আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মানবিক বিভাগ

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
  • সময় ধরে লেখ

কাবেরী রায়

সহকারী অধ্যাপক, অর্থনীতি

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারী

কলেজ, উত্তরা, ঢাকা

সুপ্রিয় এইচএসসি পরীক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নাও। আমি তোমাদের অর্থনীতি বিষয়ে ভাল নম্বর পেতে হলে কি করা উচিত সে বিষয়ে কিছু দিকনির্দেশনা দিব। আশা করছি বিষয়ভিত্তিক জ্ঞান ও নির্ধারিত নিয়ম-কানুন মেনে পরীক্ষার খাতায় লিখতে পারলে তোমরা অবশ্যই ভাল ফলাফল করবে।

তোমরা নিশ্চয়ই জান, অর্থনীতি প্রথম পত্র ও দ্বিতীয় পত্র উভয়টিতেই ক বিভাগে ৯টি রচনামূলক প্রশ্নের মধ্যে ৬টির উত্তর করতে হয় (১০৬ = ৬০) এবং খ বিভাগে ১২টি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের মধ্যে ৮টি (৮ ৫ = ৪০) প্রশ্নের উত্তর করতে হয়। এজন্য প্রথমত, অবশ্যই প্রথম পত্র এবং দ্বিতীয় পত্রের নির্ধারিত দশটি অধ্যায় থেকে গুরুত্বপূর্ণ বড় প্রশ্ন এবং ছোট প্রশ্নগুলো ভাল করে পড়বে। যদি আমরা সময় ভাগ করে নেই, তাহলে তুমি ১টি বড় প্রশ্নের জন্য সর্বোচ্চ ২০ মিনিটি এবং একটি ছোট প্রশ্নের জন্য সর্বোচ্চ ৫ থেকে ৬ মিনিট সময় পাবে। সে অনুযায়ী তোমরা প্রশ্নগুলোর উত্তর করবে এবং উত্তরের মূল বিষয় যাতে সুনির্দিষ্ট হয় সেদিকে খেয়াল রাখবে।

যেসব বড় প্রশ্নের উত্তর পয়েন্ট আকারে লিখতে হয় সেগুলোর ক্ষেত্রে পয়েন্টগুলো ভাল করে ভেবে নির্বাচন কর। লেখার সময় সব পয়েন্টের বর্ণনার প্রয়োজন নেই। ৬ থেকে ৭টি পয়েন্টের বর্ণনা দাও, বাকিগুলো সর্বোচ্চ এক লাইনের পয়েন্ট এ লিখে দাও। তাতে বেশি পয়েন্ট আনতে পারবে। ছোট প্রশ্নের ক্ষেত্রে যত বেশি সম্ভব (৫ মিনিটে) পয়েন্ট দাও।

অর্থনীতিতে চিত্র একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। চিত্র নির্ভর প্রশ্নের উত্তর দেয়ার সময় অবশ্যই চিত্র পৃষ্ঠার শুরু অথবা মাঝামাঝিতে রাখবে, নিচে নয়। চিত্র বর্ণনার শুরুতে চিত্র পরিচিতি উল্লেখ করতে হয়। সেক্ষেত্রে চিত্রের ভূমি অক্ষ, লম্ব অক্ষ এবং চিত্রটি কিসের তা চিত্রের পাশে অথবা নিচে আলাদা করে উল্লেখ করতে হয়। এছাড়া চিত্রটি কীভাবে আঁকা হলো এবং কেন চিত্রটি এই ঝযধঢ়ব (আকৃতি) এর হলো তার একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিলে অধিক নম্বর পাওয়া যাবে ।

বাসায় চিত্র বার বার এঁকে ঠিক করে নেবে এবং বর্ণনা দেখে নেবে। সমালোচনা থাকলে তা সংক্ষিপ্ত আকারে লিখে দেবে। মনে রেখ, চিত্র নির্ভর একটি বড় প্রশ্ন লিখতে ২০ মিনিটের বেশি সময় লাগতে পারে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই এর সঙ্গে তোমাকে এমন একটি প্রশ্ন বেছে নিতে হবে যা ২০ মিনিটের কম সময় লিখে শেষ করা যাবে। সেজন্য কোন প্রশ্নের উত্তর লিখতে কত সময় লাগতে পারে তার একটি ধারণা তোমার আগে থেকেই রাখা ভাল। তাহলে পরীক্ষার হলে কোন কোন প্রশ্নগুলো লিখবে তা প্রশ্নপত্র হাতে পেয়েই ঠিক করে নিতে পারবে এবং যথাযথভাবে সকল প্রশ্নের উত্তর করা (ঋঁষষ ধহংবিৎ) সম্ভব হবে। মনে রাখবে, বড় প্রশ্নের চেয়ে ছোট প্রশ্নের মাধ্যমে নম্বর বেশি তোলা সম্ভব। সেজন্য অবশ্যই ছোট প্রশ্নের প্রতি যতœবান হও। প্রশ্নের উত্তরগুলো ঠিকভাবে সাজানো হলো কিনা তা দেখে নাও। কোন ছোট প্রশ্নের যদি চিত্র থেকে থাকে তবে উত্তর লেখার সময় এক পাশে চিত্র দিয়ে দাও। এ ক্ষেত্রে বর্ণনা না দিলেও চলবে। তবে অবশ্যই উত্তরের মূল কথাটুকু লেখা হলো কিনা তা খেয়াল রাখবে। উত্তরের শেষে এক লাইনের একটি মূল্যায়ন বা মন্তব্য দিতে পার। যেমনÑ চাহিদা রেখা লিখতে মূল আলোচনার মাঝখানে চিত্রটি দিয়ে দাও। আর লেখা শেষে মূল্যায়ন বা মন্তব্য এরূপ লিখতে পার ‘দাম স্থির থেকে অন্যান্য অবস্থার পরিবর্তন ঘটলে চাহিদা রেখার ঢাল পরিবর্তন হয়।’

প্রিয় ছাত্রছাত্রীরা, মনে রাখবে তোমাকে ৩ ঘণ্টায় ৬টি রচনামূলক প্রশ্ন এবং ৮টি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের উত্তর লিখতে হবে। সেক্ষেত্রে, তোমার সব প্রশ্নের উত্তরে মূল বক্তব্য (বডি) এবং সমালোচনা, চিত্র এগুলো সঠিকভাবে সাজানো আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নাও। সূত্র এবং ডাটাগুলো সালসহ ভাল করে আত্মস্থ করে নাও।

আর একটি বিষয় পরীক্ষার হলে লেখার সময় তুমি কোন পয়েন্ট ভুলে যেতে পার। ফলে যাতে বসে না থাকতে হয় সেজন্য তুমি বেশি বেশি পয়েন্ট আত্মস্থ করবে। তাতে পয়েন্ট লিখতে কোন সমস্যা হবে না। ছোট প্রশ্ন দিয়ে প্রথমে উত্তর লেখা শুরু করতে পার। অবশ্যই ঘড়ির দিকে নজর রাখবে। কোন প্রশ্নে বেশি সময় লেগে গেলে পরের উত্তরে তা পুষিয়ে নেয়ার (গধশব ঁঢ়) চেষ্টা করবে। এজন্য সময় শুরুতে ভাগ করে নেবে। এগুলো বাসায় এখনই চৎধপঃরপব করে নাও।

অর্থনীতিবিদদের সংজ্ঞা বা কমেন্টসগুলো যাতে যথাযথ হয় সেজন্য বার বার পড়ে আত্মস্থ কর। চিত্র অঙ্কন করার সময় যাতে ঘষামাজা না হয় সেজন্য বাসায় বার বার স্কেল ছাড়া চিত্র আঁক। তাতে পরীক্ষার হলে সময় কম লাগবে এবং রিভিশন দেয়ার বেশি সময় পাবে। লিখতে কোন ভুল হলে এক দাগে কেঁটে দাও। আর প্রতিটি প্রশ্ন অবশ্যই নতুন পৃষ্ঠার শুরু থেকে শুরু কর। আবারও বলছিÑ চিত্র, ঞধনষব, অর্থনীতিবিদদের কোটেশন ও সংজ্ঞা, সূত্র এবং ফধঃধ গুলো ভাল করে দেখে নেবে। প্রশ্নপত্র হাতে পাওয়ার পর ধীরস্থিরভাবে পুরো প্রশ্নটি দেখে সিদ্ধান্ত নাও কোনটি আগে লিখবে। সময়ের প্রতি নজর রাখবে এবং শেষ ঘণ্টা বাজার ৫ থেকে ১০ মিনিট আগে লেখা শেষ করবে যাতে খাতাটি ভালভাবে রিভিশন (ৎবারংরড়হ) করতে পার।

পরিশেষে তোমাদের ভাল ফলাফল ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: