মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বাঁ হাতের ভেল্কিতেই বিধ্বস্ত নিউজিল্যান্ড!

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫
  • পর্দা নামল বিশ্বকাপ ক্রিকেটের

জিএম. মোস্তফা ॥ রেকর্ড সর্বোচ্চ পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের স্বাদ পেল অস্ট্রেলিয়া। রবিবার ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে অসামান্য সেই কীর্তি গড়ল মাইকেল ক্লার্কের দল। তবে ফাইনাল জয়ের মূলনায়ক অস্ট্রেলিয়ার তিন বাঁ হাতি পেসার মিচেল স্টার্ক, মিচেল জনসন এবং জেমস ফকনার। ব্ল্যাক ক্যাপসদের ৯ উইকেটের ৮টিই দখল করেছেন এই পেসার ত্রয়ী। আর তাদের বোলিং তোপেই মাত্র ১৮৩ রানে গুটিয়ে যায় ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের দল। শেষে ৭ উইকেটের সহজ জয়ে স্বপ্নের বিশ্বকাপের শিরোপাটাকে পুনরুদ্ধার করে অস্ট্রেলিয়া।

মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে (এমসিজি) রবিবার টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। কিন্তু স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে দাঁড়াতেই পারেননি কিউই ব্যাটসম্যানরা। অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম সাফল্য এনে দেন বাঁ হাতি পেসার মিচেল স্টার্ক। টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলা ব্ল্যাক ক্যাপসদের অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককুলামকে বোল্ড আউট করে। তখন কিউইদের রান মাত্র ১। আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিলও বেশিক্ষণ মাঠে থাকতে পারেননি। ব্যক্তিগত ১৫ রানেই সাজঘরে ফিরেন তিনি। তবে তার উইকেটটি দখল করেন ডান হাতি পেসার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া ব্ল্যাক ক্যাপসদের শেষ ব্যাটসম্যান টিম সাউদিকেও রান আউট করেন অসি অলরাউন্ডার ম্যাক্সওয়েল।

এছাড়া বাকি উইকেটগুলো তিন বাঁ হাতি পেসার স্টার্ক-জনসন এবং ফকনারই ভাগাভাগি করে নেন। ম্যাককুলামের পর লুক রনকির উইকেটটিও দখল করেন মিচেল স্টার্ক। ৮ ওভার বল করে ২ উইকেট পেতে স্টার্ক প্রতিপক্ষকে রান দেন মাত্র ২০। ফাইনালে প্রতিপক্ষের ২ উইকেট লাভ করায় একাদশতম বিশ্বকাপের ৮ ম্যাচে মিচেল স্টার্কের দখলে ২২ উইকেট। ট্রেন্ট বোল্ট স্টার্কের চেয়ে ১ ম্যাচ বেশি খেললেও সমান ২২ উইকেট নিয়ে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহের তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছেন। তবে বোলিংয়ে অসাধারণ নৈপুণ্য প্রদর্শন করায় একাদশতম বিশ্বকাপের টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচিত হন মিচেল স্টার্ক। ম্যাচসেরার পুরস্কার নিতে এসে উচ্ছ্বাস আর উল্লাসে ভাসেন ২৫ বছর বয়সী এই অস্ট্রেলিয়ান। তবে নিজের পারফর্মেন্সের জন্য সতীর্থদের পাশাপাশি ভক্ত-অনুরাগীদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে সবচেয়ে কম রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট দখল করেছেন মিচেল জনসন। ৯ ওভার বল করে প্রতিপক্ষকে মাত্র ৩০ রান উপহার দেন তিনি। ৩৩ বছর বয়সী মিচেল জনসন কেন উইলিয়ামসন, ড্যানিয়েল ভেট্টরি এবং ম্যাট হেনরির উইকেট তিনটি দখল করেন। এর ফলে এবারের আসরে ৮ ম্যাচ খেলে তার দখলে মোট উইকেট সংখ্যা ১৫। টুর্নামেন্টে তার সেরা পারফর্মেন্স ২২ রানে ৪ উইকেট দখল করা।

তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন আরেক বাঁ হাতি পেসার জেমস ফকনার। তিনি নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক গ্র্যান্ট ইলিয়ট এবং ব্রেন্ডন টেইলরের উইকেট ছাড়াও হার্ডহিটার কোরি এ্যান্ডারসনের মূল্যবান উইকেট তিনটি দখল করেন। ৯ ওভার বল করে ১টি মেডেনসহ ৩৬ রানের বিনিময়ে প্রতিপক্ষের ৩ উইকেট লাভ করেন তিনি। টুর্নামেন্টে ৬ ম্যাচে তার মোট উইকেট ১০। কিউইদের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফর্মেন্সের পুরস্কারটাও পেয়ে গেছেন ফকনার। তরুণ প্রতিভাবান এই পেসার ফাইনালের ম্যাচ সেরার পুরস্কারটাও নিজের শোকেসে তুলেন। এমন পারফর্মেন্সে দারুণ সন্তুষ্ট এই অস্ট্রেলিয়ান। ম্যাচের বিরতিতে এক সাক্ষাতকারে জেমস ফকনার বলেন, ‘এটা স্পষ্টতই বলতে হয় যে আমাদের শুরুটা অনেক ভাল হয়েছে। ছেলেরা অনেক ভাল বল করেছে। তাই এমন রান তাড়া করে জেতাটা আসলে আমাদের জন্য কঠিন কিছু ছিল না। তবে বিশ্বকাপের আগে থেকেই ফিল্ডিংয়ে আমরা অনেক সময় দিয়েছি। কঠোর পরিশ্রম করেছে দলের সকলেই।’

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫

৩০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: