মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

যারা বঙ্গবন্ধুকে খাটো করতে চায়, তারা ইতিহাস থেকে মুছে যাবে

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫
  • আলোচনায় বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম হয়েছিল বলেই বাংলাদেশ নামে রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল। তার বীরত্বগাঁথা নেতৃত্ব আজ বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের কাছে উদাহরণ হয়ে আছে। যারা এই মহান নেতাকে খাটো করতে চায়, তারা নিজেরাই ইতিহাস থেকে মুছে যাবে। নতুন প্রজন্মের কাজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মত্যাগ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস সঠিকভাবে তুলে ধরতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তারা একথা বলেন।

মঙ্গলবার রাতে ‘ইতিহাস কথা বলে-সংগ্রাম থেকে স্বাধীনতায় বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী ও আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনটি বিষয়ের ওপর বক্তব্য দেয়া হয়। ১৯২০-৭০ সাল-বঙ্গবন্ধুর ছাত্রজীবন, ভাষা আন্দোলন এবং স্বাধীনতার সংগ্রামের ওপর বক্তব্য উপস্থাপন করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ গবেষক অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম। এরপর মহান মুক্তিযুদ্ধের ওপর বক্তব্য তুলে ধরেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বিশিষ্ট গবেষক লে. ক. (অব.) সাজ্জাদ আলী জহির বীরপ্রতীক এবং সবশেষে স্বাধীন ও যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনর্গঠন-এর উপর আলোচনা করেন বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সদস্য ও বিশিষ্ট লেখক শেখ হাফিজুর রহমান। দেশের ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত ছাত্র-ছাত্রীরা এতে অংশগ্রহণ করেন। জাদুঘরের বিশেষ গাইডের তত্ত্বাবধানে ছাত্রছাত্রীদের জাদুঘর পরিদর্শন করানো হয়। পরিদর্শন শেষে জাদুঘরের শেখ লুৎফর রহমান ও শেখ সায়েরা খাতুন অডিটরিয়ামে তাদেরকে বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়। বক্তব্য উপস্থাপন শেষে ছাত্র-ছাত্রীরা বক্তাদের কাছে জানা-অজানা বিষয়ে প্রশ্ন করেন। বক্তারা এইসব প্রশ্নের উত্তর দেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাদুঘর পরিচালনা কমিটির সভাপতি শিল্পী হাশেম খান। এ সময় সাহানা ইয়াসমিন সম্পা, খন্দকার মুনিরুজ্জামান, আশরাফুল আলম পপলু, কাজী আফরীন জাহানসহ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্ট পরিচালনা কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বাল্যবিবাহ রোধে নতুন আইন প্রণয়নের উদ্যোগ

সংসদ রিপোর্টার ॥ বাল্যবিবাহ রোধকল্পে একটি নতুন আইন প্রণয়নের জন্য সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বলে সংসদকে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ সদস্য এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, প্রস্তাবিত আইনে কোন বিবাহ রেজিস্ট্রার স্বেচ্ছায় বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠানে বা আয়োজনে সহায়তা করলে তার নিবন্ধন বাতিল এবং ২ বছর পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাদ- বা ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থদ- বা উভয় দ-ের বিধান রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। আইন প্রণয়নের পর যথাযথ বাস্তবায়নের জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫

০২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: