কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আগামী ১৫ বছরে স্বর্ণের দাম দ্বিগুণ হতে পারে

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ চীন ও ভারতসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে মানুষের আয় ও সম্পদ দিন দিন বাড়ছে। ফলে তাদের স্বর্ণের চাহিদা বেড়ে যাবে। আর চাহিদা বেড়ে গেলে পণ্যটির দামও বাড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে স্বর্ণের দাম আউন্স প্রতি (১ আউন্স= ২.৪৩০৫ ভরি) ২ হাজার ৪০০ মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে; যা বর্তমান বাজার মূল্যের চেয়ে ১ হাজার ৩০০ ডলার বেশি। অর্থাৎ আগামী ১৫ বছরে এশিয়ার বাজারে পণ্যটির দাম দ্বিগুণ হতে পারে।

এটি মার্কিন প্রতিষ্ঠান কিটকো গোল্ডের গত বছরের দেয়া পূর্বাভাসের প্রায় বিপরীত। প্রতিষ্ঠানটি অবশ্য মাত্র এক বছরের জন্য ওই পূর্বাভাস দিয়েছিল। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারে আউন্স প্রতি স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ১০০ মার্কিন ডলার।

তেমনটি হলে এই সময়ের মধ্যে বাংলাদেশেও স্বর্ণের দাম দ্বিগুণ হতে পারে। অর্থাৎ ২০৩০ সাল নাগাদ বর্তমানে ভরি প্রতি সাড়ে ৪৪ হাজারের স্বর্ণ কিনতে হতে পারে প্রায় ৯০ হাজার বা তার বেশি টাকায়।

এক গবেষণায় সম্প্রতি এই পূর্বাভাসের কথা জানিয়েছে দ্য অস্ট্রেলিয়া এ্যান্ড নিউজিল্যান্ড ব্যাংকিং গ্রুপ লিমিটেড (এএনজেট)।

প্রসঙ্গত, গত বছরের শেষ দিকে স্বর্ণের দামের ব্যাপারে এক পূর্বাভাস দেয় মার্কিন সংস্থা কিটকো গোল্ড। সেখানে তারা জানায়, চলতি বছর আন্তর্জাতিক মুদ্রাবাজারে মার্কিন ডলার শক্তিশালী হতে পারে। আর সে কারণে স্বর্ণের দাম কমতে পারে। সেই হিসাবে ডলার ও টাকার বিনিময় হার অনুযায়ী বাংলাদেশের বাজারে পণ্যটির দাম ভরিতে ১২ হাজার টাকা পর্যন্ত কমে ঠেকতে পারে ৩২ হাজার টাকায়। যদিও তা এখনও হয়নি।

গবেষক দলের সদস্য, সংস্থার প্রধান অর্থনীতিবিদ ওয়ারেন হোগান বলেন, এশিয়ায় সম্পদের বৃদ্ধি স্বর্ণের বাজারে ব্যাপক প্রভাব ফেলবে। এ অঞ্চলে যেহেতু মানুষের আয় বাড়ছে, সেহেতু তাদের স্বর্ণ-অলংকারের চাহিদা বেড়ে যাবে। বিশেষ করে মধ্যবিত্ত ও পেশাজীবী শ্রেণীর মানুষের মধ্যে এই চাহিদাটা তৈরি হবে বেশি। এছাড়া আঞ্চলিক কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো তাদের মুদ্রা সংশ্লিষ্ট স্বার্থ রক্ষায় অধিক স্বর্ণ কিনে রাখবে। মূলত এসব কারণে আগামীতে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামে উলম্ফন ঘটবে বলে মনে করেন তিনি।

এএনজেটের প্রতিবেদনে বলা হয়, তাদের পূর্বাভাস- চীন, ভারত, জাপান, ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামে স্বর্ণের চাহিদা দ্বিগুণ হতে পারে।

অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটাতে গ্রিস পেল ২শ’ কোটি ইউরো

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গ্রিসের অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটাতে দেশটিকে দুই শ’ কোটি ইউরো সাহায্যের অঙ্গীকার করেছে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন (ইইউ)। শুক্রবার ইইউর প্রধান জিন ক্লড জাঙ্কার বলেছেন, ‘গ্রিসের সামাজিক সংযোগ ও উন্নয়নে এ অর্থ ব্যয় করা হবে।’ ব্রাসেলসে ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ সম্মেলনে গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সিস সিপ্রাস, জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যান্য নেতাদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পর গ্রিসকে সহায়তার এ ঘোষণা দেন জাঙ্কার।

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

২৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: