মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মহিউদ্দিনের বাসভবনে নাছির, নাগরিক কমিটির ব্যানারেই নির্বাচন

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫
মহিউদ্দিনের বাসভবনে নাছির, নাগরিক কমিটির ব্যানারেই নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ মনোনয়নপত্র গ্রহণের সময় রয়েছে আর মাত্র এক সপ্তাহ। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী রবিবার পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি। বিষয়টা এমন হয়েছে যারা করতে চাচ্ছেন তারা চূড়ান্ত সিগন্যাল পাচ্ছেন না। আর যারা চাচ্ছেন না তারা তাদের ইচ্ছা ব্যক্ত করছেন না। এ ধরনের পরিস্থিতিতে সরকারী দল আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন মনোনয়নপত্র গ্রহণপূর্ব কার্যক্রম গুছিয়ে নিচ্ছেন। অপরদিকে, জাতীয় পার্টির পক্ষে মেয়র পদে প্রার্থী হচ্ছেন সোলায়মান আলম শেঠ। পাশাপাশি জামায়াত মেয়র পদে কোন প্রার্থী দেয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে ৪১ ওয়ার্ডে তারা এককভাবে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। এদিকে, শনিবার রাত পর্যন্ত নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী তার সমর্থকদের কাছে নির্বাচন করার জন্য ব্যাপক চাপের মুখে থাকলেও তিনি তাতে সায় না দেয়ায় সকলেই চুপসে গেছেন। রবিবার সকালে দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন দেখা করতে যান মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাস ভবনে। নাছির তার পা ছুঁয়ে সালাম করে দোয়া চান। মহিউদ্দিন চৌধুরীও পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেন দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনি নাছিরের জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছু করবেন এবং তার সমর্থকরাও এতে নিয়োজিত থাকবেন। এ নিয়ে আর কোন সন্দেহের অবকাশ নেই। এরপর আ জ ম নাছির উদ্দিন অন্যান্য বিভিন্ন সংগঠন নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পৃথক পৃথক বৈঠক করে তার পক্ষে বিজয় নিশ্চিত করার জন্য আহ্বান জানান। এদিকে, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে তা অনেকটা নিশ্চিত। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা যেমন আসেনি তেমনি প্রার্থিতাও নিশ্চিত করেনি। চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর সঙ্গে লড়াই করে বিজয় নিশ্চিত করতে দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা চাচ্ছেন সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান ও আমীর খসরুর যে কোন একজনকে। কিন্তু আমীর খসরু রবিবারও তার ঘনিষ্ঠজনদের জানিয়ে দিয়েছেন মেয়র পদে নির্বাচনে মোটেই আগ্রহী নন। পাশাপাশি আবদুল্লাহ আল নোমানেরও খুব বেশি আগ্রহ নেই বলে জানা গেছে। তবে কেন্দ্র চূড়ান্তভাবে তাকে সিদ্ধান্ত দিলে তিনি হয়ত বা শেষ পর্যন্ত মেয়র নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন। অপরদিকে, বিএনপির বর্তমান চসিক মেয়র এম মনজুর আলম এবং নগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ শাহাদাত হোসেন মেয়র পদে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক। কিন্তু তারা এখনও কোন সিগন্যাল পাচ্ছেন না। এদিকে, রবিবার পর্যন্ত চসিক নির্বাচনে প্রার্থিতার জন্য মোট ২৬৪ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এরমধ্যে মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর ২৩৫, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ২৪ জন। এ পর্যন্ত যারা মেয়র পদে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেছেন তারা হলেন Ñজাতীয় পার্টির সোলায়মান আলম শেঠ, স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফ মঈন উদ্দিন, গাজী মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, ফখরুদ্দীন চৌধুরী এবং গোলাম ইয়াজদানি।

আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ॥ চসিক নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ৫০১ সদস্যবিশিষ্ট একটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এ কমিটির আহ্বায়ক থাকবেন সাবেক গণপরিষদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য ইসহাক মিয়া ও সদস্য সচিব হবেন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। এছাড়া কর্পোরেশন এলাকার ৬টি থানায় ১১০ সদস্য করে নির্বাচনী কমিটি গঠন করা হবে। প্রতিটি কমিটিতে স্থানীয় সংসদ সদস্যকে প্রধান করা হবে।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৫

২৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: