মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অশুভ সত্তা কতটুকু সহজাত

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫
অশুভ সত্তা কতটুকু সহজাত

একজন মানুষ অন্যজনকে কারও ক্ষতি করতে বললে দ্বিতীয় ব্যক্তি ঠিকই তা করে ফেলবে। সাধারণ একজন মানুষ যে অন্যের এই অস্বাভাবিক ক্ষতি করতে পারে সেটা মানুষের সহজাত অশুভ দিক। প্রায় ৫০ বছর আগে গবেষণার ভিত্তিতে এমন তত্ত্ব দিয়েছিলেন অধ্যাপক স্ট্যানলি মিলগ্রাম। সেই তত্ত্ব খণ্ডন করেছেন এখনকার বিজ্ঞানীরা। তাঁদের মতে, অন্যের চরম ক্ষতি করাটা মানুষের কোন সহজাত অশুভ প্রবণতা নয়। এখানে থাকে কার্যকারণ।

প্রয়াত মার্কিন সামাজিক মনোবিজ্ঞানী স্ট্যানলি মিলগ্রাম তাঁর গবেষণায় একদল মানুষকে বোঝান, কিছু শিক্ষার্থী (আসলে অভিনেতা) একটি বিষয় শিখতে ব্যর্থ হচ্ছে। বৈদ্যুতিক শক প্রদান তাদের শেখার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। ব্যাপারটি বিশ্বাস করে গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে তিন ভাগের দুই ভাগ ব্যক্তি শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ সাড়ে ৪০০ ভোল্ট বৈদ্যুতিক শক দেয়। আদতে শিক্ষার্থীদের কোন শক দেয়া হয়নি। শিক্ষার্থীরা স্রেফ শক পাওয়ার অভিনয় করেছে। গবেষণা শেষে মিলগ্রাম বলেন, কারও নির্দেশনা পেয়ে অন্যের ক্ষতি করাটা মানুষের সহজাত অশুভ প্রবণতা।

মিলগ্রামের এই গবেষণা নিয়ে কাজ করেন অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব কুইন্সল্যান্ড এবং ম্যাককুয়ারি ইউনিভার্সিটির দুই অধ্যাপক। মিলগ্রামের গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা নিষ্ঠুর কাজটি করার পরও কেন মর্মবেদনায় ভোগেনি তা জানতে ওইসব সাক্ষাতকারসহ পুরো গবেষণাকর্মটি খতিয়ে দেখেন অস্ট্রেলিয়ার এ দুই গবেষক। তাঁরা দেখেন, মিলগ্রাম ওইসব ব্যক্তিকে বিশ্বাস করাতে পেরেছিলেন তারা যা করছে ভালর জন্যই করছে। সবশেষে তাদের এটাও বলা হয়, আসলে সেটি ছিল একটি গবেষণা। মিলগ্রামের পুরো গবেষণাকর্মটি বিশ্লেষণের পর অস্ট্রেলীয় অধ্যাপকরা সিদ্ধান্ত টেনেছেন, অন্যের ক্ষতি করাটা মোটেই মানুষের সহজাত অশুভ প্রবণতা নয়। মানুষকে কোনভাবে প্রভাবিত করার ফলে তারা অন্যের ক্ষতি করে ফেলতে পারে। কিন্তু স্বাভাবিক অবস্থায় ওই মানুষ এমন কাজ নাও করতে পারে। -সূত্র : ডেইলি মেইল

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫

০২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: