আংশিক রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২০ জানুয়ারী ২০১৭, ৭ মাঘ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এবার সেরা চারের শিরোপা জয়ের লড়াই

প্রকাশিত : ২২ মার্চ ২০১৫
  • ২৪ মার্চ প্রথম সেমিতে মুখোমুখি দক্ষিণ আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত মাসে বিশ্বের ১৪ দল নিয়ে শুরু হয়েছিল বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উন্মাদনা। এখন সেই উত্তেজনা অন্তিম মুহূর্ত ঘনিয়ে এসেছে। টিকে আছে চার দল। শনিবার শেষ হয়েছে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। এবার সেমিফাইনালের লড়াই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে অবতীর্ণ হওয়ার সুযোগ করে নিতে। ইতোমধ্যেই বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত, চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, এর আগে ৬ বার সেমি খেলা নিউজিল্যান্ড ও ৩ বার সেমি খেলা দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিতীয় সেমিতে আগামী বৃহস্পতিবার সিডনিতে মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া-ভারত। আর প্রথম সেমিতে মঙ্গলবার অকল্যান্ডে মুখোমুখি হবে বিশ্বকাপে প্রথমবার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ড। বরাবরই এ দুটি দলের পিঠে ‘সেমিফাইনালের দল’ তকমাটা লেগে আছে। কিন্তু এবারই সেই দুঃসহ বেদনা থেকে মুক্তি পাবে একটি দল। ব্যাটে-বলের নৈপুণ্যে গ্রুপ পর্বেই যে ক্রিকেটাররা এগিয়ে গেছেন এখন তাদের মধ্যে লড়াই সেরা থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করার। মাত্র দুটি ম্যাচ পাবেন যে কোন দুই দলের ক্রিকেটাররা নিজেকে আরও এগিয়ে নেয়ার জন্য। রান করার দিক থেকে অবশ্য বিদায় নেয়া দল শ্রীলঙ্কার অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা (৫৪১) এগিয়ে আছেন। আর বোলিংয়ে কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট (১৯) এগিয়ে আছেন।

গ্রুপ পর্বের প্রথম দিকে কিছুটা একেপেশে লড়াই দেখা গেলেও বিশ্বকাপের তৃতীয় দিনেই উত্তাপ বাড়িয়ে দিয়েছিল এবার আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ আয়ারল্যান্ড। ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে তারা হারিয়ে দেয় শক্তিশালী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। আর ‘এ’ গ্রুপে চমক দেখায় বাংলাদেশ। সবমিলিয়ে দারুণ জমে ওঠে শেষ পর্যায়ে গ্রুপ পর্বের লড়াই। শেষ পর্যন্ত গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় অন্যতম টেস্ট খেলুড়ে শক্তিশালী দল ইংল্যান্ড। আর কোয়ার্টার ফাইনালে লড়াই শেষে ছিটকে গেছে অন্যতম ফেবারিট গত দুই আসরের রানার্সআপ ও ১৯৯৬ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কা। প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা বাংলাদেশ, ১৯৯২ সালে প্রথমবার অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের শিরোপাজয়ী পাকিস্তান এবং প্রথম দুটি বিশ্বকাপ আসরের শিরোপাধারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

প্রথম থেকেই এবার বিশ্বকাপের অন্যতম হটফেবারিট হিসেবে ধরে নেয়া হয়েছিল দুই আয়োজক অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতকে। এ চার দলই উঠেছে শেষ চারে। এর অর্থ এবার আগে ভাগেই হটফেবারিট ধরে নেয়া দলের ঘরেই উঠছে শিরোপা। তবে এখানেই থেমে যাবে দুটি দলের অগ্রযাত্রা। এর আগে যেমন ৬ বার তিক্ত অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছে নিউজিল্যান্ড। ১৯৭৫, ১৯৭৯, ১৯৯২, ১৯৯৯, ২০০৭ ও ২০১১ বিশ্বকাপের সেমিতে ওঠে দলটি। কিন্তু সেখান থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে। এতবার আর কোন দল বিশ্বকাপের সেমি থেকে বিদায় নেয়নি। তাই দুঃখটা সবচেয়ে বেশি তাদেরই। সবচেয়ে যন্ত্রণাদায়ক অধ্যায় ছিল তাদের জন্য ১৯৯২ বিশ্বকাপের সেমিতে ঘরের মাঠ অকল্যান্ডে পাকিস্তানের কাছে হেরে বিদায় নেয়া। সেবারও দুরন্ত নিউজিল্যান্ড শিরোপা জয়ের ফেবারিট হয়েও হতাশার পরাজয়টা দেখেছিল। ২৩ বছর পর আবার সেই অকল্যান্ড। এবার সেমিতে তাদের জন্য সুখকর একটি বিষয় হতে পারে প্রতিপক্ষের নাম। শেষ চারে কিউইদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। পুরো টুর্নামেন্টে দারুণ খেলেও সেমি, কোয়ার্টার এসব ম্যাচে মূর্খতা দেখিয়ে হারার জন্য ‘চোকার্স’ দুর্নামটা তাদের সঙ্গে সেঁটেই আছে।

দক্ষিণ আফ্রিকাও নিউজিল্যান্ডের চেয়ে কোন অংশে কম যায় না। ১৯৭৫ থেকে ১৯৮৭ পর্যন্ত হওয়া চার বিশ্বকাপে খেলতে পারেনি দলটি আইসিসির সদস্য না হওয়ায়। তবে ১৯৯২ সালে প্রথমবার অংশ নিয়েই সেমিতে উঠেছিল তারা। এরপর ১৯৯৯ ও ২০০৭ বিশ্বকাপেও হটফেবারিট তকমা থাকার পরও সেমি থেকে বিদায় নিয়েছে প্রোটিয়া শিবির। সে কারণেই এবার অকল্যান্ডের দুঃখের ইতিহাসটা ২৩ বছর পর সুখের আবাহন আনতে পারে কিউইরা। অপর সেমিতে হবে আরেকটি আগুনে লড়াই। প্রতিপক্ষ দু’বারের চ্যাম্পিয়ন ভারত ও চারবারের শিরোপাধারী অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপের আগে আড়াই মাসে কোন জয়ের মুখ না দেখলেও আসর শুরুর পর এখন পর্যন্ত অপরাজিত ভারত টানা দ্বিতীয় শিরোপা জয়ের অন্যতম ফেবারিট। আর অসিরা স্বাগতিক হিসেবে শুরু থেকেই ফেবারিট। এ দলগুলোর ক্রিকেটাররা অভূতপূর্ব নৈপুণ্য দেখিয়ে দলকে পাইয়ে দিয়েছেন অবিস্মরণীয় সাফল্য। তবে ব্যাটিংয়ে সবচেয়ে এগিয়ে টানা চার শতক হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়া লঙ্কান সাঙ্গাকারা ৫৪১ রান করে। তার পেছনেই আছেন নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল ৪৯৮ রান করে। বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহ ২৩৭ রানের ইনিংস খেলেছেন তিনি।

আর বোলিংয়ে ১৯ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে কিউই পেসার বোল্ট। ১৮ উইকেট নিয়ে তার পেছনেই আছেন অসি পেসার মিচেল স্টার্ক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেরেমি টেইলর ও ভারতের মোহাম্মদ শামির উইকেট ১৭। এ কয়েকজনের মধ্যেই সেরা হওয়ার লড়াই হবে সেমি ও ফাইনালে।

প্রকাশিত : ২২ মার্চ ২০১৫

২২/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: