আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নেতানিয়াহুর দুঃখ প্রকাশ

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৫
  • ইরানের সঙ্গে পরমাণু আলোচনায় গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ অস্বীকার

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু আরব নাগরিকরা দলে দলে ভোট দিতে আসছে বলে গত সপ্তাহে যে মন্তব্য করেছেন তার জন্য সোমবার দুঃখ প্রকাশ করেছেন। নেতানিয়াহুর ওই মন্তব্যকে বর্ণবাদী বলে ব্যাপকভাবে নিন্দা জানানো হয়। তবে তিনি যে সময় তাঁর জেরুজালেমের বাসভবনে সমবেত একদল ইসরাইলী আরবদের সঙ্গে কথা বলছিলেন তখন হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে নতুন বার্তা জারি করে বলা হয়েছে, প্রচারাভিযানের সময় করা তার মন্তব্যে নেতানিয়াহুর প্রতি তাদের ক্ষুব্ধ অবস্থান বজায় আছে যে সব মন্তব্যে দৃশ্যত ফিলিস্তিনী সংঘাতের দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের দ্বার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

ইসরাইলী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার প্রাক্কালে নেতানিয়াহুর দুটি বিবৃতির জন্য তাঁকে প্রকাশ্যে নিন্দা জানানো হচ্ছে: তিনি থাকতে কোন ফিলিস্তিনী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হবে না এই ঘোষণা এবং ইসরাইলী আরব নাগরিকদের ভোটদানের ব্যাপারে তাঁর ভীতি। উভয় মন্তব্য প্রত্যাহারের জন্য তিনি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, তবে তাতে তেমন কাজ হয়নি।

ওয়াশিংটনে প্রেসিডেন্ট ওবামার চীফ অব স্টাফ ডেনিস ম্যাক ডোনাফ সোমবার এক ভাষণে বলেন, ফিলিস্তিনী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে নেতানিয়াহুর প্রাক-নির্বাচনী ঘোষণা ‘অত্যন্ত উদ্বেগজনক’। এটি ওবামা প্রশাসনের সিনিয়র সদস্যদের একের পর এক প্রকাশ্যে ভর্ৎসনার সর্বশেষ দৃষ্টান্ত। প্রেসিডেন্ট নিজেও প্রধানমন্ত্রীর নিজের সাফাই গাওয়ার চেষ্টা প্রত্যাখ্যান করেছেন। ম্যাক ডোনাফ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির মিত্র ইসরাইলপন্থী গোষ্ঠী জে স্ট্রিটের বার্ষিক সম্মেলনে বলেন, ‘নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি তাঁর অবস্থান পাল্টাননি। তবে ইসরাইল এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অনেক মহলের কাছে এ ধরনের পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানে তাঁর অঙ্গীকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।’

ভোটপর্ব অনুষ্ঠিত হওয়ার পর নেতানিয়াহু বলেন, ইসরাইলী আরব প্রসঙ্গে তিনি যা উল্লেখ করেছেন তা তাদের ভোটদানে নিবৃত্ত করার উদ্দেশে করা হয়নি বরং সেটা ছিল তাঁর নিজের সমর্থকদের ভোটদানে উৎসাহিত করা। তিনি বলেন, একটি ফিলিস্তিনী রাষ্ট্র প্রশ্নে তাঁর মন্তব্যকে ব্যাপকভাবে ভুল বোঝা হয়েছে এবং তিনি এখনও ওই ধারণাকে সমর্থন করেন তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে নয়। নেতানিয়াহু তাঁর বক্তব্য থেকে সরে আসলেও হোয়াইট হাউস তাদের অবস্থানে অনড় থাকে এবং ওবামা শনিবার হাফিংটন পোস্টের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে নেতানিয়াহুর কঠোর সমালোচনা করেন। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জোশ আর্নেস্ট যখন সোমবার বলেন, ইসরাইলী আরবদের প্রসঙ্গে করা মন্তব্যের জন্য নেতানিয়াহুর দুঃখ প্রকাশ যথোচিত হলেও ফিলিস্তিনী প্রশ্নে নেতানিয়াহুর মন্তব্যে প্রশাসনের তরফে নমনীয় হওয়ার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। ম্যাক ডোনাফ বলেন, ‘আমরা স্রেফ এরকম ভান করতে পারি না য্,ে এসব মন্তব্য কখনও করা হয়নি।’ জে স্ট্রিটের ৩ হাজার লোকের সমাবেশে তিনি বলেন, ‘পশ্চিম তীরে ইসরাইলের দখলদারি ‘অবশ্যই বন্ধ’ করতে হবে।

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ অস্বীকার

ছয়টি দেশের সঙ্গে ইরানের পরমাণু আলোচনায় ইসরাইল গুপ্তচরবৃত্তি চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত খবরে এমন অভিযোগ করা হয়েছিল। বর্তমান ও সাবেক মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ওয়াল স্ট্রিট খবরটি দেয়। মার্কিন গোয়েন্দারা ইসরাইলী কর্মকর্তাদের কথোপকথনে আড়ি পেতে নিশ্চিত হন যে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় গোপনে তথ্য সংগ্রহ করেছে। তবে ইসরাইল একে ‘অসত্য’ বলে নাকচ করে দিয়েছে। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আভিদগর লিয়েবার বলেছেন, ‘এ ব্যাপারে আমাদের আগ্রহ আছে সত্য, কিন্তু আমরা যুক্তরাষ্ট্রের ওপর গুপ্তচরবৃত্তি করিনি’। ইসরাইল শুরু থেকেই ইরানের সঙ্গে এ রকম একটি চুক্তির বিরোধিতা করে আসছিল।

প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০১৫

২৫/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: