আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চাপ নিচ্ছেন না ম্যাককুলাম

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

জিএম. মোস্তফা ॥ বিশ্ব ক্রিকেটের শক্তিশালী দলগুলোর মধ্যে নিউজিল্যান্ড অন্যতম। কিন্তু দুভার্গ্য ব্ল্যাক ক্যাপসদের। এখনও স্বপ্নের বিশ্বকাপটা জেতা হয়নি তাদের। তবে একাদশতম আসরে সেই আক্ষেপ ঘুচাতে মরিয়া ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের দল। সেই লক্ষ্যেই সেমিফাইনালের বাধা পেরুতে অকল্যান্ডে আজ মাঠে নামছে তারা। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে দারুণ আত্মবিশ্বাসী নিউজিল্যান্ড। বিশেষ করে কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় পাওয়া আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে গেছে তাদের। তাই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচের আগে মোটেই চাপ নিচ্ছেন না ব্ল্যাক ক্যাপসদের অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম।

এ বিষয়ে ম্যাচের আগের সংবাদ সম্মেলনে কিউ অধিনায়ক বলেন, ‘শেষ ম্যাচে আমাদের পারফরমেন্স ছিল দুর্দান্ত। সেই ম্যাচেও আমাদের উপর যথেষ্ট চাপ ছিল। কিন্তু সেই চাপ কাটিয়েই জয় ছিনিয়ে নিয়ে এসেছি আমরা। আশা করি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচেও চাপ সামলিয়ে প্রত্যাশা মিটাতে সক্ষম হবে দল।’

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের প্রথম ছয় ম্যাচের সবকটিতেই জয়ের দেখা পায় নিউজিল্যান্ড। যে কারণে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে তারা। শুধু তাই নয়, কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকেও উড়িয়ে দিয়ে জয় নিশ্চিত করে ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের দল। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষেই জ্বলে উঠেন কিউই ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল। বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরির মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি। এর আগে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ২১৫ করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দানবীয় ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। আর সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচেই গেইলকে ছাড়িয়ে যান মার্টিন গাপটিল। শেষ পর্যন্ত ২৩৭ রানে অপরাজিত থাকেন গাপটিল। আর সেমিফাইনালে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ম্যাচেও কিউই অধিনায়ক ম্যাককুলামের ভরসার নাম গাপটিল। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে আমাদের দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমি মনে করি টুর্নামেন্টে দলকে দেয়ার জন্য আরও কিছু বাকি আছে তার।’

তবে বিশ্বকাপের আগেও নিস্প্রভ ছিলেন মার্টিন গাপটিল। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজটা একেবারেই বাজেভাবে কেটেছে তার। কিন্তু তারপরও গাপটিলের প্রতি আস্থা হারাননি কিউই অধিনায়ক। তার ফলই বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে গাপটিলের দুর্দান্ত পারফরমেন্স। বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০৫ রানের ঝলমলে এক ইনিংস উপহার দেন তিনি। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দেশের ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপে ডাবল সেঞ্চুরির মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।

তবে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে মার্টিন গাপটিলের পারফরমেন্স একেবারেই বাজে। শেষ ১১ ম্যাচে তার মোট রান মাত্র ১১৫। এই সময়ের মধ্যে তার সর্বোচ্চ রান ৫৮। ২০১২ সালে নেপিয়ারে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অর্ধশতক করেছিলেন তিনি। এরপর প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আর কখনই মেলে ধরতে পারেননি ২৮ বছর বয়সী এই কিউই ব্যাটসম্যান। তবে দীর্ঘ ক্যারিয়ারে না পারলেও আজ অকল্যান্ডে গাপটিল জ্বলে উঠবেন বলে বিশ্বাস করছেন ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম। গাপটিলও অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিতে মরিয়া। বিশ্বকাপের প্রথম সাত ম্যাচ শেষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় সবার উপরে অবস্থান করছেন শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা। ৭ ইনিংসে তার দখলে মোট ৫৪১ রান। এর পরই অবস্থান করছেন মার্টিন গাপটিল। সমান সংখ্যক ম্যাচে তার সংগ্রহ ৪৯৮ রান। এবার তার চ্যালেঞ্জ সাঙ্গাকারাকে ছাড়িয়ে শীর্ষস্থানটা দখল করার। কেননা কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে শ্রীলঙ্কা ইতোমধ্যেই বিদায় নিয়েছে।

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ ২০১৫

২৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: