কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সমুদ্র বিজয়ে ব্যাপক ব্লু ইকোনমির সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫
  • মৎস্য ও চিংড়ি সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির সভায় প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের সমুদ্র বিজয়ে দেশের ব্লু-ইকোনমির এক ব্যাপক সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। দেশের উন্নয়নের জন্য এই সম্পদের দ্রুত ও কার্যকরভাবে কাজে লাগাতে হবে। প্রধানমন্ত্রী মৎস্য খাতে সার্বিক উন্নয়নের জন্য দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টি এবং গভীর সমুদ্রে মৎস্য সম্পদ আহরণের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানান। প্রধানমন্ত্রী বুধবার তাঁর অফিসে মৎস্য ও চিংড়িসংক্রান্ত জাতীয় কমিটির তৃতীয় সভায় এ আহ্বান জানান। খবর বাসসর।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সেক্রেটারি একেএম শামীম চৌধুরী সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, কমিটির চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য খাতের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে ও প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি হালদা নদীতে রুই মাছের অভয়াশ্রয়স্থল সংরক্ষণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সরকারী কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি পরিবেশবান্ধব এবং উন্নত চাষ পদ্ধতির মাধ্যমে চিংড়ির উৎপাদন বাড়ানোরও আহ্বান জানান।

কমিটির সদস্য মৎস্য ও পশুসম্পদমন্ত্রী মোঃ সায়েদুল হক, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, মৎস্য ও পশুসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, খাদ্যমন্ত্রী মোঃ কামরুল ইসলাম, সংশ্লিষ্ট সচিবগণ এবং পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া ফ্রোজেন ফুড এক্সপোর্ট এ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ফিশ এ্যান্ড শ্রিম্প ফাউন্ডেশন, ন্যাশনাল শ্রিম্প কালটিভেশন এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ম্যারিন ফিশারিজ এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী দেশে-বিদেশে মৎস্যের বাজার সৃষ্টি করতে সংশ্লিষ্ট কোয়ালিটি কন্ট্রোল অফিসারদের ইনসেনটিভ প্রদান, ন্যাশনাল রেসিডিউ কন্ট্রোল প্ল্যানের (এনআরসিপি) ক্ষেত্র বাড়ানো এবং মৎস্যের নিরাপদ সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় জনশক্তি বাড়ানো এবং কোয়ালিটি কন্ট্রোলের ক্ষমতা বৃদ্ধির আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রী ইলিশ মাছের টেকসই সংরক্ষণের জন্য ইলিশ উন্নয়ন ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করার জন্য সরকারী কর্মকর্তাদের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এই তহবিল থেকে মাছ শিকার বন্ধের সময়ে খাদ্য সহায়তা দেয়া যাবে। প্রধানমন্ত্রী ইলিশ মাছের চলাচল রুট আন্ধারমানিক চ্যানেল, ধলচর চ্যানেল, চরবিশ্বাস চ্যানেল, শাজবাজপুর চ্যানেল, তেঁতুলিয়া নদী এবং ইলিশ মাছের অন্যান্য চলাচলকারী রুট এবং ইলিশের বিচরণকারী নদী ও চ্যানেল ক্যাপিটাল ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে ইলিশের আবাসস্থল পুনরুদ্ধার করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫

০২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: