কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সাকিব না কোহলি, তুরুপের তাস কে?

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৫
সাকিব না কোহলি, তুরুপের তাস কে?

জাহিদুল আলম জয় ॥ ক্রিকেটের ‘বড় ভাই’ বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্নে বিভোর বাংলাদেশ। স্বপ্ন পূরণের এ মিশনে আরেকবার ভারত বধে টাইগারদের তুরুপের তাস হতে পারেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। মেলবোর্নে মহেন্দ্র সিং ধোনির দলকে হারিয়ে সেমিতে খেলার প্রত্যয়ের কথা শুনিয়েছেন ২৪ মার্চ ২৮ বছরে পদার্পণ করতে যাওয়া বাংলাদেশের সেরা তারকা। ভারতীয় ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকরের দখলে ক্রিকেট ব্যাটিংয়ের প্রায় সব গৌরবময় রেকর্ড। যে দিকে চোখ তুলে তাকানোর দুঃসাহস কেউ দেখিয়েছেন কি না তা কারও জানা নেই! তবে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরাই বলেছেন, শচীনের রেকর্ড যদি কেউ ভাঙ্গতে পারেন তিনি হচ্ছেন বিরাট কোহলি। ২২ গজে আগমণের পর থেকেই অবিশ্বাস্য ধারাবাহিক ঢংয়ে রান করে চলেছেন ২৬ বছর বয়সী এই দিল্লীর তারকা। এ বারের বিশ্বকাপেও প্রতিটি ম্যাচে তাঁর ব্যাট হাসছে। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়েও কোহলি হতে পারেন বিজয়ের নায়ক। এমন মনে করছেন ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা। বিশ্বকাপের আগেও বাংলাদেশের ধারাবাহিক পারফর্মারের অভাব প্রকট ছিল। ব্যতিক্রম কেবল সাকিব। বর্তমানে ওয়ানডেতে বিশ্বের দুই নম্বর এবং টেস্ট ও টি২০ তে এক নম্বর অলরাউন্ডার ক্রিকেটের রঙ্গিন ময়দানে আগমণের পর থেকেই দুর্দান্ত ধারাবাহিক পারফর্মেন্স প্রদর্শন করে চলেছেন। চলমান বিশ্বকাপেও সেটা অব্যাহত রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। বিশ্বকাপের একাদশ আসরে এ পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে ১৮৬ রান করেছেন সাকিব। দুটি অর্ধশতকের (৬৩, ৫২*) ইনিংস খেললেও শতকের দেখা পাননি। ওয়ানডেতে ছয় সেঞ্চুরি পাওয়া ২৭ বছর বয়সী এই মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান নিজেও মনে করেন ব্যাট হাতে আরও ভাল করার দরকার ছিল তার। এ প্রসঙ্গে সাকিব বলেছেন, মাঠের ভেতরে বাইরে রাখার মতো অনেক ভূমিকা আছে। প্রথমে আমাকে ভাল খেলতে হবে। ব্যাটে, বলে ও একজন সিনিয়র খেলোয়াড় এবং সহ-অধিনায়ক হিসেবে আমাকে দলের জন্য অবদান রাখতে হবে। আশা করি, আমি সেটা করতে পারব। তিনি আরও বলেন, আমার পারফর্মেন্স নিয়ে আমি বলব মোটামুটি। হয়ত আরেকটু ভাল করতে পারতাম, বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি সাকিব। পাঁচ ম্যাচে কব্জা করেছেন ৭ উইকেট। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচেই পেয়েছেন ৪ উইকেট। ১৪৬ ওয়ানডেতে ১৮৯ উইকটে পাওয়া বাঁ হাতি এই স্পিনার অবশ্য নিজের বোলিং নিয়ে খুশি। এ প্রসঙ্গে মাগুড়ার গৌরব বলেন, আমার বোলিং নিয়ে আমি সন্তুষ্ট। তবে উন্নতির তো কোন শেষ নেই। আর দলের জন্য অবদান রাখারও কোন শেষ নাই। ভারতের বিরুদ্ধে আরও ভাল করার চেষ্টা থাকবে আমার। ভারতের বিরুদ্ধে সাকিব আজকের আগ পর্যন্ত ১১ ম্যাচ খেলেছেন। এর মধ্যে জয়ের হাসি নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন দুইবার। ভারত বধের সেই ম্যাচগুলোতে দুর্দান্ত পারফর্মেন্সও প্রদর্শন করেন। ভারতের বিরুদ্ধে ৩৬ গড়ে ৩৬০ রান করেছেন সাকিব। আর ১৩ উইকেট নিয়েছেন ৩৫.৭৬ গড়ে। শেষ আটে লড়াইয়ে ব্যাটে-বলে এর চেয়েও ভাল করার জন্য মুখিয়ে আছেন সাকিব। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার যে কোন প্রতিপক্ষের জন্যই আতঙ্কের। প্রতিপক্ষরা সবসময়ই তাকে নিয়ে বাড়তি অঙ্ক কষতে বাধ্য হন। এখন দেখার, সাকিব ভারতের যমদূত হয়ে উঠতে পারেন কি না। জাতীয় দলে আবির্ভাবের পর থেকেই ধারাবাহিক পারফর্মেন্স করে নিজেকে অপরিহার্য করেছেন কোহলি। ভারতের বিখ্যাত ব্যাটিং লাইনআপে যোগ্যতাবলে নিজের নামটি পাকাপোক্ত করেছেন। ক্রিকেট ব্যাটিংয়ের গৌরবময় প্রায় সব রেকর্ডই ভারতীয় ক্রিকেট-ঈশ্বরের ঝুলিতে। লিটল মাস্টারের ক্যারিয়ারের ব্যাটিংয়ের যত গৌরবময় রেকর্ড আছে তা নাকি চিরকাল অটুট থাকার সম্ভাবনাই বেশি! এর কারণ হিসেবে ক্রিকেটবোদ্ধারা বলে থাকেন, রেকর্ড ভাঙ্গার মতো তেমন কাররই দেখা মেলেনি! কিন্তু সম্প্রতি বছরগুলোতে কোহলির অবিশ্বাস্য ব্যাটিং সবার ভাবনাকেই অন্য স্রোতে ভাসাতে বাধ্য করেছে। ধারাবাহিকভাবে কোহলির ব্যাটিং ঝলক দেখে অনেকেই ইতোমধ্যে বলে দিয়েছেন, ‘আগামীর শচীন কোহলি।’

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৫

১৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: