মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ওয়ানডে থেকে ক্লার্কের অবসর

প্রকাশিত : ২৯ মার্চ ২০১৫
  • আজই শেষ ম্যাচ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর একটি ম্যাচ। ক্যারিয়ারের তৃতীয় বিশ্বকাপ খেলছেন মাইকেল ক্লার্ক। এর মধ্যে দু’বারই ফাইনাল খেলেছেন। ২০০৭ বিশ্বকাপে শিরোপাজয়ী দলের গর্বিত সদস্য ছিলেন। তবে এবার একটু ভিন্নতর অভিজ্ঞতা হবে তার জন্য। কারণ দলের অধিনায়ক হিসেবে খেলতে নামছেন ফাইনালে। ঘরের মাঠেই দলকে নেতৃত্ব দিয়ে শিরোপা জেতানোর মোক্ষম সুযোগ। রবিবার ফাইনালের পর বৃহস্পতিবারেই পা রাখবেন ৩৪ বছরে। কিন্তু এখনই ওয়ানডে থেকে অবসর নেয়ার উপযুক্ত সময় মনে করছেন তিনি। তাই ফাইনালের আগে শনিবার সংবাদ সম্মেলনে আচমকাই অবসরের ঘোষণা দিলেন অসি অধিনায়ক। টানা ইনজুরির কারণে গত কয়েক বছর ধরেই ভুগছেন। সে কারণেই এমন সিদ্ধান্ত তার। তবে টেস্ট ক্যারিয়ার আরও প্রলম্বিত করার আশা করছেন ক্লার্ক।

এমন সুযোগটা সব ক্রিকেটার তার ক্যারিয়ারে পান না। ক্লার্ক ভাগ্যবান দেশের মাটিতে মর্যাদার বিশ্বকাপে নিজ দলকে ফাইনালে নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন। যেখানে খেলে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিজেকে চিনিয়েছেন সেখানেই ক্যারিয়ারের ইতি টানার এমন এক উপলক্ষ বিশ্ব ক্রিকেটে কয়জনই বা পেয়েছেন গর্বিত অধিনায়ক হিসেবে। হুট করেই সেই সিদ্ধান্তটা জানিয়ে দিলেন তিনি। শনিবার ক্লার্ক বলেন, ‘আগামীকালই আমার ওয়ানডে খেলা হবে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে। আমি দারুণ কৃতজ্ঞ এবং ধন্য। আমি দেখলাম যে এদিনই আমার ২৪৫ ওয়ানডে ম্যাচ। এটা অনেক বড় সম্মানের এবং বিশেষ অধিকার যে এতগুলো ম্যাচে নিজ দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরেছি। আমি যে সব খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলেছি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ এবং নিজেকে খুবই সৌভাগ্যবান মনে করছি। আমার মনে হয় এটাই নিজের এবং অস্ট্রেলিয়া দলের জন্য উপযুক্ত সময় আমাকে বিদায় দেয়ার। আমি খুবই সৌভাগ্যবান যে চার বছর আগে দলকে নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পেয়েছিলাম। দলকে বিশ্বকাপ ফাইনালে পৌঁছে দেয়ার জন্য সেটা আমার জন্য খুব ভাল প্রস্তুতি ছিল। আমার বিশ্বাস পরবর্তী অধিনায়কেরও এমন সুযোগ পাওয়া উচিত। এটা চিন্তা করা কখনই বাস্তব বিষয় নয় যে আমি পরবর্তী বিশ্বকাপ খেলার জন্য যথেষ্ট ফিট ও স্বাস্থ্যবান থাকতে পারব। এ কারণেই আমার বিশ্বাস ওয়ানডে ছেড়ে দেয়ার এটিই যথার্থ সময়। আমি মনে করি ওয়ানডে ক্রিকেট ছেড়ে দেয়ার জন্য আমি সবচেয়ে ভাল জায়গাটাকে বেছে নিতে পেরেছি। আমি যতদিন খেললাম এর মধ্যে দুটি ফাইনাল ও একটি কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে অস্ট্রেলিয়া।’

ওয়ানডে ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এর পেছনে ইনজুরির বিষয়টাও জড়িত। দীর্ঘদিন ধরে পিঠের ব্যথায় ভুগছেন ক্লার্ক। গত সেপ্টেম্বরে অস্ত্রোপচারও করেছিলেন। সেখান থেকে পুরোপুরি সেরে উঠতে গিয়ে এবার বিশ্বকাপের দুটো ম্যাচেও একাদশে ছিলেন না। তবে টেস্ট খেলাটা চালিয়ে যেতে চান তিনি। এ বিষয়ে ক্লার্ক বলেন, ‘আমি আশাবাদী যে টেস্ট ক্যারিয়ারকে আরও প্রলম্বিত করতে সক্ষম হব। সেটা অবশ্যই আমার কাছে অনেক গুরুত্ব পাবে। টেস্ট ফরমেটে ভাল করে দলকে সাফল্যম-িত রাখতে চাই। আমার ধারণা ওয়ানডে থেকে সরে দাঁড়ানোর কারণে টেস্টে পূর্ণ মনোযোগী হয়ে আরও ভাল কিছু দলকে উপহার দেয়ার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।’ টেস্ট ক্রিকেটকেই সবচেয়ে মর্যাদার ফরমেট হিসেবে ধরা হয়। আর সেটা চালিয়ে যাওয়া আরও বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু এ প্রসঙ্গে ক্লার্কের মন্তব্য, ‘আমি বিশ্বাস করি না ক্রিকেটে টেস্ট ফরমেটটাই কঠিনতম। যদি হয়েও থাকে আমি এমন চ্যালেঞ্জ নিতে ভালবাসি। আমি অবসরের বিষয়টি নিয়ে কারও সঙ্গে আলোচনা করিনি। মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগে সিদ্ধান্তটা নিয়েছি।’ ৩৩ বছর বয়সী ক্লার্ক ২৪৪ ওয়ানডে খেলে ৭ হাজার ৯০৭ রান করেছেন ৪৪.৪২ গড়ে। ৮ সেঞ্চুরির পাশাপাশি আছে ৫৭ হাফসেঞ্চুরি। আর ১০৮ টেস্ট খেলে তিনি করেছেন ৫০.৭৯ গড়ে ৮ হাজার ৪৩২ রান। হাঁকিয়েছেন ২৮ সেঞ্চুরি ও ২৭ হাফসেঞ্চুরি। দলকে ৭৩ ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়ে ৪৯ বার জিতিয়েছেন আর পরাজয় দেখেছেন ২১টিতে। ৪০ টেস্টে অধিনায়কত্ব করে ২০ জয়ের বিপরীতে দেখেছেন ১৩ পরাজয়। টি২০ ফরমেটে ৩৪ ম্যাচে ৪৮৮ রান আছে তার। বাঁহাতি স্পিনার হিসেবেও অনেকবার কার্যকর ভূমিকা রেখেছেন দলের হয়ে। ওয়ানডেতে ৫৭ আর টেস্টে ৩১ উইকেট রয়েছে তার দখলে।

প্রকাশিত : ২৯ মার্চ ২০১৫

২৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: