মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে ৬৫ ভাগ কোম্পানির দর কমেছে

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ একদিনের সূচকের উর্ধগতির পরে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে সোমবার পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। অর্থনীতির সব ধরনের সূচক ইতিবাচক থাকলেও দিনটিতে প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ৬৫ ভাগ কোম্পানির দরপতন হয়েছে। সিটি নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল অংশ নিলেও একশ্রেণীর বিনিয়োগকারীদের নেতিবাচক প্রচারণার কারণে বাজারে কিছুটা শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ে। দিনশেষেও যা অব্যাহত থাকে। একইভাবে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও কমতে থাকে। ফলে প্রধান বাজারে সব ধরনের সূচকই কমেছে ১ শতাংশের বেশি। ঢাকার মতো অপর বাজারেও সব ধরনের সূচকের সঙ্গে লেনদেন কমেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সোমবার সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পর মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্য শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ে। একশ্রেণীর বিনিয়োগকারী বাজারে নেতিবাচক প্রচারণা চালায় এতে বিনিয়োগকারীরাও আতঙ্কে শেয়ার বিক্রি বাড়িয়ে দেন। অপরদিকে ডিএসইতে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট ছয়টি সংগঠনের নেতারাও বৈঠক করেন। এতে বাজারে গতিশীলতা ফেরাতে নানা প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। এসব বৈঠকের মাঝেও নানা গুজব ছড়িয়ে শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ানো হয়। এতে বাজারে কিছুটা হলেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এভাবে সারাদিন সূচকের ওঠানামার মধ্যে ডিএসইতে ৩১৪ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় ৭৮ কোটি টাকা বা ২০ শতাংশ কম। রবিবার এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩৯৩ কোটি টাকা।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩০৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৬টির, কমেছে ১৯৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির শেয়ার দর।

সকালে ইতিবাচক শুরুর পরও ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক ৪৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান দাঁড়ায় ৪ হাজার ৫ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৯৬ পয়েন্টে। ডিএস ৩০ সূচক ২০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৭১৭ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে- গ্রামীণফোন, এসিআই লিমিটেড, শাশা ডেনিমস, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইফাদ অটোস, এমজেএল বাংলাদেশ, ফার্মা এইডস, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, স্কয়ার ফার্মা এবং এসিআই ফরমুলেশনস।

এদিকে ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও সব ধরনের সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। সারাদিনে ডিএসইতে সিএসইতে ২৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮২২ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪৯টির, কমেছে ১৭২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির।

প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০১৫

৩১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: