আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জিরো পয়েন্টে আজ ১৬২ ছিটমহলবাসীর সমাবেশ

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫
  • ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং আসছেন

রাজু মোস্তাফিজ, কুড়িগ্রাম থেকে ॥ ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের ভারতের ছিটমহলবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময় ও জনসভাকে কেন্দ্র করে স্থল সীমান্ত বিল পাসের দাবিতে ভারত বাংলাদেশের ১৬২টি ছিটমহলের মানুষ আজ জিরো পয়েন্টে সমাবেশে মিলিত হবে। ভারত-বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে এ সমাবেশ আহ্বান করা হয়। ভারত কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা ছিটমহলের বিপরীতে সন্ন্যাসী হাটে সকাল ১১টার দিকে ছিটমহলবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। পরে পাশের শহর মেকলিগঞ্জের জনসভায় ভাষণ দিবেন তিনি। এ সফরের মাধ্যমে তিনি ছিটমহলবাসীদের অবস্থা প্রত্যক্ষ করে ভারতের চলমান সংসদ অধিবেশনে তার মূল্যবান মতামত জানাবেন। যা স্থল সীমান্ত বিল পাসে সহায়ক হবে বলে দাবি করেন সমন্বয় কমিটির নেতা দীপ্তিমান সেনগুপ্ত ।

ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির ভারত চ্যাপ্টারের সহ-সাধারণ সম্পাদক দীপ্তিমান সেনগুপ্ত জানান, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে তার সভাস্থলের কাছে ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটি এ সমাবেশের আয়োজন করে। স্থল সীমান্ত বিল পাসে মন্ত্রীর হস্তক্ষেপের দাবিতে এ সমাবেশে যোগ দেবে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ১১১টি ভারতীয় ছিটমহলের প্রতিনিধি এবং ভারতের অভ্যন্তরে অবস্থিত বাংলাদেশের ৫১টি ছিটমহলের প্রতিনিধি। ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা জানান, লালমনিরহাটের দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা ছিটমহলের কাছে ভারতের জিরো পয়েন্টে ১৬২ ছিটমহলের প্রতিনিধি সমাবেশ ডাকা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার এ সমাবেশে বক্তব্য দিবেন ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সভাপতি মইনুল হক, দাশিয়ারছড়া ইউনিটের সভাপতি আলতাফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোজাফফর হোসেন, ভারত চ্যাপ্টারের সভাপতি সাহিত্যিক অমর মিত্র, সহ-সাধারণ সম্পাদক দীপ্তিমান সেনগুপ্ত, উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট আহসান হাবীব, গবেষক গোলাম রব্বানী প্রমুখ।

ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সভাপতি মইনুল হক জানান, বাংলাদেশের ভেতরে ভারতের ১১১টি ও ভারতের ভেতরে বাংলাদেশের ৫১টি ছিটমহলের মানুষ দ্রুত ছিটমহল বিনিময় ও মুজিব-ইন্দিরা চুক্তির বাস্তবায়নের দাবিতে সমাবেশ, মশাল মিছিল, গণ অনশন, ধর্মঘট ও নিষ্প্রদীপ রাত যাপনসহ নানা কর্মসূচী পালন করে আসছে দীর্ঘদিন থেকে। এরই প্রেক্ষিতে কয়েক দফা ভারতের পার্লামেন্টে সংবিধান সংশোধনকল্পে বিল উত্থাপনের কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু বিরোধী দলের সমর্থন না পাওয়ায় তা সম্ভব হয়নি। ভারতের তৎকালীন সরকারী দল কংগ্রেস রাজ্যসভার অধিবেশনে স্থলসীমান্ত চুক্তি বিলটি কয়েক দফায় উত্থাপনের চেষ্টা করে কিন্তু বিরোধী দল বিজেপি, অসম গণপরিষদ ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বেঁকে বসায় সম্ভব হয়নি। বর্তমান বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর পার্লামেন্টের শীতকালীন অধিবেশনে ভারতের সংবিধান সংশোধন করে এ চুক্তি বাস্তবায়নের কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। পরে মমতা ছিটমহল বিনিময়ের ব্যাপারে তার আপত্তি তুলে নেন। বাংলাদেশ সফরের সময়ও তিনি এ অনাপত্তির কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। চলতি রাজ্যসভার অধিবেশনে বহু প্রতাশিত এ বিলটি পাসের কথা রয়েছে। তাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এ সফরকে ছিটমহলবাসী গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫

৩১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: