আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজধানীতে দুই নারীর রহস্যজনক মৃত্যু

প্রকাশিত : ২৭ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর বাড্ডা ও মিরপুরে দুই নারীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বিমানবন্দর এলাকায় একটি ইটভাঙ্গার মেশিন বহনকারী পাওয়ার টিলার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে এক নারীশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। কাফরুলে এক ব্যক্তির গলিত লাশ উদ্ধার হয়েছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মেরুল বাড্ডা এলাকায় শিরিনা আক্তার শিরিন (২২) নামে এক তরুণীর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। নিহতের পরিবার অভিযোগ করেন, শিরিনকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ অভিযোগের ভিত্তিতে নিহতের স্বামী সেলিমকে আটক করেছে পুলিশ। পরে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ শিরিনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বিকেলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। নিহতের গ্রামের বাড়ি নরসিংদী জেলার বেলাবোতে। তিনি স্বামীর সঙ্গে মেরুল বাড্ডার ১৫ নম্বর রোডের মাথায় একটি বাড়িতে বসবাস করতেন। শিরিনের ছোটভাই আবুল কাশেম জানান, সেলিম বখাটে যুবক। কাজ করতেন না। টাকার জন্য স্ত্রীকে মারধর করতেন। তিনি জানান, সাত বছর আগে শিরিনের সঙ্গে সেলিমের বিয়ে হয়। তাদের একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে। আবুল কাশেম জানান, বিয়ের পর থেকেই সেলিম টাকার জন্য শিরিনকে মারধর করতেন। বৃহস্পতিবার সকালেও সেলিম একই কারণে তার স্ত্রী শিরিনকে মারধর করেন। এতে তার মৃত্যু হয়েছে। এরপর সেলিম পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা তাকে আটক করেন। পরে স্থানীয়দের দেয়া খবরের ভিত্তিতেই পুলিশ এসে শিরিনের লাশ উদ্ধার করে। পরে সেলিমকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে বাড্ডা থানার উপ-পরিদর্শক জয়ন্ত কুমার ম-ল জানান, সেলিম মাদকাসক্ত। বুধবার গভীর রাত পর্যন্ত সেলিমের সঙ্গে তার স্ত্রী শিরিনের ঝগড়া হয়। পরদিন সকালে সেলিম প্রতিবেশীদের ডেকে জানায় তার বউ আত্মহত্যা করেছে। এসআই আরও জানান, নিহত শিরিনের গলায় দাগ রয়েছে। তার মৃত্যুর ঘটনা যথেষ্ট সন্দেহ থাকায় ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে আসল ঘটনা জানা যাবে।

একই দিন সকালে মিরপুর থানাধীন উত্তর পীরেরবাগ এলাকার ১০/১ নম্বর ইব্রাহিম কন্ট্রাক্টরের বাড়ির ভাড়াটিয়া লায়লী আক্তার (১৮) নামে এক গার্মেন্টসকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। নিহত লায়লীর বাবার নাম শাহাদাত আলম। গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম থানার কালিম গ্রামে। মিরপুরের ওই বাসায় বোনসহ ভাড়া থাকতেন তিনি। স্থানীয় একটি পোশাক কারখানার কর্মী ছিলেন লায়লী। নিহতের বড় বোন মিনা আক্তার জানান, তারা সবাই একসঙ্গে ওই বাসায় ভাড়া থাকেন। তার বোন লায়লী আক্তার শেওড়াপাড়ার একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। ২৬ মার্চ ছুটি থাকায় ছোট বোন লায়লী ঘুরতে যাবে বলে তাকে জানায়। কিন্তু তাকে বেড়াতে যেতে নিষেধ করা হয়। তিনি আরও জানান, এ সময় তিনি স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে বের হন। বাসায় ফিরে দেখেন লায়লী বিছানায় পড়ে আছে। তিনি তার বোনের গলায় দাগ দেখতে পান। পরে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকের পরামর্শে লায়লীকে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হলে দুপুর ১২টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ জানায়, লায়লীর গলায় দাগ রয়েছে। তার মৃত্যু রহস্যজনক। তদন্ত চলছে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিমানবন্দর থানাধীন বলাকা ভবনের উত্তর পাশ থেকে ইটভাঙ্গার মেশিন বহনকারী একটি পাওয়ার টিলার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে শাহনাজ বেগম (৩৫) নামে এক নারীশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। বিমানবন্দর থানার উপ-পরিদর্শক মেহেদী হাসান জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ইটভাঙ্গার মেশিন বহনকারী একটি পাওয়ার টিলার আব্দুল্লাহপুরে যাচ্ছিল। এ সময় পাওয়ার টিলারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। টিলারে থাকা শ্রমিক শাহনাজ বেগম ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

এছাড়া একই দিন সকালে পুলিশ পুরাতন বিমানবন্দর এলাকায় রানওয়েসংলগ্ন লেক থেকে অজ্ঞাত (২৮) এক ব্যক্তির গলিত লাশ উদ্ধার করে ঢামেক মর্গে পাঠায়। কাফরুল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কৃষ্ণ বিশ্বাস এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, লাশের শরীর পচে ফুলে গিয়েছিল। তার পরনে একটি থ্রি-কোয়ার্টার জিন্স ও গায়ে একসঙ্গে তিনটি গেঞ্জি ছিল।

প্রকাশিত : ২৭ মার্চ ২০১৫

২৭/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: