কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নির্বাচনে হিলারি-বুশের লড়াই

প্রকাশিত : ১৮ মার্চ ২০১৫

আগামী বছরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন কি দুই রাজনৈতিক পরিবারের লড়াইয়ের রূপ ধারণ করবে? কারণ, একদিকে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থিতা লাভের জন্য দাঁড়িয়েছেন হিলারি ক্লিনটন এবং অন্যদিকে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী হতে চাইছেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশের পুত্র জর্জ এলিস জেব বুশ। এরা দু’জনই যদি শেষ পর্যন্ত নিজ নিজ দলের প্রার্থীপদ লাভ করেন, তাহলে লড়াইটা ক্লিনটন পরিবার ও বুশ পরিবারের লড়াইয়ের রূপ যে নেবে, এতে কোন সন্দেহ নেই। জেব বুশ ইতোমধ্যে নিউ হ্যাম্পশায়ার সফরের মধ্য দিয়ে তাঁর প্রাইমারির বেসরকারী প্রচারাভিযান শুরু করে দিয়েছেন।

জেব বুশ প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের দ্বিতীয় পুত্র ও আরেক প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের অনুজ। ১৯৯৯ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত পরপর দু’দুটো মেয়াদে তিনি ফ্লোরিডার গবর্নর ছিলেন। কাজেই শাসন কাজ পরিচালনার অভিজ্ঞতা তাঁর কম নয়। গত ১৬ ডিসেম্বর তিনি আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা পরীক্ষা করে দেখার কথা ঘোষণা করেছিলেন। এখন এ কাজে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন এবং বেশ জোরেশোরে মনোনিবেশ করেছেন তহবিল সংগ্রহে । সহযোগীদের ধারণা, তাঁর সংগৃহীত তহবিল ১০ কোটি ডলারে পৌঁছাতে পারে, যা চার বছর আগে মিট রমনি ও বারাক ওবামার গড়া রেকর্ড ভেঙ্গে দেবে।

জেব বুশ ঘোষণা করেছেন যে, ক্ষমতায় এলে তিনি গত দশ বছর পর্যন্ত পরিশোধিত করের রিটার্ন প্রকাশ করে স্বচ্ছতার একটা মানদ- প্রতিষ্ঠা করবেন। ব্যাপক পরিসরে আনবেন রক্ষণশীল সংস্কার । গবর্নর থাকাকালে তিনি ফ্লোরিডাকে রক্ষণশীল শাসনের একটা মডেলে রূপান্তরিত করেছিলেন বলে রিপাবলিকান মহলে সুনাম আছে। অর্থবল ও শাসন পরিচালনার অভিজ্ঞতার বিচারে তিনি হিলারি ক্লিনটনের যোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বীই হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে বুশ পরিবারের দুই সদস্য পিতা ও পুত্র ইতোমধ্যে ওভাল অফিসে আসায় ঐ পরিবারে তৃতীয় একজন সদস্যকে প্রেসিডেন্ট করার ব্যাপারে রিপাবলিকানদের অনেকে ক্লান্তি বোধ করতে পারেণ। মা বারবারা বুশ তো সেই ২০১৩ সালেই বলেছিলেন যে, জেব প্রেসিডেন্ট পদে দাঁড়ালে সে আমাদের শত্রুদের সবাইকে যেমন পেয়ে যাবে, তেমনি বন্ধুদের অর্ধেককে হারাবে। তাই জেবের সামনে একটা বড় চ্যালেঞ্জ হলো বুশ পরিবারে উৎকৃষ্টতম এবং নিকৃষ্টতম অংশগুলোর মধ্যে একটা ভারসাম্য প্রতিষ্ঠা। পারিবারিক রাজনৈতিক ঐতিহ্যই তাঁকে আজ এই ফ্রন্টে ঠেলে দিয়েছে। তবে তিনি বার বার বুশ পরিবার বিশেষত পিতার ছায়া কাটিয়ে উঠতে চেয়েছেন, কিন্তু পারেননি। কাজটা কখনই তার জন্য সহজ ছিল না।

৬২ বছর বয়স্ক জেবের জন্ম মিডল্যান্ডে। টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হন। কলম্বো গার্নিকা গাল্লো নামে এক মেক্সিকান মেয়ের প্রেমে পড়েন। প্রেম থেকে বিয়ে। সাধারণ ঘরের মেয়ে কোলাজ্বা। জেবের বাবা-মা’র তেমন উৎসাহ না থাকলেও তাঁরা বাধা হয়ে দাঁড়াননি। স্নাতক হবার পর জেব হিউস্টনের একটা ব্যাংকে চাকরি নেন। পরে এই চাকরির সুবাদে ভেনিজুয়েলায় গিয়ে দু’বছর থাকেন। পরে দেশে ফিলে মায়ামিতে বসবাস করতে থাকেন। আর এভাবেই পরিবারের বাইরে থেকে জেবের স্বতন্দ্র সত্তা গড়ে তোলার প্রয়াস চলে।

রাজনীতিতে নামার আগে বাবা ও ভাই বুশ যখন টেক্সাসে তেলের ব্যবসা শুরু করেছিলেন, জেব তখন দক্ষিণ ফ্লোরিডায় রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় ঝাঁপিয়ে পড়েন। এ ব্যাপারে আর্মান্ডো কোডিনা নামে এক কিউবান-আমেরিকান ডেভেলপারের পৃষ্ঠপোষকতা পান তিনি। পরবর্তী ১৫ বছরে নানা ধরনের ব্যবসায় উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হয়ে অভূতপূর্ব সাফল্য পান। সেই সঙ্গে ধরা দেয় বিপুল বিত্ত। এরপর তিনি জড়ান রাজনীতিতে। মায়ামি’র রিপাবলিকান চেয়ারম্যান হন। তাঁর খ্যাতি ব্যাপক পরিসরে ও উচ্চমহলে যোগাযোগের কারণে ফ্লোরিডার গবর্নর তাঁকে রাজ্যের বাণিজ্যমন্ত্রী করেন। ১৯৯৪ সালে জেব ফ্লোরিডার গবর্নর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তখন তিনি এত উগ্র রক্ষণশীল ছিলেন যে রাজ্যের কৃষ্ণাঙ্গ জনগোষ্ঠীর জন্য কি করবেন এই প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেনÑ ‘সম্ভবত কিছুই না।’ সেই নির্বাচনে তিনি ৬৪ হাজার ভোটে হেরে যান। সেই পরাজয় ও ভুলভ্রান্তি থেকে শিক্ষা নিয়ে তিনি পরের বার আবার দাঁড়ান এবং গবর্নর নির্বাচিত হন।

দলীয় মনোনয়ন পাবেন কি জেব বুশ? এখনও এ কথা বলার সময় আসেনি। কারণ প্রাইমারির আনুষ্ঠানিক প্রচারাভিয়ান শুরু হতে এখনও ঢের বাকি। জেবের ব্যক্তিগত জীবনে কখনও কোন কলঙ্কের দাগ পড়েনি। কিন্তু বড় ভাই জর্জ ডব্লিউ বুশ প্রেসিডেন্ট থাকাকালে বৈদেশিক নীতির ক্ষেত্রে বেশ কিছু হঠকারী ও ভ্রান্ত কার্যকলাপের দ্বারা বুশ পরিবারের গায়ে যে বদনাম লেপন করেছেন, তা সহজে ভুলে যাবার নয়। নিজে স্বচ্ছ থাকাকালেও তাঁর পারিবারিক জীবনে জটিলতা আছে। মেয়ে নোয়েল মাদকসক্ত। এগুলো নির্বাচনী প্রচারে প্রভাব ফেলতে পারে। তারপরও পর্যবেক্ষকদের মতে জেবের দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা আছে।

চলমান ডেস্ক

সূত্র : টাইম

প্রকাশিত : ১৮ মার্চ ২০১৫

১৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: