কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফরিদপুরে কৃষক লীগ নেতার বাড়িতে হামলা

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫
  • মেয়র প্রার্থীও হামলার শিকার

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ২৭ মার্চ ॥ বৃহস্পতিবার রাত ১টা ও আড়াইটার দিকে ফরিদপুর জেলা কৃষক লীগের সভাপতি সৈয়দ কবিরুল আলম মাও-এর গ্রামের বাড়িতে দুই দফা সন্ত্রাসী হামলা হয়। মধুখালী সদরের বনমালী দিয়ায় তার নিজ বাসভবনে জানালা দরজা ও ফ্রিজসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করে সন্ত্রাসীরা। সৈয়দ কবিরুল আলম মাও জানান, সন্ত্রাসীরা তার ঘরের দরজা ও জানালা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে হত্যার উদ্দেশে তাকে খুঁজতে থাকে এবং তাকে অকথ্য ভাষায় গালি গালিগালাজ করেন ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ সময় তিনি টয়লেটের ভেতর লুকিয়ে আত্মরক্ষা করেন। ভাংচুরের শব্দে গ্রামবাসী এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা স্থান ত্যাগ করে। কে বা কারা এই হামলার সঙ্গে জড়িত প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, তাকে হত্যা বা পঙ্গু করার উদ্দেশে কিছু ভাড়াটে পেশাদার সন্ত্রাসীদের কাজ করা হতে পারে। এছাড়া ফরিদপুরের মধুখালী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী শাহাবুদ্দিন আহমেদ তাঁর বাড়িতে ভাংচুর এবং বিএনপি নেতা সাবেক সাংসদ শাহ মোঃ আবু জাফরের ওপর হামলার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে ফরিদপুর প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে সাবেক সাংসদ শাহ মোঃ আবু জাফর উপস্থিত থেকে তার ওপর হামলার বিষয়টি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে মধুখালীতে তার অবস্থানের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। ওই সময় তিনি মেছরদিয়ার মৃত আনোয়ার খানের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। ওই বাড়িতে অবস্থানকালে সাংসদের সন্ত্রাসী বাহিনী বাড়ির প্রধান ফটক ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে। এতে ব্যর্থ হয়ে হামলাকারীরা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

মধুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জেলা কৃষক লীগের সভাপতির বাড়িতে হামলার বিষয়টি স্বীকার করলেও শাহ জাফর ও মেয়র প্রার্থী শাহাবুদ্দীনের বাড়িতে হামলার প্রসঙ্গে বলেন, ‘বিষয়টি এখনও আমার জানা নেই। লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫

২৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: