মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বেইলি ব্রিজের পাত খুলে নীলফামারী-ডোমার যান চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ নীলফামারী-ডোমার সড়কের পলাশবাড়ি যমুনেশ্বরী নদীর উপর বেইলি ব্রিজের পাত খুলে পড়েছে। ফলে জেলা সদরের সঙ্গে দুই উপজেলা ডোমার ও ডিমলা এবং পার্শ্ববর্তী পঞ্চগড় জেলার সঙ্গে সরাসরি যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী ট্রাকসহ ভারি যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বিকল্প পথে যানবাহন চলাচল করলেও গত তিন দিন সড়ক বিভাগ ব্রিজ মেরামত করেনি।

সোমবার দুপুরে দেখা গেছে ব্রিজটির অবস্থা নাজেহাল। সেতুটির দক্ষিণ মাথায় একটি পাত খুলে গেছে এবং বিভিন্ন স্থানের পাত সরে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, গত শুক্রবার গভীর রাতে ইট ভর্তি একটি ট্রাক সেতু পার হচ্ছিল। ট্রাকের ভারে সেতুর একটি প্লেট খুলে পড়লে সেখানে আটকা পড়ে ট্রাকটি। গত শনিবার সেখান থেকে ট্রাকটি সরানো হলেও বিভাগ সেতুটি মেরামত না করায় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

আটকা পড়া ট্রাকের ড্রাইভার কান্দুর রহমান বলেন, গত শুক্রবার নওগাঁও থেকে ইট নিয়ে এই পথে পঞ্চগড় যাচ্ছিলাম। রাত আনুমানিক দুইটার দিকে বৃষ্টি হচ্ছিল। এ সময় ওই ব্রিজে ট্রাক উঠানোর সঙ্গে সঙ্গে একটি প্লেট খুলে পড়লে চাকা ফেঁসে ট্রাকটি আটকা পড়ে। এ কারণে গত তিন দিন ধরে এখানে আটকা পড়ে আছি। ওই ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও ট্রাকটির প্রায় ৪০ হাজার টাকার যন্ত্রাংশ ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে জানান তিনি।

ওই এলাকার পলাশবাড়ি গ্রামের অনন্ত মোহন্ত বলেন, গত তিন বছর আগে নদীর ওপর নির্মিত সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে সেখানে অস্থায়ী লোহার সেতু নির্মাণ করে কর্তৃপক্ষ। এরপর সেটির ওপর দিয়ে কোনভাবে যান চলছিল। ২০১৩ সালের শেষের দিকে সহিংসতায় সময় পরপর তিনবার প্লেট খুলে জামায়াত-শিবির ওই সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত করে। এরপর থেকে নড়বড়ে সেতুর ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে কোনভাবে যানবাহন পারাপার হচ্ছিল। নীলফামারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম বলেন, দ্রুত মেরামত করে যানবাহন চলাচলের উপযোগী করার প্রক্রিয়া চলছে। তবে সেখানে অস্থায়ীভাবে বিকল্প আরেকটি লোহার সেতু স্থাপনের জন্য দরপত্র আহ্বান করে গত বৃহস্পতিবার খোলা হয়েছে। দ্রুত কার্যাদেশ দিয়ে বিকল্প সেতুটি স্থাপন করা হবে। স্থায়ী সেতু নির্মাণের প্রক্রিয়াটি চলমান রয়েছে।

স্বাধীনতা দিবসে এলিট ফোর্সের রক্তদান কর্মসূচী

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও এলিট ফোর্স আয়োজন করেছিল বিভিন্ন কর্মসূচীর।

তারই অংশ হিসেবে ২৬ থেকে ২৮ মার্চ ঢাকার বারিধারায় অবস্থিত এলিট টাওয়ারে অনুষ্ঠিত হলো দেশ ও মানবতার কল্যাণে তিন দিনব্যাপী রক্তদান কর্মসূচী। ২৬ মার্চ সকালে এলিট ফোর্সের সম্মানিত চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার শরীফ আজিজ, পিএসসি (অব), অন্যান্য সম্মানীয় ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে রক্তদান কর্মসূচীর শুভ সূচনা করেন। রক্তদান কর্মসূচীতে অংশ নিয়েছে এলিট ফোর্স পরিবারের নিবেদিত সদস্যগণ।

এলিট ফোর্সের গার্ডরা অধিকাংশই দরিদ্র পরিবারের সন্তান। দেশ ও মানবতার কল্যাণে তাদের স্বেচ্ছায় এ অংশগ্রহণ যথেষ্ট প্রশংসনীয়। এ রক্তদান কর্মসূচীতে যারা অংশ নিয়েছেন তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা। কর্মসূচীতে সহযোগিতা করেছেন রক্তদাতা সংগঠন সন্ধানীর বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজ ইউনিট। -বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫

৩১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: