কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দেশ ব্যাংকটির সদস্য হতে চুক্তি করে।

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫
  • বিমানে বাড়তি ভাড়া ॥ কমছে সবজি রফতানি

এম শাহজাহান ॥ সবজি রফতানিতে বিদেশী এয়ারলাইন্সের তুলনায় দেশীয় প্রতিষ্ঠান বিমানের কার্গো ভাড়া বেশি গুনতে হচ্ছে উদ্যোক্তাদের। বিমানের ভাড়া বেশি হওয়ায় রফতানি খরচ বাড়ছে। বাড়তি ভাড়ার কারণে আমদানিকারকদের সরবরাহ আদেশ কমে যাচ্ছে। এর ফলে বাড়ছে রফতানি ব্যাহত হওয়ার ঝুঁকিও। বর্তমান বাংলাদেশ থেকে মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে প্রতিকেজি সবজি রফতানিতে বিদেশী এয়ারলাইন্সগুলোকে ভাড়া দিতে হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকা। কিন্তু সমপরিমাণ পণ্য পাঠাতে বিমানের ক্ষেত্রে ১৮০-১৮৪ টাকা গুনতে হচ্ছে রফতানিকারকদের। এ অবস্থায় শাক-সবজির রফতানির বাজার ধরে রাখতে বিমান ভাড়া কমানোর দাবি করা হচ্ছে। অন্যথায় কৃষিজাত এসব পণ্য রফতানি বিপর্যয়েরও আশঙ্কা রয়েছে। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানা গেছে, চলমান হরতাল-অবরোধের কারণে বিপাকে পড়েছেন দেশের রফতানিকারকরা। ঘন ঘন হরতাল এবং নানা রাজনৈতিক কর্মসূচীর কারণে অনেকেই তাদের পণ্য নির্ধারিত সময়ে রফতানি করতে পারেননি। এছাড়া পচনশীল জাতীয় পণ্য হওয়ার কারণে শাক-সবজি সব সময় আকাশ পথে পরিবহন করা হয়ে থাকে। রফতানিকারকরা বলছেন, ক্রেতারা যথাসময়ে পণ্য পাঠানোর তাগিদ দিয়েছেন। কিন্তু হরতাল-অবরোধের কারণে আকাশ পথের ব্যবহার বাড়ায় এয়ারলাইন্সগুলো কার্গো বিমানের ভাড়া বাড়িয়েছে। এ কারণে সবজি রফতানিকারকদের বাড়তি পয়সা গুনতে হচ্ছে। আর এক্ষেত্রে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কার্গো ভাড়া সবচেয়ে বেশি। এ খাতের উদ্যোক্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ ফ্রুটস, ভেজিটেবল এ্যান্ড এ্যালাইড প্রোডাক্টস এক্সপোর্টস এ্যাসোসিয়েশন (বিএফভিএপিইএ) সূত্রে জানা গেছে, এয়ারলাইন্সের ভাড়া বাড়ায় সবজি রফতানিতে সাফল্য ধরে রাখা কঠিন হয়ে পড়ছে। এছাড়া অন্যান্য সময়ের তুলনায় সবজি ও ফলের বাজার দর কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। মধ্যস্বত্ব ভোগীদের অতি মুনাফা প্রবণতায় এই দাম বাড়ছে। এছাড়া হরতাল-অবরোধের কারণে দেশের অভ্যন্তরে পণ্য পরিবহনের ভাড়া বাড়ছে।

এদিকে, বিমান ভাড়া কমানোর দাবিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানালেও সুফল পায়নি রফতানিকারকরা। এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে রফতানিতে পণ্য পরিবহন ভাড়া অনেক কম। শুধু তাই নয়, আকাশ পথে রফতানির চাপ বেড়ে যাওয়ায় এয়ারলাইন্সগুলো পণ্য পরিবহনের ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছে। আবার সব সময় কার্গোর চাপের কারণে বুকিংও মিলছে না। এজন্য অনেক বড় রফতানিকারক কার্গো বিমান ভাড়া করে পণ্য পাঠাচ্ছেন।

জানা গেছে, ফল ও সবজি রফতানিতে সফলতা দেখিয়েছে বাংলাদেশ। সরকারী তথ্যমতে, বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে কাঁঠাল, আনারস, লিচু, আম, কামরাঙা, কদবেল, আমলকি, লেবু এবং বরইসহ ৪০ প্রকারের ফল বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানি হচ্ছে। এছাড়া ৭৩ প্রকারের দেশীয় সবজিও রফতানি হচ্ছে। এসব রফতানিকৃত পণ্যের ৫৪ ভাগ ইউরোপের বৃটেন, ইতালি, জার্মানি, ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক, স্পেন, সুইডেন এবং আয়ারল্যান্ডে রফতানি হচ্ছে। এছাড়া মধপ্রাচ্যের কাতার, ওমান, বাহরাইন, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত এবং এশিয়ার কাজাকিস্তান, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা, সিঙ্গাপুর, উত্তর আমেরিকায় কানাডায় বাংলাদেশী সবজি এবং ফল রফতানি হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে বিএফভিএপিইএ সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন জনকণ্ঠকে বলেন, তৈরি পোশাক শিল্পের মতো ফল ও সবজি রফতানি দ্রুত অগ্রসরমান খাতে পরিণত হচ্ছে। প্রতিবছর এ খাত থেকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা আয় হচ্ছে। সরকারও রাজস্ব পাচ্ছে। বেশি আয়ের কারণে দিন দিন এ খাতের সঙ্গে বিপুল পরিমাণ মানুষ জড়িত হচ্ছেন। তিনি বলেন, বোয়িং-এর ৭৩৭ মডেলের একটি বিমান দিয়ে পণ্য পরিবহন সেবা চালু করেছিল বিমান। কিন্তু বিমানের ওই কার্গো সেবার ভাড়া বাংলাদেশে পরিচালিত বিদেশী বিমান সংস্থাগুলোর চেয়ে অনেক বেশি। বিমানের কার্গো ভাড়া বেশি হওয়ার কারণে শাক-সবজি রফতানির ঝুঁকি বাড়ছে বলে তিনি মনে করেন। এদিকে, বাংলাদেশ বিমানের কার্গো বিভাগে যোগাযোগ করা হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বিভাগের এক উর্ধতন কর্মকর্তা জনকণ্ঠকে বলেন, বিমানের কার্গো ভাড়া বেশি।

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০১৫

৩০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: