মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শুক্রবার ছিল পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৫
  • দেখা গেছে ইউরোপে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শুক্রবার দুপুরে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন এলাকার জনগণ প্রত্যক্ষ করল পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ। বাংলাদেশ সময় বেলা একটা ৪১ মিনিটে শুরু হয়ে সূর্যগ্রহণ। বিকেল পাঁচটা ৫০ মিনিটে। বাংলাদেশ সময় ৩টা ৪৩ মিনিটে গ্রহণ পূর্ণতা পায়। তবে বাংলাদেশ থেকে সৌরজগতের এ মহাজাগতিক ঘটনা প্রত্যক্ষ করা যায়নি। ইউরোপ, উত্তর আফ্রিকা, মধ্য এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের কিছু অঞ্চলে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা যায়।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, শুক্রবার আন্তর্জাতিক সময় সাতটা ৪১ মিনিটে চাঁদের ছায়া পড়ে গ্রিনল্যান্ডে এবং অন্ধকারে ঢাকা পড়ে পূর্বের ফ্যারো দ্বীপ ও নরওয়ের আর্কটিক দ্বীপপুঞ্জ স্যালবার্ডে। এ সময় সূর্য ও পৃথিবীর মাঝ বরাবর চাঁদ চলে আসায় পৃথিবীর ওই অঞ্চল অন্ধকারে ঢাকা পড়ে। পূর্ণগ্রাসের দৃশ্য দেখতে উৎসাহীরা ডেনমার্কের ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জে, নরওয়ের স্যালবার্ডে সমবেত হয়। দিনের বেলায় রাত নামার এই রোমাঞ্চকর দৃশ্য অবলোকন করার জন্য তাদের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করা যায়।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানান, ১৯৯৯ সালের পর এই প্রথম ইউরোপে পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখতে পাওয়া গেল। এমন সূর্যগ্রহণ দেখতে ইউরোপবাসীকে অপেক্ষা করতে হবে এক দশকেরও বেশি সময়। ২০২৬ সালে আবার এই এলাকায় পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ হবে।

বিজ্ঞানীদের মতে, যখন পূর্ণগ্রাস ঘটে তখন সূর্য ও পৃথিবীর মাঝ বরাবর চাঁদ চলে আসে এবং একই সরলরেখায় অবস্থান করে। এতে চাঁদের আড়ালে সূর্য ঢাকা পড়ে যায় এবং চাঁদকে অনেক বড় দেখায়। সূর্যগ্রহণে চাঁদ সূর্যকে সম্পূর্ণ ঢেকে ফেলতে পারে। এতে কোন স্থানে তখন পূর্ণ সূর্যগ্রহণ দেখা দেয়।

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৫

২১/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: