেক পিছিয়ে। বীমা খাতকে এগিয়ে নেয়ার জন্য বেশকিছু নীতিমালা করা হচ্ছে। কিন্তু বিভিন্নভাবে তা আটকে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বীমাখাতের ধারণা তুলে ধরেন আইডিআরএ’র সদস্য কুদ্দুস খান। তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে এক হাজার মানুষের মধ্যে চারজন বীমার আওতায় আছে। জিডিপিতে বিমার অবদান এক শতাংশের উপরে।

আইডিআরএ চেয়ারম্যান এম শেফাক আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এছাড়া অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান খায়রুল হোসেন, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এ্যাসোসিয়েশনের (বিআইএ) সভাপতি শেখ কবির হোসেন, সহ-সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটুসহ বিমা কোম্পানিগুলোর চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশিত : ৩ এপ্রিল ২০১৫

০৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: