মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আমরা হব আদর্শের উত্তরাধিকার

প্রকাশিত : ১৮ মার্চ ২০১৫
  • নানা আয়োজনে জাতীয় শিশু দিবস ও বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপন

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ যথাযথ মর্যাদা ও বর্ণাঢ্য নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে মঙ্গলবার বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত হয়েছে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী এসব কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আনন্দ র‌্যালি, আলোচনা সভা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। দিবসটি উপলক্ষে মসজিদ, মন্দির ও গীর্জায় বিশেষ প্রার্থনা সভা ও কারাগারগুলোতে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের অঙ্গীকার আমরা হব তাঁর আদর্শের উত্তরাধিকার এই প্রতিপাদ্য সামনে রেখে দিবসটির কর্মসূচীতে সর্বস্তরের মানুষ অশগ্রহণ করে। খবর স্টাফ রিপোর্টার, নিজস্ব সংবাদদাতা ও সংবাদদাতার।

চট্টগ্রাম

সরকারী, আধা সরকারী, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, শিশু কিশোর র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ প্রচার ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত কর্মসূচীতে যোগ দেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বিএনপি সমর্থিত মেয়র এম মনজুর আলম, বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুল্লাহ, জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন এবং প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ।

সাতক্ষীরা

জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানের নেতৃত্বে জজকোর্ট চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে এক আলচনা সভা ও শিশু সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।

গাজীপুর

মহানগরের ভাওয়াল বদরে আলম সরকারী কলেজে ৯৬ পাউন্ড ওজনের কেক কাটার আয়োজন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে কেক কাটেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর জেরিনা সুলতানা। এ সময় কলেজের উপাধ্যক্ষ মাসুদা শিকদার, আবুল কাসেম ইউসুফ ও ছাত্র-ছাত্রীরা অংশ নেন।

ময়মনসিংহ

মঙ্গলবার সকালে শহরের শিববাড়ি দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পরে ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের উপস্থিতিতে জন্মদিনের কেক কেটে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয় দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকরা।

টাঙ্গাইল

নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যান প্রাঙ্গণে শিশু সমাবেশ ও শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন স্থানীয় এমপি ছানোয়ার হেসেন এবং মনোয়ারা বেগম।

সাভার

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। জন্মদিন ও শিশু দিবস উপলক্ষে সকালে সাভার অধর চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আলোচনা সভা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

রাজশাহী

বঙ্গুবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে র‌্যালি, শিশু সমাবেশ, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।

শিশু একাডেমিতে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বেলা ১২টার দিকে মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করা হয়। এর আগে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন দলের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।

লালমনিরহাট

সকালে শিশুসমাবেশ ও বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এসে শেষ হয়।

কক্সবাজার

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক প্রদান করা হয়েছে। পরে জেলা প্রশাসন আয়োজিত এক র‌্যালি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্থানীয় কবিতা চত্বরে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে প্রায় ২০ ফুট দীর্ঘ কেক কেটে দিবসটির উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য খোরশেদ আরা হক।

দিনাজপুর

জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী, পুলিশ সুপার মো. রুহুল আমিন, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমেদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ ফরিদুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুর রহমান প্রমুখ। হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন ভিসি মোঃ রুহুল আমিন। পরে দিবসটি উপলক্ষে হাবিপ্রবি’র অডিটরিয়ামে প্রক্টর প্রফেসর ড. এ.টি.এম শফিকুল ইসলাম-এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ভিসি প্রফেসর মো. রুহুল আমিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির আহ্বায়ক প্রফেসর মো. মিজানুর রহমান প্রমুখ। অপরদিকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, হামদ-নাত-ক্বিরাত, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও

র‌্যালি, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। কালেক্টরেট চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

পিরোজপুর

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান শেষে বিভিন্ন শ্রেণী পেশা সংগঠন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর অংশগ্রহণে এক বিশাল র‌্যালি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি শেষে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য আলহাজ একেএমএ আউয়াল, পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন, লায়লা ইরাদ। আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবনের ওপর শিশুদের কুইজ ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

কুড়িগ্রাম

শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দলের সভাপতি আমিনুল ইসলাম মঞ্জু ম-ল, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি মোঃ জাফর আলী, যুগ্ম সম্পাদক আমান উদ্দিন মঞ্জু, অ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন, অধ্যক্ষ রাশেদুজ্জামান বাবু প্রমুখ। এছাড়া, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে শিশু একাডেমি ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

রূপগঞ্জ

উপজেলা কড়ইতলা এলাকায় ইউএনও লোকমান হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক)। উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান ভুইয়া, উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী মিসেস হাসিনা গাজী, ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হারেজ।

শেরপুর

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে দিবসের সূচনা করেন হুইপ আতিউর রহমান আতিক এমপি। এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকীর হোসেন, পুলিশ সুপার মোঃ মেহেদুল করিম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ছানুয়ার হোসেন ছানু, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পাল পিপি ও প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

দৌলতপুর

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীমুল হক পাভেলের নেতৃত্বে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি শেষে দৌলতপুর শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনের সামনে বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

পাথরঘাটা

পাথরঘাটায় র‌্যালি, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাখাওয়াত হোসেন সরকার ও উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন এবং ভাইস চেয়ারম্যান ফাতিমা পারভীনসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীর সমন্বয়ে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি পৌরশহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

হবিগঞ্জ

জেলা ও পুলিশ প্রশাসন সকল সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট, শিশু একাডেমি, আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন প্রগতিশীল সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো স্ব স্ব কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন এবং শিশু দিবস পালন করে। জেলা কারাগার, সমাজ সেবার উদ্যোগে উন্নতমানের খাবার বিতরণ করা হয়। এছাড়া হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালেও রোগীদের মাঝে বিতরণ করা হয় উন্নতমানের খাবার।

সিরাজগঞ্জ

মঙ্গলবার বিভিন্ন কর্মসূচী ও যথাযথ মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে শহীদ এম মনসুর আলী অডিটরিয়ামে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি।

পঞ্চগড়

শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে কাটা হলো ৯৬ পাউন্ড ওজনের কেক। মঙ্গলবার সকালে পঞ্চগড় সরকারী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতির জনকের ৯৬তম জন্মদিন উপলক্ষে সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদত সম্রাটের দেয়া এ কেকটি কাটা হয়। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হক প্রধান।

রাজবাড়ী

রাজবাড়ীতেও যথাযোগ্য মর্যাদায় এবং উৎসবমুখর পরিবেশে বঙ্গবন্ধুর ৯৬তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়। এ উপলক্ষে সকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে এক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

যশোর

দিবসটি উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে সরকারী কর্মকর্তারাসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। র‌্যালি শেষে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রায়পুর

উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, চিত্রাঙ্কন, রচনা প্রতিযোগিতা, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ঈশ্বরদী

দিবসটি পালন উপলক্ষে ঈশ্বরদী উপজেলা প্রশাসন ও মহিলাবিষয়ক অধিদফতরের পক্ষ থেকে চিত্রাঙ্কন, উপস্থিত বক্তৃতা, গল্পবলা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী এবং বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাগেরহাট

মঙ্গলবার শ্রদ্ধা নিবেদন, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ইত্যাদি নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে।

নাটোর

এ উপলক্ষে সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শহরের কানাইখালী স্টেডিয়াম মাঠ থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে মাদ্রসা মোড় টেকনিক্যাল স্কুলে গিয়ে শেষ হয়।

নড়াইল

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্টেডিয়ামে শিশু সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মানিকগঞ্জ

পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অপর্ণ, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা ও কেক কাটার মধ্য দিয়ে মানিকগঞ্জে আজ মঙ্গলবার উদ্যাপিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্মদিন ও শিশু দিবস। সকালে দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অপর্ণ করেন নেতাকর্মীরা।

মাগুরা

এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকালে কালেকটরেট প্রাঙ্গণ থেকে র‌্যালি বের হয়ে নোমানী ময়দানে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ নেন। নোমানী ময়দানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

মাদারীপুর

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মদিনে মাদারীপুরে জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ও জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। এরপর স্বাধীনতা অঙ্গন থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

কিশোরগঞ্জ

মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পুরাতন স্টেডিয়াম থেকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকম-লী-শিক্ষার্থীরা ছাড়াও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহর প্রদক্ষিণ করে।

কালকিনি

সকালে উপজেলা চত্ব¡র থেকে র‌্যালি বের করে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ভূমি অফিসের সামনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউএনও মোঃ হেমায়েত উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেনÑ উপজেলা চেয়ারম্যান তৌফিকুজ্জামান শাহীন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা তাহমিনা সিদ্দিকী।

কলাপাড়া

জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে কলাপাড়ায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন কর্মসূচী উদযাপিত হয়। কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠন এ সব কর্মসূচী হাতে নেয়।

ঝিনাইদহ

এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মঙ্গলবার সকালে ঝিনাইদহ শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। পরে সেখান থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে গিয়ে এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

দুর্গাপুর

এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সকাল ৯.৩০ মিনিট পুষ্পস্তবক অর্পণ ও বেলুন উড়িয়ে দিবসের সূচনা হয়। পরবর্তীতে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে আওয়ামী লীগসহ সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা, উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারী, বেসরকারী, সামাজিক প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে এক বিশাল র‌্যালি বের হয়।

চুয়াডাঙ্গা

সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসন উদ্যোগে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সামাজিক সংগঠন এতে অংশগ্রহণ করে। র‌্যালিটি জেলা প্রশাসক কার্যালয় হতে বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে শেষ। সকাল ১০টায় শিল্পকলা মুক্তমঞ্চে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক আঞ্জুমান আরা বেগম।

ভোলা

মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে শহরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হবে। বেলা ১০টায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নেতাকর্মীরা পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয় ও কেক কেটে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও সূর্যমুখী কিন্ডারগার্টেন চত্বরে চিত্রাঙ্কন ও শিশু সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভালুকা

জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভালুকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আহসান তালুকদারের সভাপতিত্বে আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডাঃ এম আমান উল্যাহ এমপি।

বাউফল

এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ, সহযোগী সংগঠন ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে নানা কর্মসূচী পালিত হয়েছে। সকাল ৮ উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্পণ করা হয় এবং সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আসম ফিরোজের নেতৃত্বে দলীয় কার্যালয় জনতা ভবন থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়।

আমতলী

কর্মসূচীর মধ্যে ছিল সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, শিশুদের বর্ণাঢ্য র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভা। সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জীবনের ওপর আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমান।

মুন্সীগঞ্জ

র‌্যালি কালেক্টরেট ভবন থেকে বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রদক্ষিণ শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানসহ সর্বস্তরের জনতা। পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে আলোচনা সভা এতে প্রধান অতিথির ভাষণ দেন এ্যাড মৃণাল কান্তি দাস এমপি। জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল হাসান বাদলের সভপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সওদাগর মুস্তাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান প্রমুখ।

মির্জাপুর

মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনাতনে কেক কেটে দিবসের সূচনা করেন মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু। মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাসুম আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন মীর শরীফ মাহমুদ, অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাস, সালাহ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

বগুড়া

সকালে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও শিশু সমাবেশের মধ্য দিয়ে দিবসের সূচনা হয়। এরপর আমিনুল হক দুলাল মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের অঙ্গীকার আমরা হবো আদর্শের উত্তরাধিকার শিরোনামে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সুধীজন। জেলা পরিষদ চত্বরে জাতির জনকের জীবন ও আদর্শের ওপর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় তিনটি গ্রুপে স্কুলের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

খাগড়াছড়ি

মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শিশু সমাবেশ ও র‌্যালি বের করা হয়। পরে টাউনহলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

সিলেট

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শুরুতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি সিলেট, পুলিশ কমিশনার সিলেট, জেলা প্রশাসক সিলেট, পুলিশ সুপার সিলেট, মুক্তিযোদ্ধা জেলা ও মহানগর ইউনিট কমান্ড।

শরীয়তপুর

ভেদরগঞ্জ ও ডামুড্যা উপজেলা আওয়ামী লীগসহ শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগ নানা কর্মসূচী পালন করেছে। মঙ্গলবার সকালে ডামুড্যায় আলহাজ ইমাম উদ্দীন উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে র‌্যালি ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে কবিতা আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন ও বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বরগুনা

র‌্যালি, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়। মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জেলা প্রশাসক মীর জহুরুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি র‌্যালি শহর প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে শেষ হয়।

রাবি

সারাদিন বিস্তারিত কর্মসূচী পালন করা হয়। আলাদাভাবে দিনটি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। সকাল পৌনে ৮টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর সায়েন উদ্দিন আহমেদ ও রেজিস্ট্রার প্রফেসর মু. এন্তাজুল হকসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও মোনাজাত করেন।

কচুয়া

উপজেলার রহিমানগর ৯১নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কেক কেটে দিবসটি পালন করা হয়। তাছাড়া দিবসটি উপলক্ষে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আলোচনা সভা, রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কচুয়া সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়।

নীলফামারী

জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেনের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ছমির উদ্দিন স্কুল এ্যা- কলেজ চত্বরে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএএম রফিকুন্নবীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন, জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন, পুলিশ সুপার জোবায়েদুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাড. মমতাজুল হক, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফজলুল হক প্রমুখ।

গাইবান্ধা

জেলা প্রশাসন গৃহীত কর্মসূচীর মধ্যে ছিল পৌর পার্কের বিজয় স্তম্ভে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শিশু সমাবেশ। এছাড়া জেলা শহরের বর্ণাঢ্য র‌্যালি, শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এবং শিশু একাডেমিতে শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কন, রচনা, উপস্থিত বক্তৃতা ও সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদ, মন্দির, গীর্জাসহ অন্যান্য উপাসনালয়ে বিশেষ দোয়া, জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু জন্মদিবস এবং মহান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সরকারী শিশু বালক ও বালিকাতে এ উপলক্ষে উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

নওগাঁ

জিলা স্কুল মাঠে ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে দিবসের কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। জেলা প্রশাসন আয়োজিত শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক এনামুল হক, পুলিশ সুপার মোঃ কাইয়ুমুজ্জামান খান, সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর শরীফুল ইসলাম খান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসিনা আকতার, সাবেক অধ্যাপক আতাউল হক সিদ্দিকী প্রমুখ।

মোহনগঞ্জ

উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শিশু-কিশোরদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্র্রতিযোগিতা, শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও আদর্শ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতা, শিশু সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

বাকৃবি

জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, ক্যাম্পাসের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালির আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ রফিকুল হকের নেতৃত্বে র‌্যালিটি প্রশাসন ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি চত্বরে শেষ হয়।

ঝালকাঠি

জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে শিশু কিশোর সরকারী কর্মকর্তাদের নিয়ে বিশাল র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহর ঘুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে এসে শেষ হয়। সেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়।

প্রকাশিত : ১৮ মার্চ ২০১৫

১৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: