কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

স্বাধীনতা দিবসে নাশকতা রোধে সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামীকাল মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সারাদেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। নিরাপত্তার কারণে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুর বারোটা থেকে বঙ্গভবনে অনুষ্ঠান চলা পর্যন্ত বঙ্গভবনের আশপাশে যানবাহন চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। বিশেষ নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে রাখা হচ্ছে সাভারে অবস্থিত জাতীয় স্মৃতিসৌধ, গুরুত্বপূর্ণ ভবন, স্থাপনা ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ। দেশের গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক স্থানসহ জনবহুল জায়গাগুলোতে বসানো হয়েছে অতিরিক্ত সিসি ক্যামেরা। ঢাকার প্রবেশ পথগুলোতে ইতোমধ্যেই বাড়তি চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালানো শুরু হয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, এবার মহান স্বাধীনতা দিবসে সারাদেশে পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দাদের পাশাপাশি বাড়তি নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অবরোধ-হরতালের মতো কর্মসূচীকে পুঁজি করে কোন গোষ্ঠী যাতে নাশকতা চালাতে না পারে, এজন্য বাড়তি নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা থাকছে। আপদকালীন মুহূর্ত মোকাবেলায় র‌্যাবের হেলিকপ্টার প্রস্তুত থাকছে। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকছে অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাবসহ গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রবেশ পথে বসানো হচ্ছে একাধিক আর্চওয়ে মেটাল ডিটেক্টর। তার আশপাশে বসানো হচ্ছে অসংখ্য গোপন মুভি ক্যামেরা।

রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রিপরিষদ সদস্যবৃন্দ, প্রধান বিচারপতি, বিচারকগণ, বিদেশী কূটনীতিক, উর্ধতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা, নগরীর বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের নিরাপত্তা জোরদারের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। বাড়তি নিরাপত্তার পাশাপাশি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হচ্ছে যানবাহন চলাচলের উপর। ঢাকার প্রবেশ পথগুলোতে যানবাহনে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। রাজধানীতে বসেছে শতাধিক চেকপোস্ট।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা ও তার আশপাশের স্থান, জাতীয় যাদুঘর, ধানম-ির ঘটনাবহুল ঐতিহাসিক ৩২ নম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাড়ি (বর্তমানে বঙ্গবন্ধু যাদুঘর), সচিবালয়সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাও থাকছে কড়া নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে। এছাড়া বিভিন্ন জায়গায় সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। ক্যামেরাগুলো পুলিশ ও র‌্যাব যৌথভাবে মনিটরিং করছে।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ইতোমধ্যেই সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি জানান, মহান স্বাধীনতা দিবসে সারাদেশে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। সরকারী বেসরকারী নানা ধরনের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য অনেক আগ থেকেই সজাগ দৃষ্টি রাখা হয়েছে। সারাদেশেই গোয়েন্দা নজরদারি চলছে। গুরুত্ব বিবেচনা করে নিরাপত্তা জোরদারের পাশাপাশি বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশের তরফ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন। আপদকালীন মুহূর্ত মোকাবেলায় র‌্যাবের হেলিকপ্টারসহ সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাহিনীটির মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।

বঙ্গ ভবনের আশপাশে যানবাহন চলাচলে বিধি নিষেধ ॥ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বঙ্গ ভবনে প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীবর্গ, সামরিক ও আধা-সামরিক, দেশী-বিদেশী কূটনীতিকবৃন্দ, খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন। আগত অতিথিবৃন্দের যানবাহন সুষ্ঠুভাবে চলাচলের জন্য বঙ্গ ভবনের আশপাশ এলাকায় ২৬ মার্চ দুপুর বারোটা থেকে বঙ্গ ভবনের অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত যানবাহন চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। মঙ্গলবার ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

যেসব রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে ও চলবে ॥ জিরো পয়েন্ট থেকে গুলিস্তান আন্ডারপাস রাজউক ক্রসিং পর্যন্ত সকল প্রকার বাণিজ্যিক যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। আহাদ বক্স হতে ইত্তেফাক পর্যন্ত সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। আলিকো গ্যাপ থেকে দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা ও রাজউক ক্রসিং পর্যন্ত সকল প্রকার গাড়ি প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে। পার্ক রোর্ডের উত্তর মাথা থেকে ইত্তেফাক অভিমুখী কোন প্রকার যানবাহন চলাচল করবে না। দৈনিক বাংলা থেকে রাজউক অভিমুখী ও ২৪ তলা ভবন থেকে রাজউক অভিমুখী বাণিজ্যিক গাড়ি চলাচল করবে না।

শুধু হানিফ ফ্লাইওভার ব্যবহারকারী যানবাহনসমূহ নির্ধারিত সড়ক দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। এছাড়া শাপলা চত্বর ও দৈনিক বাংলা থেকে রাজউক-গুলিস্তানগামী সকল বাস দৈনিক বাংলা, ইউবিএল, প্রেসক্লাব হয়ে যাতায়াত করবে কিংবা অন্য কোন সুবিধাজনক বিকল্প রাস্তায় চলাচল করতে পারবে।

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৫

২৫/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: