আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
  • প্রশ্নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করবে

মোঃ ফয়েজুল হাসান

বিভাগীয় প্রধান, হিসাববিজ্ঞান বিভাগ

খিলগাঁও মডেল কলেজ, ঢাকা

সৃজনশীল পদ্ধতিতে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ের প্রশ্নের উত্তর করার জন্য প্রথমে তোমাকে তোমার সিলেবাস সম্পর্কে পূর্ণ ধারণা নিতে হবে এবং সিলেবাস অনুযায়ী প্রতিটি প্রশ্নের মান বণ্টনসহ প্রতিটি বিভাগে কয়টি করে প্রশ্নের উত্তর করতে হবে তা ভালো করে জেনে নেয়া। যেমন প্রথমে নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন থাকবে ৪০টি, প্রতিটির জন্য ১ নম্বর (৪০১)=৪০ নম্বর। ক বিভাগে থাকবে ২টি আবশ্যিক প্রশ্ন প্রতিটি ১০ নম্বর করে, (১০২)=২০ নম্বর। খ বিভাগে থাকবে ৬টি প্রশ্ন উত্তর করতে হবে ৪টি, প্রতিটি ১০ নম্বর (১০৪)=৪০ নম্বর। সর্বমোট ১০০ নম্বর। এক্ষেত্রে তোমাদেরকে ৩ ঘণ্টা সময় এমনভাবে ভাগ করে নিতে হবে যাতে নির্ধারিত সময়ের সাথে সমন্বয় করে ১০০ নম্বরের উত্তর শেষ করা যায়। যেমন : খাতা পাওয়ার পর ১ম ৫ মিনিট সময় ব্যয় হবে বৃত্ত ভরাট ও অন্যান্য কাজের জন্য। নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তর করার জন্য ৪০টির জন্য ৩৫ মিনিট সময় বরাদ্দ রাখতে হবে। ক বিভাগের জন্য ১০ নম্বরের ২টি আবশ্যিক প্রশ্নের উত্তর করার জন্য (২৫মি:+২৫মি:)=৫০মিনিট সময় বরাদ্দ রাখতে হবে। কারণ এ ক্ষেত্রে চূড়ান্ত হিসাবের ২টি অংশ যেমন: লাভ লোকসান হি এবং উদ্বৃত্ত পত্রের মতো দুটি আলাদা প্রশ্ন থাকতে পারে। অবশিষ্ট ৪টি প্রশ্নের উত্তর করার জন্য বরাদ্দ রাখতে হবে (৪২০ মি:)=৮০মিনিট। এ ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে প্রতিটি প্রশ্নের মান হবে ১০ নম্বর। তবে ১০ নম্বরের প্রশ্নের উত্তর সৃজনশীল পদ্ধতি মোতাবেক (২+৪+৪) নম্বরের ভিত্তিতে ৩টি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। এই ৩টি প্রশ্নের উত্তর মোট ২০ মিনিটের মধ্যে শেষ করতে হবে। অর্থাৎ এভাবে খ বিভাগে সর্বমোট ৮০ মিনিটের মধ্যে ৪টি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। এ পর্যন্ত সময় ব্যয় হবে মোট (৫মি:+৩৫মি:+৫০মি:+৮০মি:)=১৭০মিনিট। আর বাকি থাকবে ১০ মিনিট। এই ১০ মিনিট থাকবে রিভিশন দেয়ার জন্য। এভাবে সময়ের সাথে প্রশ্নের উত্তরগুলো সমন্বয় করে যদি সব প্রশ্নের উত্তর করা যায়, তাহলে নিশ্চিতভাবে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে অ+ পাওয়া যাবে। ব্যবসায় শিক্ষায় হিসাববিজ্ঞান বিষয়ের প্রিয় পরীক্ষার্থী ছাত্র/ছাত্রীদের প্রতি আমার উপদেশ থাকবে, আমি যেভাবে প্রশ্নের মান ও সময় বণ্টন করে দিলাম ঠিক অনুরূপভাবে কালবিলম্ব না করে তোমরা টেস্ট পেপার ধরে ধরে ১ দিন পর পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ১টি করে মডেল টেস্ট দিবে। এবং খাতাগুলো কোন অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা মূল্যায়ন করে নিবে। তবেই তোমরা কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে। এ নিয়মটি তোমরা হিসাববিজ্ঞান ১ম এবং ২য় পত্রের ক্ষেত্রে সমানভাবে প্রয়োগ করবে। তা ছাড়াও আরও কিছু পরামর্শ তোমাদের জন্য দেয়া হলো: (১) পরীক্ষার পূর্বরাত্রে রাত জেগে বেশি সময় পড়বে না। (২) তোমার কাছে যে উত্তরটি সহজ এবং অল্প সময়ে শেষ করা যাবে তা প্রথমে উত্তর করবে। (৩) সকল প্রশ্নের উত্তরের মান যাতে সমান হয় সে দিকে দৃষ্টি দিবে। (৪) কোন উত্তর জানা না থাকলেও সৃজনশীল মেধা প্রয়োগ করে সকল প্রশ্নের উত্তর করে আসবে। (৫) খাতা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখবে। (৬) লেখা স্পষ্ট ও বড় বড় করে লিখবে এবং যেখানে প্যারা করার প্রয়োজন সেখানে প্যারা করে লিখবে। (৭) প্রশ্নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করবে। এক প্রশ্নের উত্তর ১ম পাতায় পরের প্রশ্নের উত্তর শেষ পাতায়, এ ধরনের যাতে না হয় সে দিকে দৃষ্টি দিবে। মনে রাখবে প্রশ্নের ধারাবাহিকতা না থাকলে পরীক্ষকের নিকট নম্বর বাদ পড়ে যেতে পারে। (৮) পরীক্ষক যাতে তোমার লেখা সহজে পড়তে পারে, এবং বোধগম্য হয় এমন সতর্কতা অবলম্বন করে প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। মনে রাখবে পরীক্ষক সবসময় ছাত্র/ছাত্রীদের প্রতি উদার মনোভাব পোষণ করে। পরীক্ষক সুযোগ পেলেই নম্বর দিতে চায়। তাই তোমরা কোন প্রশ্নের উত্তর বাদ দিবে না।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: