কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বিক্ষোভ করেনি বিএনপি, জাতীয় স্মৃতিসৌধে আজ যাচ্ছেন না খালেদা

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পূর্ব ঘোষণা দিয়েও বুধবার রাজধানীর কোথাও বিক্ষোভ মিছিল করেনি বিএনপি জোট। এমনকি এ কর্মসূচী পালনের কোন চেষ্টাও করেনি দলের নেতাকর্মীরা। তবে বিচ্ছিন্নভাবে ঢাকার বাইরে কোন কোন জায়গায় ঝটিকা মিছিল বের করার চেষ্টা করলেও পুলিশের হাতে গ্রেফতারের ভয়ে দ্রুত সটকে পড়েছে স্থানীয় নেতাকর্মীরা। এদিকে আজ বৃহস্পতিবার মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাচ্ছেন না বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তবে দলের কিছু নেতাকর্মী জাতীয় স্মৃতিসৌধে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলুর নামে পাঠানো এক বিবৃতিতে সালাউদ্দিন আহমেদসহ সারাদেশে ২০ দলীয় জোটের সব গুমকৃত নেতাকর্মীদের তাদের পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দেয়া, গণগ্রেফতার ও যৌথবাহিনীর নামে বিশেষ বাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধের দাবিতে চলমান অবরোধের পাশাপাশি দেশব্যাপী জেলা, থানা, পৌরসভা ও সব মহানগরের থানায় থানায় বুধবার ২০ বিক্ষোভ মিছিল পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। বিবৃতিতে বিক্ষোভ মিছিল পালন করতে বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীকে অনুরোধও করা হয়। কিন্তু এতে কেউ সাড়া দেয়নি। জানা যায়, বিএনপির বেশকিছু নেতাকর্মী কারাগারে আবার অনেক নেতাকর্মী আত্মগোপনে রয়েছেন। আর যারা এখনও কারাগার বা আত্মগোপনে নেই তাদের মধ্যেও গ্রেফতার আতঙ্ক রয়েছে। তাই পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচী পালন করতে রাজধানীতে মাঠে নামার সাহস দেখায়নি কেউ।

জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাচ্ছেন না খালেদা জিয়া ॥ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাচ্ছেন না বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। জাতীয় স্মৃতিসৌধে গেলে গুলশান কার্যালয়ে পুলিশ তালা ঝুলিয়ে দিতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই তিনি জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাচ্ছেন না বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন। অবশ্য তিন জানুয়ারি থেকে বাসা ছেড়ে গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানের পর ১৯ জানুয়ারি জিয়াউর রহমানের মাজারে এবাং ২১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারেও শ্রদ্ধা জানাতে যাননি খালেদা জিয়া। তবে খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হচ্ছে। ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পরও খালেদা জিয়া গুলশান কার্যালয় থেকে বের হননি।

আদালতের সমন ফেরত দিয়েছেন খালেদা জিয়া ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া এবং তার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি, কোকোর দুই মেয়ে জাফিয়া রহমান ও জাহিয়া রহমানকে সমন দিয়ে ঢাকা মহানগর প্রথম ঋণ আদালত থেকে পাঠানো চারটি চিঠি ফেরত দিয়েছেন খালেদা জিয়া। সোনালী ব্যাংকের দায়ের করা ৪৫ কোটি টাকা খেলাপি ঋণের এ মামলার ওই চারটি সমনের চিঠিই গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ের ঠিকানায় পাঠানো হয়েছিল।

বুধবার বেলা সোয়া ২টায় চিঠিগুলো খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে নিয়ে যান গুলশান-১ পোস্ট অফিসের পোস্টম্যান মোঃ আকবর। তার কাছ থেকে খালেদা জিয়া, শর্মিলা রহমান সিঁথি, জাফিয়া রহমান ও জাহিয়া রহমানের নামে আসা চিঠি চারটি গ্রহণ করে কার্যালয়ের ভেতরে নিয়ে যান গুলশান কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই আবার তা পোস্টম্যানের কাছে ফেরত দেয়া হয়।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষেই হরতাল প্রত্যাহার হয়েছে- ড. মঈন খান ॥ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষেই বিএনপি জোটের হরতাল প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান।

বুধবার সকালে রাজধানীর সিঙ্গাপুর দূতাবাসে গিয়ে আধুনিক সিঙ্গাপুরের জনক লি কুয়ান ইউর মৃত্যুতে বিএনপির পক্ষ থেকে শোক বইতে স্বাক্ষরের পর সাংবাদিকদের কাছে এ কথা জানান তিনি। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ।

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০১৫

২৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: