মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সম্পাদক সমীপে

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫

টেস্ট পরীক্ষা সমাচার

সম্প্রতি টেস্ট পরীক্ষা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। টেস্ট পরীক্ষা নেয়া হবে না এমন কথা মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা নির্দেশে নেই। এক্ষেত্রে দুটি মাত্র শর্ত রাখা হয়েছে। শারীরিক অসুস্থতা বা কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে যদি কোন ছাত্রছাত্রী টেস্ট পরীক্ষায় অংশ নিতে না পারে এবং যারা এক বা দুই বিষয়ে ফেল করে শুধু তাদের ক্ষেত্রে দেখা হবে যে তারা ক্লাসে ৭০ ভাগ উপস্থিত ছিল কিনা। কিন্তু যদি কোন ছাত্রছাত্রী দুই বা তিন বিষয়ে ফেল করে আর ৭০ শতাংশের কম উপস্থিত থাকে, তবে তাদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম অনুসরণ করা হবে না। ফাইনাল পরীক্ষায় পাসের হার বেড়ে যাওয়ায় নির্বাচনী পরীক্ষা অনেকটাই অর্থহীন হয়ে পড়েছে।

কোন স্কুল বা কলেজেই নির্বাচনী পরীক্ষায় খুব বেশি ছাত্রছাত্রীকে আটকানো হয় না। কারণ শিক্ষক, অভিভাবক ও ছাত্রছাত্রীরা জানে যে ফাইনাল পরীক্ষা দিলেই পাস করা যাবে। স্কুলের পরীক্ষাগুলো পাস করাই সবচেয়ে কঠিন। আর এখানেই চলে শিক্ষার সবচেয়ে বড় বাণিজ্য। হাজার হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য চলে এই পরীক্ষাগুলো নিয়ে।

বিপ্লব

ফরিদপুর

দালাল আটক চলুক

রাজধানীর আগারগাঁও পাসফোর্ট অফিসে র‌্যাববাহিনী কর্তৃক দালাল পাঁকড়াও অভিযান খুবই চমৎকার কাজ, ৩০ জন দালাল পাঁকড়াও করে ভ্রাম্যমাণ আদালত সাজা দিয়েছে। দেশের একজন সুনাগরিক হিসেবে ওই কার্যকলাপকে স্বাগত জানাচ্ছি। সঙ্গে সঙ্গে এ ধরনের শুদ্ধি বা পাঁকরাও অভিযান সকল সেক্টরে অব্যাহত রাখার অনুরোধ করছিÑ বিশেষ করে দেশের সকল সরকারী হাসপাতাল, জেলা সাপোর্ট অফিস, সকল জেলা উপজেলা ভূমি অফিস, বিদ্যুত অফিস, রেলস্টেশন লঞ্চটারমিনাল-থানা, আদালতপাড়া, সরকারী ব্যাংক অগ্রণী, সোনালী, কৃষি, জনতা, পূবালী, জেলগেট ও সচিবালয়, জনস্বার্থ জড়িত সকল সেক্টরে আপনাদের (র‌্যাব) পাঁকড়াও তাৎক্ষণিক সাজা প্রদান অভিযান দেশের মানুষকে বহুলাংশে স্বস্তি দেবে, যার পরিপ্রেক্ষিতে আপনাদের প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্রমশ বৃদ্ধি পাবে।

কাজী নুরুল আমিন

শ্রীনগর, মুন্সীগঞ্জ

কুষ্টিয়ায় বেতার কেন্দ্র চাই

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধকালে তৎকালীন কুষ্টিয়া জেলার মুজিবনগর ছিল বাংলাদেশের অস্থায়ী রাজধানী। মুক্তিযুদ্ধকালে যে জেলার অবদান সবচেয়ে বেশি অথচ সে জেলায় বাংলাদেশ বেতারের কেন্দ্র নেই, বিষয়টি ভাবতেই কষ্ট হয়। ভৌগোলিক অবস্থান বিবেচনা করলে কুষ্টিয়া জেলা খুলনা বিভাগের একেবারেই শেষপ্রান্তে অবস্থিত, খুলনা বেতারকেন্দ্রের অনুষ্ঠান এক রকম শোনা গেলেও রাজশাহী বেতারকেন্দ্র, ঢাকা ‘খ’, ‘গ’ বেতারকেন্দ্রের অনুষ্ঠান শোনা যায় একেবারেই অস্পষ্ট। এছাড়া বাংলাদেশের অন্যান্য বেতারকেন্দ্রের অনুষ্ঠান শোনা আকাশ-কুসুম কল্পনা ছাড়া আর কিছুই নয়। এ কারণে এ জেলায় বেতার কেন্দ্র স্থাপন করলে বৃহত্তর কুষ্টিয়া ও এর আশপাশের জেলা থেকে বহু প্রতিভা তৈরি হবে। সরকারও বিপুল পরিমাণে রাজস্ব অর্জন করতে পারবে। বর্তমান ডিজিটাল দুনিয়ায় বসবাস করেও আমরা এর সুবিধাপ্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত।

মোশতাক মেহেদী

হাউজিং এস্টেট, কুষ্টিয়া

প্রকাশিত : ২ এপ্রিল ২০১৫

০২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: