মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মান অনুযায়ী উত্তর দেবে

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

রীক্ষায় ভাল করার প্রথম ও প্রধান উপায় সময়ের সদ্ব্যবহার ও বুদ্ধিমত্তার সঠিক প্রয়োগ।

বাংলা ১ম পত্রের ক্ষেত্রে তোমাদের গদ্য-পদ্য সকল বিষয়কেই সমান গুরুত্ব দিতে হবে। যেহেতু নৈর্ব্যত্তিক প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে তাই তোমরা গদ্যগুলোর শব্দার্থ, টীকা মনোযোগ দিয়ে পড়বে। এক্ষেত্রে বোর্ড বই পড়ার কোন বিকল্প নেই এবং উপন্যাসের ক্ষেত্রে সাজেশন্সভিত্তিক প্রশ্নগুলো ভাল করে পড়বে।

দ্বিতীয় পত্রের ক্ষেত্রে তোমরা অবশ্যই প্রথমে ব্যাকরণ অংশের উত্তর দেবে। এক্ষেত্রে জানা প্রশ্নের উত্তরগুলো আগে দিবে। বিশেষ করে ব্যাকরণে প্রকৃতি প্রত্যয়, সমাস, সমার্থক শব্দ, বিপরীতার্থক শব্দ, পারিভাষিক শব্দ, শুদ্ধ বানান ইত্যাদি। প্রশ্নগুলোর উত্তর আগে দেবে। কারণ এখানে শুদ্ধ হলে নম্বর কাটার সুযোগ নেই, এর পরে চিঠি আবেদনপত্র, ভাষণ প্রতিবেদন, ভাব-সম্প্রসারণ দেয়ার চেষ্টা করবে এবং সবশেষে নাটকের প্রশ্ন ও রচনার উত্তর দেবে। সবশেষে উত্তরপত্র জমা দেয়ার অন্তত ১০ মিনিট পূর্বে লেখা শেষ করে উত্তরপত্রটি বার বার পড়বে যাতে মনের অজান্তে করে ফেলা ভুলগুলো তুমি শুদ্ধ করতে পার।

পরীক্ষার হলে খাতা পেয়ে নাম, রোল নম্বর, রেজি. নং, বিষয়কোড, সতর্কতার সঙ্গে পূরণ করবে। যদি ভুল হয় কাটাকাটি না করে হলো পরিদর্শকের পরামর্শ নেবে। এরপর প্রশ্ন পেয়ে প্রশ্নটি কয়েকবার পড়ে উত্তর দিতে শুরু করবে। এক্ষেত্রে অধিক জানা প্রশ্নগুলো প্রথমে মোটামুটি জানা প্রশ্নগুলো তারপরে এবং একদম কম জানা প্রশ্নগুলোর উত্তর শেষে দেবে। তবে খেয়াল রাখবে কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে যেন বাদ না পড়ে। এখানে উল্লেখ্য, মান অনুযায়ী প্রশ্নের উত্তরগুলো সমান দৈর্ঘ্যরে হওয়া বাঞ্ছনীয়।

সাঈদ উর রহমান

প্রভাষক, মাইলস্টোন কলেজ

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: