মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিদেশে নারী পাচারের পর মুক্তিপণ আদায়ের দায়ে ধৃত ২

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অভিযোগটি ছিল দীর্ঘদিন ধরেই। কিন্তু হাতে নাতে ধরা যাচ্ছিল না। এবার ধরা পড়ল সেই চক্র, যারা বিদেশে কর্মী পাঠিয়ে দেশে মুক্তিপণ আদায় করে। এমনই এক ঘটনায় র‌্যাব উদ্ধার করে লায়লা আক্তার নামের এক নারীকে। গৃহকর্মী ভিসায় দুবাইয়ে পাচারের পর জিম্মি করে অভিনব কায়দায় তার পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়কালে পাচারচক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১।

এ ঘটনা সম্পর্কে র‌্যাব-১ এর অপারেশন অফিসার কামরুল ইসলাম জানান, চলতি বছরের ২৬ মার্চ দুবাইয়ে জিম্মি লায়লা আক্তারকে উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-১ ঢাকা বরাবর তার মা সালমা বেগম অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার টাকা আদান-প্রদানের সময় প্রতারক ও জিম্মি চক্রের শরাফত উল্লাহ (২৪) এবং ফুয়াদ হোসেন (২৭) নামের দু’জনকে হাতে-নাতে আটক করা হয়। লায়লাকে চলতি বছরের ১২ মার্চ গৃহকর্মীর ভিসার নামে দুবাইয়ে পাচার করে ফাতেমা ওভারসিজের মালিক মোহাম্মদ ফারুক ও তার দুই সহযোগী শরাফত উল্লাহ এবং ফুয়াদ হোসেন।

র‌্যাব জানায়, চক্রটি বিদেশে নারী পাচার করে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতনের মাধ্যমে মুক্তিপণ আদায় করে আসছিল। দুবাইয়ে পাচার করার পর লায়লাকে আটকে রেখে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের মাধ্যমে বাংলাদেশে তার মায়ের কাছে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে ওই চক্র। এদের মূলহোতা ফারুক বর্তমানে দুবাইয়ে অবস্থান করছেন। আটককৃতরা ফারুকের এজেন্ট হিসেবে ঢাকায় কাজ করতেন। আটক শরাফত উল্লাহ তার মোবাইলের মাধ্যমে দুবাইয়ে অবস্থানরত লায়লার জিম্মিকারী ফারুককে টাকা পাওয়ার কথা নিশ্চিত করলে ফারুক লায়লাকে এয়ার এ্যারাবিয়ার ঢাকাগামী ফ্লাইটে তুলে দেন। খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা দুবাই থেকে আসা লায়লাকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে শনিবার ভোর সাড়ে চারটায় উদ্ধার করে। এ বিষয়ে টঙ্গী মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫

৩০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: