কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পুঁজিবাজারে লেনদেন বাড়ল ৪৪ শতাংশ

প্রকাশিত : ১ এপ্রিল ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে প্রাণ ফিরে আসছে। গত তিন মাস ধরে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর দর কমার কারণে অনেকেই নতুন করে অল্প দামে শেয়ার কেনার সুযোগ নিচ্ছেন। এ কারণে বৃহস্পতিবারে দেশের উভয় পুঁজিবাজারে চলতি বছরের সর্বোচ্চ লেনদেনের ঘটনা ঘটেছে। একইসঙ্গে দুই স্টক এক্সচেঞ্জে মঙ্গলবার সূচকের উর্ধমুখী ধারায় লেনদেন শেষ হয়েছে। প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) মোট ৪৫২ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় ১৩৭ কোটি ৭৮ লাখ টাকা বা ৪৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ বেশি। সোমবার সেখানে লেনদেন হয়েছিল মোট ৩১৪ কোটি টাকা। এর আগে ৪ ডিসেম্বর ডিএসইতে মোট ৫১৩ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছিল। দিনটিতে তালিকাভুক্ত জ্বালানি এবং শক্তি খাতের কোম্পানিগুলোর প্রতি বেশি চাহিদা দেখা গেছে। একইভাবে শক্ত মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানিরও দর বেড়েছে বেশি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবারে সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই সূচকের তীর নিচে নামতে থাকে। কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সূচকের ওঠানামা চলতে থাকে। একইসঙ্গে বড় মূলধনী কোম্পানিগুলোর দর বাড়ার কারণে লেনদেন ও সূচকের গতি বাড়তে থাকে। সারাদিন ওঠানামা শেষে ডিএসইর সার্বিক সূচকটি বা ডিএসইএক্স সূচক ২১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৪ হাজার ৫৩০ পয়েন্টে। একইভাবে অন্য সূচকও কিছুটা বেড়েছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১০৩ পয়েন্টে। অন্যান্য সূচকের তুলনায় ডিএসইর বাছাই তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর দর বেড়েছে বেশি। বাছাই সূচক বা ডিএস৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৭২৮ পয়েন্টে।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৩টির, কমেছে ১৪৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টির শেয়ার দর।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে- এমজেএল বাংলাদেশ, গ্রামীণফোন, এসিআই লিমিটেড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, শাশা ডেনিমস, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ইফাদ অটোস লিমিটেড, অগ্নি সিস্টেমস লিমিটেড এবং বিএটিবিসি।

ডিএসইর দর বৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো- ফার্স্ট বাংলাদেশ ১ম মিউচ্যুয়াল ফান্ড, হা-ওয়েল টেক্সটাইল, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, আইডিএলসি ফাইনান্স, বঙ্গজ, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বিডি কম, আইসিবি ৩য় এনআরবি, ডিবিএইচ ও মবিল যমুনা বিডি।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো- বিডি ওয়েল্ডিং, মডার্ন ডাইং, ঢাকা ব্যাংক, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, বিডি ল্যাম্পস, মুন্নু সিরামিক, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স, ইমাম বাটন, অ্যামবে ফার্মা ও দেশ গার্মেন্টস।

এদিকে মঙ্গলবার ঢাকার মতো দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে (সিএসই) সব ধরনের সূচকের সঙ্গে লেনদেন বেড়েছে। সেখানে সকালে কিছুটা শ্লথ গতিতে লেনদেন শুরুর পর দিন শেষে ৪৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮৬০ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৭টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো- আইএলএফএসএল, মবিল যমুনা বাংলাদেশ, শাশা ডেনিমস, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, গ্রামীণফোন, বেক্সিমকো, এসিআই, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড ও খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড।

প্রকাশিত : ১ এপ্রিল ২০১৫

০১/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: